Tuesday, September 10, 2019

Volpone - (The Fox) - Ben Jonson - Translation in Bangla - Act - 3 - Scene -1-2-3-4-5-6

Volpone - (The Fox) - Ben Jonson - Translation in Bangla - Act - 3 - Scene -1-2-3-4-5-6



Volpone (The Fox) - Ben Jonson - Translation in Bangla - Act - 3 - Scene -1-2-3-4-5-6

তৃতীয় অঙ্ক প্রথম দৃশ্য
(একটি রাস্তা)।
(মসকার প্রবেশ)
মসকাঃ আমার ভয় হচ্ছে এই জন্য যে আমি আমার প্রিয় অহং আমার অসাধারণ বুদ্ধিমত্তা-যা খুব দ্রুত উদ্ভূত হচ্ছে এবং বাড়ছে, তার প্রেমে পড়ে যাচ্ছি। আমার শিরায় আমি এক অদ্ভুত খেয়াল অনুভব করছি। আমি জানি না কিভাবে, কিন্তু সাফল্য আমাকে খেলুড়ে করে তুলেছে। আমি এমনই চটপটে আর কর্মতৎপর হয়ে উঠেছি যে আমি ধূর্ত সাপের মতো ঠিক সময়ে সময়ে চর্ম ত্যাগ করে চামড়া থেকে সহজেই ঝেড়ে ফেলতে পারি। ওহ! আপনার পরজীবী সবচেয়ে দামী ব্যক্তি। সে যেন বায়বীয় এলাকা থেকে অবতরণ করে, আর সে যেন এই পৃথিবীর স্থুলবুদ্ধিসম্পন্ন আর মাথামোটাদের মধ্যে বেড়ে ওঠেনি। আমি অবাক হয়ে যাই কেন একজন পরজীবীর পেশা অধ্যয়নের নিয়মিত শাখা হয়ে ওঠেনি, যখন কিনা এটা ভদ্রসন্তানদের দ্বারা ব্যাপকভাবে চর্চিত হচ্ছে। পরজীবী বা উপ-পরজীবী ছাড়া পুরো জ্ঞানী পৃথিবীটাই প্রকৃতিগতভাবে ক্ষুদ্র। আর এখন আমি শুধু তাদের উল্লেখ করব না যারা শহরজীবনের প্রতিটি আনাচ কানাচ জেনে জীবন নির্বাহ করার কৌশল জানে, যারা জানে কাদের বাড়ীতে তারা ভেজ্যোৎসবে নিজেদের নিমন্ত্রণ আদায় করে নিতে  পারবে, যাদের কোনো গৃহ নেই, পরিবার নেই, আদর যত্ন করার কেউ নেই, আর তারপর তারা চমৎকার অভিনব কাহিনী বুনতে পারে যা তারা লোকজনের কানে ফিসফিস করে বলে তাদের শ্রবণক্ষমতাকে বিপথে চালিত করার জন্য, অথবা ধনী লোকদের খাবার টেবিলের রন্ধনপ্রণালী হস্তগত করে এবং কিছু বাসি খাদ্যও গ্রহণ করে তাদের উদরকে সন্তুষ্ট করার জন্য এবং যৌন ক্ষমতাকে অক্ষুন্ন রাখার জন্য। আমি তাদের কথাও বলছি না যারা তাদের পৃষ্ঠপোষকদের অনুগ্রহ পাবার জন্য কুকুরের মতো চালাকি খাটায়, যারা স্তাবকতা করতে পারে, আর আজ্ঞাবাহী কুকুরের মতো হাসতে পারে, যারা ভান করে হাসে মাথা