Search This Blog

Total Pageviews

Friday, January 4, 2019

King Oedipus - bangla translation- part-3 - রাজা ঈডিপাস - বাংলা অনুবাদ -পর্ব - ৩

king oedipus and chorus
King Oedipus - bangla translation- part-3 - রাজা ঈডিপাস - বাংলা অনুবাদ -পর্ব - ৩



১ম পর্ব থেকে পড়া শুরু করুন  

২য় পর্বের লিঙ্ক


King Oedipus - bangla translation- part-3 - রাজা ঈডিপাস - বাংলা অনুবাদ -পর্ব - ৩

[থীবিয়ান প্রবীন কোরাস দলের প্রবেশ]
কোরাস : ও থেবস, আলোর শহর, আলোকিত পিথিয়ান স্বর্ণনগরী হতে হে স্বগীয় বাণী শোনা যাচ্ছে।  প্রচণ্ড ভীতিতে বিদীর্ণ হচ্ছে আমার অন্তর। তোমার ক্ষোভকে দমিত করার জন্য সকরুণ আর্তনাদ চৌচির করছে আকাশ বাতাস। কী ভাবে উদ্ধার করবে আমাদের, কবে ঘটবে তা ওহে আগামী দিনের উজ্জ্বল আশার কন্যা বলো দেখি ওহে অমর দেবী অ্যাথিনীদেবরাজ জিউস তনয়া তোমারই শরণ নিচ্ছি, প্রথমে ধনুর্বাণ ধারী দেবতা ফিবাস আর তোমার বোন আমাদের রাজ্যের রক্ষাকর্ত্রী দেবী আর্টেমিসের শরণ নিচ্ছি আমি। ফের তোমাদের ত্রয়ী শক্তির প্রকাশ ঘটাও। আমাদের নগরী পানে ধেয়ে আসা মৃত্যুর গতিকে ফেরাওআমাদের রাজ্যে মহামারী পাঠিয়ে রাজাকে ঠেলে দিচছ পতনের মুখে, তাকে রোধ করার জন্য তুমি মূর্তি ধরে হাজির হও দুঃখ বেদনায় জর্জরিত মোরা, ভয়াল ব্যধি সবকিছুকে অতিক্রম করেছে। এর থেকে উদ্ধারের কোন পথ খুঁজে পাচ্ছি না মোরা। জমিতে ফলছে না ফসল, প্রসব বেদনায় কাতর রমণী প্রসব করতে পারছে না সন্তান একে একে সব প্রাণবায়ু উড়ে যাচ্ছে মৃত্যুলোকে। এত যে মৃত্যু গুনে শেষ করা যায় না, শূন্য হয়ে যাচ্ছে নগরী। মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করবে এমন কোন মানুষ নেই, মৃতদেহগুলো সৎকারেরও কোন লোক নেই। চারপাশে মৃতদেহ জমে জমে ছড়াচ্ছে ভয়াল ব্যাধি। হাজারো বিধবা আর বৃদ্ধা মাতার বিলাপের সাথে প্রতিকারের অনুনয় বিনয় মিলে ভারী করে তুলেছে আকাশ বাতাস। সোনালি দেবী আর্টেমিস আমাদের আর্তনাদ শুনে মোদের সামনে এসে দাড়াও। অ্যাপোলো, আমাদের প্রার্থনা শোনো, আরোগ্যের পথ বাতলাও। মৃত্যুদেবতার যে ভয়াল শক্তি তাদের অগ্নিসম তেজ দ্বারা আমাদের পুড়িয়ে ছাই করছে, সমুদ্রপাড়ের শীতল হাওয়া দ্বারা তাদের তাড়াও অথবা তাদের ডুবিয়ে দাও সাগরে। হে দেবরাজ জিউস, আজকে রাতে না হলেও আগামী কাল দিনের আলোকে এটা সম্পন্ন কর। তোমার বজ্রের আড়ালে রাখা অগ্নিফুলিঙ্গ সম বিদ্যুৎ শিখা দ্বারা মৃত্যু দেবতার ভয়াল শক্তিগুলোকে বিনষ্ট করে দাও।
