Sunday, January 6, 2019

King Oedipus - Bangla translation - Part - 13 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ - পর্ব ১৩

king oedipus bangla translation
King Oedipus - Bangla translation - Part - 13 -  রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ - পর্ব ১৩



King Oedipus - Bangla translation - Part - 13 -  রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ - পর্ব ১৩
পর্ব ১৩ শুরুঃ 
মেষপালক : কেন, আমি কী এমন অপরাধ করেছি প্রভু?
ঈডিপাস : যে শিশু সম্পর্কে তোমাকে প্রশ্ন করা হয়েছে তার সম্পর্কে তুমি সত্যি কথা বলছ না।
মেষপালক : ও জানে না, আসলে ও কী বলছে, সে কোন ভুল করছে হয়ত।
ঈডিপাস : তুমি যদি স্বেচ্ছায় সত্যি কথাটা না বল তাহলে আমরা তোমার মুখ থেকে কথা বার করব।
মেষপালক : মহান ঈশ্বরের নামে বলছি, মহানুভব, এই বৃদ্ধ লোকটাকে আর যাতনা দেবেন না।
ঈডিপাস : কে আছ এখানে, ওর-হাত দুটো বেঁধে ফেলো ।
মেষপালক : ওহ, প্রভু আমার, এটা কী হচ্ছে, এর অধিক আর কী জানতে চান আপনি?
ঈডিপাস : সেই শিশুটি সম্পর্কে ও যা বলছে, শিশুটিকে কি তুমি তার হাতে তুলে দিয়েছিলে?
মেষপালক ; হাঁ, দিয়েছিলাম; আমার মনে হচ্ছে সেদিনই যদি আমার মৃত্যু হত!
ঈডিপাস : সত্যি কথাটা না বললে আজই তোমার মৃত্যু হবে।
মেষপালক : এটা বললেও আমার উপর মৃত্যু নেমে আসবে।
ঈডিপাস : এখনো চালাকি করছ।
মেষপালক : আমি কি বলিনি যে, শিশুটিকে তার হাতে অর্পণ করেছি, এর বেশি কী বলব?
ঈডিপাস : শিশুটিকে কোথা থেকে পেয়েছিলে, তোমার নিজের বাড়িতে নাকি অন্য কোথাও থেকে?
মেষপালক : আমার বাড়ি থেকে নয়, অন্য এক লোকের হাত থেকে।
ঈডিপাস : কোন সে লোক, কোন বাড়ি সেটা?
মেষপালক : সবই ঈশ্বর জানেন, প্রভু আমার, এ বিষয়ে আমাকে আর প্রশ্ন করবেন না।
ঈডিপাস : সঠিক জবাব দাও। যদি আমি দ্বিতীয়বার বাক্য উচ্চারণ করি তাহলে তোমার মৃত্যু অবধারিত।
মেষপালক : আমি এ শিশুটিকে রাজা লেয়াসের প্রাসাদ থেকে পেয়েছি।
ঈডিপাস : শিশুটি কোন ক্রীতদাসের নাকি রাজা লেয়াসের বংশধর?
মেষপালক : আমাকে বলতেই হবে?
ঈডিপাস : তুমি অবশ্যই বলবে, আমি অবশ্যই শুনব।
মেষপালক : শিশুটি রাজা লেয়াসের সন্তান, এ বিষয়ে আপনার রানী আরো ভালো বলতে পারবেন।
ঈডিপাস : শিশুটিকে রানী নিজেই কি তোমার হাতে দিয়েছিলেন?
মেষপালক : হ্যা, প্রভু আমার।
ঈডিপাস : কী কারণে?
মেষপালক : সে ধ্বংসকারী হবে বিধায় ।
ঈডিপাস : রানী নিজেই কি শিশুটির জন্মদাত্রী?