নুইয়ে এবং অভিবাদন করে, যারা তাদের পৃষ্ঠপোষকদের আনন্দ দেবার জন্য তাদের কথার পুনরুক্তি করতে পারে, আর যারা তাদের পৃষ্ঠপোষকদের খেয়ালের কথা বা সামান্য অসুবিধের কথা আগেই বলে দেয়। কিন্তু আমার মত একজন প্রকৃত পরজীবী হচ্ছে একজন চমৎকার, পরিশীলিত খারাপ লোক, যে নিজেকে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করতে পারে যখন একই সময়ে নিজেকে নীচে নামিয়ে আনতেও পারে, আর এভাবে তীরের মতো আচরণ করে। এ ধরনের পরজীবীরা বাতাসের মধ্য দিয়ে ক্ষিপ্রগতিতে তারায় তীর ছুঁড়তে পারে যা কিনা চড়ুই পাখির মতো দ্বিপশ্চাদভাগবিশিষ্ট, এখানে একবার ওখানে একবার, এখানে একবার, ওখানে একবার-অথচ একই সময়ে যে কিনা মুহূর্তের মনের ভাবের সুযোগ নিতে পারে এবং যা কিছুই ঘটুক না কেন, তার সুযোগ নিতে পারে। যে গতিতে একজনের মনের চিন্তা অন্য একটি চিন্তাকে স্থান করে দেয়, সেই গতিতে এরকম একজন লোক তার মুখোশ পাল্টাতে পারে। এরকম একজন ব্যক্তি জন্মগতভাবেই তোষামোদের শিল্প জানে। এটা শেখার জন্য তাকে কোনো পরিশ্রমই করতে হয় না, সে এটা স্বভাবগত বা জন্মগত বলে ধরে নিয়েই চর্চা করে। এইসব শহর সম্পর্কে জ্ঞানী ব্যক্তিরাই প্রকৃত পরজীবী, অন্য সবাই হলো তাদের নকল।

তৃতীয় অঙ্ক দ্বিতীয় দৃশ্য।
(মসকা এবং বোনারিওর প্রবেশ)
মসকাঃ উনি কে? উনি কি বোনারিও, বৃদ্ধ করবাসসিওর পুত্র? ইনিই সেই ব্যক্তি যাকে আমি আশা করেছিলাম। প্রিয় স্যার, এটা সৌভাগ্যের বিষয় যে আমাদের দেখা হলো।
বোনারিওঃ  তোমার সঙ্গে দেখা হওয়াকে সৌভাগ্য বলা যায় না।
মসকাঃ কেন, স্যার?
বোনারিওঃ না, তোমার নিজের কাজে যাবার জন্য অনুরোধ করছি, আর আমার সামনে থেকে চলে যাও। তোমাদের মতো একজন লোকের সাথে কথা বলার কোনো ইচ্ছেই নেই আমার।
মসকাঃ ভদ্রমহোদয়, আমাকে ঘৃণা করবেন না, কারণ আমি দরিদ্র।
বোনারিঃ আমি স্বর্গের নামি শপথ করে বলছি, তোমার দারিদ্র্য এর কারণ নয়। কিন্তু তোমার নীচতার জন্য তুমি নিশ্চয়ই তোমাকে ঘৃণা করতে দেবে।
মসকাঃ নীচতা?
বোনারিওঃ হ্যা, আমাকে বলো, তোমার কাজ করার অনিচ্ছা, পৃষ্ঠপোষককে তোষামোদ করা এবং একজন ধনী ব্যক্তির পরজীবী হয়ে বেঁচে থাকা, তোমার নীচতার যথেষ্ট প্রমাণ নয়?