ওহে, লাইসিয়া রাজ, তোমার ধনুক হতে ছুটে যাওয়া তীর যেন বিফলে না যায়, সেটা যেন আমাদের শক্রকে ধ্বংস করে। দেবী আর্টেমিসের অগ্নিবাণগুলোও যেন লাইসিয়ার পর্বত ভেদ করে ছুটে আসে। আমাদের রাজ্যের নামে যার নাম সেই দেবতা বাকাসকেও আবাহন করছি, মীনাডের সখা যিনি। তার কাছে প্রার্থনা মোর, তিনি যেন তার হাতের মশাল নিয়ে মোদের শক্র মৃত্যু দেবতার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামেন।
[প্রাসাদ হতে ঈডিপাস বেরিয়ে এলেন]
ঈডিপাস : তোমরা প্রর্থনা করছ। তোমাদের এই প্রার্থনার জবাবে তোমাদের দুঃখ মোচনের উদ্দেশে আমি কিছু বলতে চাই, যদি তোমরা আমারা কথা শোন। সবার সামনে বলছি আমি; আমি এমন একজন মানুষ যে এ ব্যাপারে কোন কিছুই অবগত ছিল না, যে এই হত্যাকাণ্ডের কোন সংবাদই পায়নি সেই আমি এই হত্যা কারীকে খুজে বার করার জন্য দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। আমি থিবিয়ান আর তোমরা আমার নতুন প্রজা। আমি ঘোষণা করছি ল্যাবডাকাস পুত্র লায়াসকে কে হত্যা করেছে এটা যদি কেউ জানতে পারে সে যেন অবশ্যই আমাকে তা জানায়। [এটা বলেই ঈডিপাস কিছুটা বিরতি দিলেন, জনতা চুপ করে রইল] হত্যাকারী যেই হোক না কেন এটা বলতে কেউ যেন কোন ভয় না করে, কারণ আমি হত্যাকারীর শাস্তি পূর্বেই ঘোষণা করে রাখলাম। হত্যাকারীকে কোন ক্ষতির দৈহিক শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে না, সে শুধু এ দেশ ছেড়ে চলে যাবে, এটা ছাড়া অন্য কোন শাস্তি তাকে দেয়া হবে না। শ্রোতারা নীরব আর কেউ যদি ভিনদেশি কোন গুপ্ত ঘাতকের সন্ধান জেনে থাকে সেটাও যেন আমাকে জানায়। আমি তাকে এ সংবাদ দেয়ার জন্য বিশেষভাবে পুরস্কৃত করব। শ্রোতারা নীরব কিন্তু তোমরা যদি কেউ ভীতির বশবর্তী হয়ে হত্যাকারীর বিষয়টা গোপন রাখ তাহলে তার জন্য কী করব, বলছি শোনো, আমার রাজ্যের সীমানার মধ্যে সেই হত্যাকারীকে কেউ সহায়তা দেবে না এমনকি তার সাথে কথা পর্যন্ত বলবে না, তার সাথে বসে কেউ প্রার্থনা করবে না, তার মুখের উপর সবাই ঘরের দরজা বন্ধ করে দেবে। তোমরা মনে রাখবে, পিথিয়া হতে যে দৈববাণী এসেছে তাতে বলা হয়েছে এই হত্যাকারীর পাপাচারের কারণেই পুরো রাজ্য পাপের ভারে ডুবে যাচ্ছে, অভিশাপ বয়ে আনছে। আমি দৈববাণীর নির্দেশমতো মৃত ব্যক্তির আত্মার প্রতি সুবিচার করতে আগ্রহী। আমি আবার জানাচ্ছি, হত্যাকারী যেই হোক, একজনই হোক কিংবা বহুজনই হোক, তার গত জীবনের অন্যায়কর্মের কথা সে নিঃশঙ্ক চিত্তে প্রকাশ করতে পারবেযদি হত্যাকারী আমার প্রাসাদেও লুকিয়ে থাকে তার বেলাতেও এটাই প্রযোজ্য হবে। আমার এই আদেশ কার্যকর করার দায়িত্ব আমি তোমাদের হাতে দিচ্ছি। আমি আশা রাখি, তোমরা তোমাদের রাজার স্বার্থে, দেবতার সন্মানে, অভিশাপগ্রস্ত এই রাজ্যের খাতিরে তোমরা অবশ্যই