মেষপালক : হ্যাঁ, প্রভু আমার। তারা ছেলেটির বিষয়ে একটি ভবিষ্যৎ বাণী শুনেছিল।
ঈডিপাস : কী সেই ভবিষ্যৎ বাণী?
মেষপালক : ভবিষৎ বাণী বলেছিল, ছেলেটি নাকি তাঁর পিতাকে হত্যা করবে।
ঈডিপাস : ঈশ্বরের নামে বল, ছেলেটিকে তুমি এর হাতে তুলে দিয়েছিলে কেন?
মেষপালক : আমি চেয়েছিলাম শিশুটিকে অন্য কোথাও বাচিয়ে রাখতে। এখন দেখছি ভয়াল এক বিপর্যয়ের জন্যই তাকে বাচিয়ে রাখা হয়েছে। আপনিই যদি সেই শিশু হয়ে থাকেন তাহলে ভয়াল এক দুঃখ ভোগ করার জন্যই জন্ম হয়েছে আপনার।
ঈডিপাস : হায়! সব প্রকাশ পেল, সবই জানা হল, কিছুই আর অপ্রকাশিত নেই। ওহে, আলো! আমি আর তোমাকে দেখতে পাব না। যে ভয়াল অভিশাপ আর জন্মলগ্ন পবিত্র বিবাহ বন্ধনকে নোংরামিতে পাপাচারে ভরে দিয়েছে, সেই অভিশাপের কারণেই আমি আমার পিতাকে হত্যা করেছি।
[প্রস্থান]
[সংবাদবাহক ও মেষপালক চলে যায়]
কোরাস : মরণশীল মানব জাতি, ক্ষণকালের তোমাদের এ জীবন। এমন মরণশীল মানব কেউ কি আছে যে আজীবন সুখ ভোগ করেছে যার ক্ষণিক সুখময় ছায়ার জীবন গড়ে উঠতে না উঠতেই ভেঙ্গে তছনছ হয়নি? ওহে, ঈডিপাস, তোমার দুর্ভাগ্যই সতর্ক করছে আমাকে। আমি যেন এ জগতের কোন মানুষকে চিরসুখী বলে না ভাবি। একদা এই ঈডিপাস তার তীক্ষ বুদ্ধি আর কৌশল দ্বারা ছিনিয়ে এনেছিল সৌভাগ্যকে, হে জিউস। সেই বাঁকা ঠোটের জটিল পাখিটাকে হত্যা করেছিল, যে মাঝেমধ্যেই অশুভ এক ভবিষ্যৎ বাণী করত। মরণজয়ী বীরের মতো সে মৃত্যুর উপরে আরোহণ করে আমাদের রাজ্যে গড়েছিল বিজয় তোরণ। আমরা তাকে রাজা হিসেবে বরণ করে নিয়ে গৌরবময় আসন প্রদান করি। তিনি শাসন করত থাকেন থীবসবাসীকে। কিন্তু আজ তার মতো দুঃখী মানব এ জগতে আর একজনও নেই। এখন যে কোন সময় সে কোন ব্যাধি মহামারি কিংবা ভয়াল দুঃখের শিকারে পরিণত হতে পারে। ওহে, ঈডিপাস, যে আরামদায়ক শয্যায় তুমি শিশুকালে শয়ন করেছ, সেই শয্যাটাকেই তুমি তোমার দাম্পত্য শয্যা বানিয়েছ? হতভাগা, যে গর্ভে তোমার পিতা একদা সন্তান উৎপাদন করেছেন, সে গর্ভ এতদিন কি করে নীরবে তোমাকে মেনে নিয়ে তোমার সন্তান ধারণ করল? র্বজ্ঞাতা মহাকাল তোমাদের লুকোনো সব প্রকাশ করে দিল। যে বিদ্রুপাত্মক বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ মাতা পুত্র, সে বিয়ের বন্ধন ছিড়ে ফেলল মহাকাল। লেয়াস পুত্র, তোমার সাথে যদি আর কখনো আমার সাক্ষাৎ না হত! গতকাল তুমি দিয়েছিলে আমার দৃষ্টিতে ভোরের আলোক শিখা,আজ আমার চোখে নেমেছে সীমাহীন রাত্রির কালো অন্ধকার। 


পরের পর্বে যান 


No comments:

Post a Comment

Trending