মসকাঃ স্বর্গের নামে বলছি, আমার প্রতি সদয় হোন। এরকম নিন্দাকর অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়, স্যার, এবং একজন গুণী ব্যক্তির বিরুদ্ধেও বলা যায় যে তিনি দরিদ্র। আপনি আমার প্রতি অন্যায় করছেন, আর আমি যতোই আপনার সমালোচনা শোনার পাত্র হই না কেন, তা বলবার কোনো অধিকার নেই আপনার, কারণ আপনি আমার ব্যাপারে কোনো কিছু জানার আগেই আমাকে বিচার করছেন। সেন্ট মার্ক নিজেই একজন সাক্ষী হিসেবে আবির্ভূত হতে পারেন আপনি যা বলেছেন তার বিরুদ্ধতা ঘোষণা করে; আমার বিরুদ্ধে আপনার অভিযোগ অমানবিক। (ক্রন্দন)।
বোনারিওঃ (জনান্তিকে) সে কি, সে কি কাঁদছে? তার কান্নাটা কোমল স্বভাব আর ভালোমানুষির লক্ষণ। আমি দুঃখিত এই জন্য যে আমি তোমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছি।
মসকাঃ এটা সত্যি যে, তীব্র প্রয়োজনের তাড়নায় নীচ তোষামোদের দ্বারা আমার কষ্টার্জিত রুটি খেতে আমি বাধ্য হয়েছি। এটাও সত্যি যে, আমার দরিদ্র জীবন যাপনের জন্য একজন পৃষ্ঠপোষকের প্রতি আমার দায়িত্বপূর্ণ সেবা দিতে আমি বাধ্য হয়েছি, কারণ স্বাধীন জীবন-যাপন করার মতো যথেষ্ট উপায় নিয়ে আমি জন্মাইনি। কিন্তু এটা সত্য নয় যে আমি বন্ধুদের ফাটল ধরানো, পরিবারের মধ্যে ভাঙ্গনের সৃষ্টি করা, মানুষের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা, মানুষের কানে কানে মিথ্যা কথা বলা অথবা তোষামোদ করে মানুষের ক্ষতি করা-এধরনের অসম্মানজনক কোনো কাজ করেছি। আমি মিথ্যা কথা বলে মানুষের বিশ্বাস অর্জন করিনি, অথবা সাধ্বী মহিলার ক্ষতি করিনি। আমার নিজের আরামের প্রতিও আমি এখন আসক্ত নই। বরং উল্টো কর্কশ এবং কঠিন পথ অনুসরণ করে আমার সুনাম অক্ষুন্ন রাখার জন্য আমি সব সময়েই প্রস্তুত। যদি আমি যা বলেছি, তা মিথ্যে হয়, আমাকে এখানেই মৃত্যুবরণ করতে দিন, আর পরিত্রাণের আশা পরিত্যাগ করতে দিন।
বোনারিওঃ (জনান্তিকে) এমন দৃঢ় অনুভূতি ভান হতে পারে না। (মসকাকে) তোমার স্বভাব সম্পর্কে ভুল বোঝার জন্য আমি নিজেকে দোষী ভাবছি। আমি আশা করছি, তুমি আমাকে ক্ষমা করবে, আর তোমার কাজ সম্পর্কে আমাকে বলবে।
মসকাঃ স্যার, আমার কাজের সঙ্গে আপনার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট রয়েছে, আর যদিও প্রথমে এমনটা মনে হতে পারে যে, ভালো আচরণের খেলাপ করার জন্য আমি দোষী এবং আমার চাকরিদাতার প্রতি অকৃতজ্ঞতার দোষে দোষী, তবু আমি আপনার কাছে অবশ্যই সত্য প্রকাশ করবো, কারণ যা কিছু সঠিক সে সবের জন্য আমি সত্যিকারের ভালোবাসা অনুভব করি আর যা কিছু ভুল সেসবের জন্য ঘৃণা অনুভব করি। এ মুহূর্তে আপনার পিতা আপনাকে উত্তরাধিকার থেকে বঞ্চিত করার জন্য পরিকল্পনা করেছেন।
বোনারিওঃ তুমি কি বলতে চাইছো?