এ দায়িত্ব নেবে। কোন দৈববাণী না পেলেও এ বিষয়ে তোমাদের পুরনো রাজার সম্মানেই এ কাজটা তোমাদের করা উচিত। আর আমিও যেহেতু পুরনো রাজার স্ত্রীকে বিয়ে করে রানী বানিয়েছি, তার গর্ভে এসেছে আমার সন্তান, এ কারণে আমি ভূতপূর্ব রাজার সাথে বাধা পড়েছি, অতএব, আমারও এ কাজের দায়িত্ব গ্রহণ করা উচিতঅতএব, রাজার পুত্রের দায়িত্ব নিয়েই আমি তার হত্যাকারীকে খুঁজে বার করব। আর এভাবেই আমি ল্যাবডাকাস পুত্র রাজা লায়াস, পলিডোরাস ক্যাডমাস, এজিনরএসব রাজ্যের পূর্বপুরুষদের প্রতি আমরা যথোপযুক্ত সম্মান প্রদর্শন করব। আর যারা আমার নির্দেশ অমান্য করবে, দেবকুলের কাছে আমি প্রার্থনা করছি, তারা যেন ক্ষেতের শস্য, সন্তান-সুখ উপভোগ করতে না পারে, তারা যেন আরও অসীম দুঃখ-দুর্দশার মাঝে পতিত হয়। কিন্তু যারা আমার অনুগত প্রজা, তারা যেন দেবতার আনুকূল্য লাভ করে, সারা জীবন তারা যেন দেবতার আশীর্বাদ ধন্য হয়ে সুখে কাল যাপন করে।
কোরাস গায়ক : মহান রাজা, আমি হলফ করে বলছি, আমি হত্যাকারী নই, হত্যাকারীকে চিনিও না। আমার বিশ্বাস, দেবতা ফিবাসই এই প্রশ্নের জবাব দিতে পারবেন।
ঈডিপাস : এতে কোন সন্দেহ সেই, কিন্তু দেবতা যদি কোন কথা বলতে না চান তাহলে কোন মানবের পক্ষে সম্ভব নয় তাকে দিয়ে কথা বলানো।
কোরাস গায়ক : আমি এ ব্যাপারে অন্য প্রসঙ্গ উথাপন করছি।
ঈডিপাস :    বলো, দ্বিতীয়, তৃতীয় কোন পথ যদি থাকে, আমি সবই শুনব।
কোরাস গায়ক : দেবতা ফিবাসের পরেই টেরেসিয়াস নামে একজন দৈব ভবিষ্যদ্বক্তা আছেন, তিনি কাছাকাছিই থাকেন, তার কাছ থেকে এ গুপ্ত রহস্য আমরা জানতে পারব।
ঈডিপাস : আমিও এ বিষয়টি পাশ কাটাচ্ছি না, ক্রেয়নের সাথে পরামর্শ করে তাকেও আনতে পাঠিয়েছি, আমি অবাক হচ্ছি তিনি এখানে নেই কেন?
কোরাস গায়ক : এটা অবশ্যই একটা গুজব, কিন্তু কিছু কিছু লোক এই চমৎকার গুজবে বিশ্বাস করে।
ঈডিপাস : গুজব? কেমন গুজব, এ বিষয়ে সবকিছু জানতে চাই আমি
কোরাস গায়ক: গুজব এটা বলে যে, রাজা ভ্রমণকারীদের দ্বারা পথে নিহত হয়েছিলেন।
ঈডিপাস : আমিও তাই শুনেছি, কিন্তু কোনো প্রত্যক্ষদর্শী নেই।
কোরাস গায়ক : কিন্তু তারা যখন আপনার এই অভিশম্পাতের কথা জানতে পারবে তখন তারা নীরব থাকতে পারবে না। অবশ্যই প্রকাশিত হবে তারা
ঈডিপাস : যে মানুষ নর হত্যার মতো পাপ করতে পারে সে কি এই অভিশাপের ভয়ে ভীত হবে?
কোরাস গায়ক : এটা নিশ্চিত যে, সে এবার ধরা পড়বেই। এমন এক দৈব ভবিষ্যদ্বক্তা এসেছেন যার কাছে মানব জীবনের সকল ঘটনাই প্রকাশ পায়। 
[একটি বালকের হাত ধরে অন্ধ জ্যোতিষী টেরেসিয়াসের প্রবেশ]

পর্ব- ৪ এ যান 


No comments:

Post a Comment

Popular Posts