মসকাঃ আর আপনি যেন তার সঙ্গে রক্ত সম্পর্কে সম্পর্কিত নন, এভাবে আপনাকে ছুঁড়ে ফেলতে চাইছেন। আমি যা বলছি তা সত্যি, স্যার। এই কাজে আমার কোনো লাভ নেই, কিন্তু যেহেতু আমি বলেছি যে আমি ভালোত্ব এবং প্রকৃত গুণের ক্ষেত্রে আগ্রহী, যা আপনার মধ্যে আমি দেখতে পেয়েছি। আর শুধু এ কারণেই, এবং অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছাড়াই আপনাকে আমি সব কিছু বলবো স্যার।
বোনারিওঃ তুমি আমাকে যে গল্প বলতে যাচ্ছে, তার ফলে তুমি একটু আগে আমার মধ্যে তোমার সম্পর্কে যে বিশ্বাস জাগিয়ে তুলেছিলে, তা হারিয়ে ফেললে। তুমি যা বললে তা অসম্ভব। আমি জানি না কিভাবে আমি এতে মনোযোগ দেবো। আমার বাবা এতো অস্বাভাবিক হতে পারেন না।
মসকাঃ আপনার বাবার প্রতি আপনার বিশ্বাস সত্যিই একজন অনুরক্ত পুত্রের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, আর কোনো সন্দেহ নেই যে আপনার এই বিশ্বাস উৎপাদন করেছে আপনার সরলতা ও মহানুভবতা যে কারণে আপনার প্রতি বিকৃত এবং ঘৃণিত অন্যায় করা হয়েছে। কিন্তু স্যার, আমি আপনাকে এখন আরো কিছু তথ্য দেবো। এই মুহূর্তে আমি যা বললাম তা হতে যাচ্ছে বা হবে, আর আপনি যদি শুধু আমার সঙ্গে যেতে সম্মত হন, আপনাকে আমি সঙ্গে নেবো-আপনাকে আমি কোথায় নিয়ে যাবো, তা বলার সাহস আমি পাচ্ছি না-কিন্তু সেখানে আপনি আপনার নিজের কানে শুনতে পাবেন সেই কাজটির কথা যা সম্পাদিত হতে চলেছে, আপনি বাস্তবিকই নিজের কানে শুনতে পাবেন যে আপনাকে অবৈধ সন্তান হিসেবে বর্ণনা করা হচ্ছে, এবং আপনাকে অচেনা বা অজানা অভিভাবকদের সন্তান হিসেবে বর্ণনা করা হচ্ছে।
বোনারিওঃ আমি বিস্মিত হচ্ছি।
মসকাঃ স্যার, যদি আমি আপনাকে প্রমাণ দিতে না পারি, আপনার তলোয়ার তুলে নেবেন এবং আমার কপালে এবং মুখে আঘাত করবেন আমাকে শাস্তি দেবার জন্যে, আমার সঙ্গে এমন আচরণ করবেন যেন আমি আপনার জঘনা শত্রু। স্যার, আপনার প্রতি খুব বড় রকমের অন্যায় করা হচ্ছে আর আমি আপনাকে গভীরভাবে অনুভব করছি। কষ্টে আমার হৃদয় রক্তের অশ্রু বর্ষণ করছে।
বোনারিওঃ আমাকে নিয়ে চলো। আমাকে তুমি যেখানে নিয়ে যাবে সেখানেই আমি তোমার সঙ্গে যাব।

তৃতীয় অঙ্ক তৃতীয় দৃশ্য।
(ভলপোনির গৃহ)
(ভলপোনি, ন্যানো, এ্যান্ড্রোজিনো এবং ক্যাসট্রোনের প্রবেশ)।
ভলপোনিঃ আমার মনে হচ্ছে, মসকা ফিরতে খুব বেশী সময় নিচ্ছে। তোমার খেলা দেখাও আর আমার ক্লান্তিকর সময়কে উপভোগ্য করে তোলো।
ন্যানোঃ বামন, ভাঁড় এবং খোজা-আমরা সবাই এখানে উপস্থিত। একটি প্রশ্ন যেটি এখন উঠেছে সেটি হলো এই যে, আমাদের তিনজনের মধ্যে, যারা কিনা একজন ধনী ব্যক্তির প্রিয়ভাজন, কে তাকে সন্তুষ্ট করার ক্ষেত্রে প্রথম স্থানটি দাবী করতে পারে।
ক্যাসট্রোনঃ আমি আমার জন্য সেই স্থানটি দাবী করতে পারি।
এ্যাণ্ড্রোজিনোঃ আর আমি ভাঁড়ও তাই করছি।
নানোঃ তোমার দাবীগুলো নিশ্চয়ই বোকামির লক্ষণ। তোমাদের দুজনকেই শিক্ষা দিতে দাও। প্রথম স্থানটি আমার, অর্থাৎ বামনের। একজন বামন হলো খাটো এবং বুদ্ধিমান, আর এর খর্বত্বের অনুপাতে সব কিছুই সুন্দর; তা না হলে মানুষ কেন, আমার আকৃতির কোনো প্রাণীকে দেখে সঙ্গে সঙ্গে তাকে বলে, সে হচ্ছে একটি ছোট্ট সুন্দর উলুক এবং মহান ব্যক্তিদের কাজের চমৎকার অনুকরণ ছাড়া অন্য কোনো কারণে বামনকে সুন্দর উল্লুক বলা হয়, আর অদ্ভুতভাবে তার এই অনুকরণ? তারপর চটপটে এই শরীরের জন্য তোমাদের ভারী শরীরে যা দরকার হয়, তার অর্ধেক কাপড় দরকার হয় আমার আর অর্ধেক খাবার দরকার হয়। এটা স্বীকার করো যে একজন ভাড়ের মুখ হচ্ছে হাসির উৎস, যদিও তার বুদ্ধি সব সময়েই গুরুত্বের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকে, এবং যদিও তার মুখটি তার জীবন ধারণের উৎস, এটা দুঃখজনক যে এরকম একটি হাস্যকর মুখের কাছে তার শরীরটির ঋণী থাকা উচিত এর প্রাণ ধারণ করার জন্যে। (দরজায় করাঘাতের শব্দ শোনা গেল ।) ।
ভলপোনিঃ কে ওখানে? আমার পীড়া-শয্যায় আমাকে যেতে দাও। তোমরা সবাই চলে যাও। দেখো, ন্যানো, কে ওখানে দেখো। কিন্তু আমার টুপিটা দাও প্রথমে। যাও এবং দেখো।
(ন্যানো, এ্যান্ড্রোজিনো এবং ক্যাসট্রোনের প্রস্থান)
ভলপোনিঃ এখন, কিউপিড, মসকাকে ফেরত পাঠাও আর সে যেন সুসংবাদ বহন করে আনে।
ন্যানোঃ (দরজায়) তিনি হচ্ছেন সুন্দরী ভদ্রমহিলা।
ভলপোনিঃ তিনি কি লেডি উড-বী?
ন্যানোঃ জ্বী, তিনিই।
ভলপোনিঃ এখন তিনি আমাকে মানসিক যন্ত্রণা দেবেন। তাকে এ ঘরে নিয়ে এসো, কারণ তিনি অবশ্যই ঢুকবেন অথবা তিনি চিরকাল ওখানেই অবস্থান করবেন। না, তাড়াতাড়ি করো। (তার পীড়া শয্যায় অবস্থান নিয়ে)। আমি আশা করছি যে তার দর্শনের যন্ত্রণাটা শেষ হোক। আমি ভীত হচ্ছি আরেকটি ভয়ানক সম্ভাবনার কথা চিন্তা করেও যে, এই মহিলার প্রতি আমার যে বিরাগ সেটা অন্য মহিলাটির প্রতি আমার আকাঙ্ক্ষাকে ম্লান করে দেবে। আমি ভাবছি যদি এই মহিলা এখন প্রস্থান করতেন এবং আমাকে বিরক্ত না করতেন। প্রভু, আমার ভাগ্যে যে ভোগান্তি আছে তা ভাবতেই আমার ভয় হচ্ছে।

তৃতীয় অঙ্ক চতুর্থ দৃশ্য
(লেডি, ভলপোনি, ন্যানো, পরিচারিকাদ্বয়ের প্রবেশ)
লেডি উড-বীঃ (ন্যানোকে)-ধন্যবাদ, প্রিয় স্যার। আমি অনুরোধ করছি, আপনার পৃষ্ঠপোষককে জানান যে, আমি এসেছি। এই গলাবন্ধনী খুব বেশি নীচে নামানো হয়নি যার ফলে আমার গলা দেখা যাবে। আমি আপনাকে বিরক্ত করছি; স্যার, আমার একজন পরিচারিকাকে আমার কাছে আসতে বলার জন্য আমি অনুরোধ করছি আপনাকে। নিশ্চয়ই, আজ আমি ভালো পোশাকেই আছি। এটা কোনো ব্যাপার নয়। আমি যথেষ্ট ভালো পোষাক পরেছি। শুধু দেখুন, এইসব গোমড়ামুখো পরিচারিকারা কেমন খারাপ ভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করে।
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) তার অন্তহীন কথার বান আমার কর্ণকুহর ভেদ করে আমার শরীরে ঢুকছে আর আমি জ্বরবোধ করছি। আমার মনে হচ্ছে যদি আমার কোনো যাদুটোনা জানা থাকত, তাহলে তা দিয়ে আমি একে ভয় দেখিয়ে সরিয়ে দিতে পারতাম।
লেডি উড-বীঃ (পরিচারিকাকে) কাছে এসো। এই চূর্ণকুন্তল কি ঠিক জায়গায় আছে, আর এটার অবস্থা কি? কেন এই চূর্ণকুন্তলটি বাকী অংশ থেকে ওপরে উঠে আছে? তুমি কি তোমার চোখ এখনো ধোওনি অথবা তোমার মাথায় কি তোমার চোখ নেই? অন্য দাসীটি কোথায়? ডাকো তাকে।
ন্যানোঃ এখন সেন্ট মার্ক এর কসম, ঈশ্বর আমাদের রক্ষা করুন। যে কোনো মুহূর্তে তিনি তার পরিচারিকাদের প্রহার করতে পারেন, কারণ তার নাসিকার পাটা রক্তিম বর্ণ ধারণ করেছে।
লেডি উড-বীঃ আমি মিনতি করছি, আমার কেশবিন্যাস ঠিকমতো লক্ষ্য করো। সব কিছু ঠিকঠাকমতো আছে তো, নাকি নেই?
পরিচারিকাঃ এক জায়গায় একটা চুলের কাঠি বেরিয়ে আছে সত্যিই।
লেডি উড-বীঃ সত্যিই কি এটি বেরিয়ে আছে? আর কোথায় ছিল তোমার চোখ দুটো যখন এটা বেরিয়েছিল, সত্যিই? কেন এখন মুরগীর মতো চোখ করে তাকিয়ে আছে? (অন্য পরিচারিকাকে) আর তুমিও। দয়া করে দুজনে এসো আর এটাকে ঠিক করো। এখন, আমি দিনের আলোর নামে শপথ করে বলছি যে আমি মনে করি তোমরা মোটেও লজ্জিত হচ্ছো না । আমি তোমাদের এসব ব্যাপারগুলো প্রায়ই শিক্ষা দিয়ে থাকি। সাজসজ্জার শিল্পের সমস্ত রীতি-নীতিই আমি পড়েছি, সমস্ত মূলনীতিগুলো পরীক্ষা করে দেখেছি, কোনটা খাটে আর কোনটা খাটে না, তা নিয়ে আলোচনা করেছি, কোনটা মহিমা দেয় তা নিয়েও। সাজসজ্জা শিল্পের অনেক প্রদর্শনীতে উপস্থিত থাকার জন্য আমি তোমাদের বলছি।
ন্যানোঃ (জনান্তিকে) আপনার সম্মানের চেয়ে এইসব ব্যাপারেই আপনি বেশী সচেতন থাকেন।
লেডি উড-বীঃ আমি তোমাদের বলছি যে এসব বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করা তোমাদের জন্য কী ভীষণ মূল্যবান সম্পদই না হয়ে উঠবে। যখন তোমরা ইংল্যান্ডে ফিরে যাবে, তখন কেবলমাত্র এই জ্ঞানই তোমাদেরকে মহান স্বামী পেতে সাহায্য করবে, আর এখনও এ ধরনের জ্ঞানকে তোমরা এভাবে অবহেলা করছো। তার ওপর, ইতালীয় লোকজন কতটা সূক্ষ্ম এবং নিখুঁত তা তোমরা দেখছো। তারা কি আমার সম্পর্কে এটা বলবে না যে ইংরেজ মহিলাটি নিজেকে সুসজ্জিত করতে জানে না। আমাদের দেশের বিরুদ্ধে কী জঘন্য অভিযোগই না হবে সেটি। বেশ, এখন যাও, নিজের কাজ করো, আর আমার জন্য পাশের ঘরে অপেক্ষা করো। এই প্রসাধনও বেশ কর্কশ, কিন্তু এটা কোনো ব্যাপার নয়। (ন্যানোকে) প্রিয় স্যার, আপনি কি আমার পরিচারিকাদেরকে আনন্দে রাখতে পারবেন?
ভলপোনিঃ চেঁচামেচির ঝড় আমাকে আক্রমণ করছে।
লেডি উড-বীঃ আমার ভলপোনি কেমন বোধ করছেন?
ভলপোনিঃ শব্দের জন্য আমি বিরক্তিবোধ করছি, আমি ঘুমোতে পারছি না। আমি স্বপ্নে দেখেছি যে একটি অদ্ভুত, ভয়ানক প্রাণী এই মাত্র আমার বাড়ীতে প্রবেশ করেছে এবং তার নিঃশ্বাসের দ্বারা এক ভয়াবহ ঝড়ের সৃষ্টি হয়েছে, আমার ছাদ ফাটিয়ে দিয়েছে।
লেডি উড-বীঃ বিশ্বাস করুন, আর আমি সবচেয়ে ভয়ংকর একটি স্বপ্ন দেখেছিলাম, শুধুন একবার যদি সেটা আমি মনে করতে পারতাম-
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) আমার ভাগ্যকে অভিশাপ। আমাকে যন্ত্রণা দেবার জন্য আমি নিজেই তাকে সুযোগ করে দিলাম, এখন তিনি আমাকে তার স্বপ্ন বর্ণনা করে শোনাবেন।
লেডি উড-বীঃ আমার স্বপ্নে এমনটা ছিল, যতদুর মনে পড়ে, সোনালী এক প্রাণী শান্ত এবং শোভন।
ভলপোনিঃ ওহ যদি আমার জন্য আপনার কিছুমাত্র স্নেহ থাকে, স্বপ্ন সম্পর্কে কথা বলা বন্ধ করুন। আমার হাঁপানীর টান হচ্ছে-এবং যে কোন স্বপ্নের কথা শুনতে আমার অসহ্য লাগছে। আপনি আমাকে স্পর্শ করতে পারেন এবং অনুভব করতে পারেন আমি এখনো কেমন করে কাঁপছি।
লেডি উড-বীঃ হায়, ভালো মানুষ। আপনি হৃদয় যন্ত্রণায় ভুগছেন। একটি বীজ মুক্তো দ্রবীভূত হয়ে কিছু রসায়নে সিক্ত করলে সেটা আপনার জন্য এখন উপকারী হতো, আপেলের রস, সোনার টিংচার আর প্রবাল, জামিরের দানা, এলে ক্যামপেইনের শেকড়, হরীতকী-এসব কিছু একসঙ্গে সেদ্ধ করে---------
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) হায় । ফড়িং তার একটি পাখা দিয়ে আমাকে ধরেছে, এবং এখন সে কিচির-মিচির করে জোরে চীৎকার করবে।
লেডি উড-বীঃ আপনার অম্বর সেবন করা উচিত। এবং আপনার বাড়িতে অবশ্যই মাসকাডেল আছে।
ভলপোনিঃ আপনি কি মাসকাডেলের পানীয় পান করবেন, এবং তারপর প্রস্থান করবেন?
লেডি উড-বীঃ না, তেমন ভয় করবেন না। আমি মনে করি না যে আমরা কিছু ইংলিশ জাফরান পাবো, যদিও শুধুমাত্র অর্ধেক ড্রাম প্রয়োজন হবে। তারও পর, আমাদের প্রয়োজন ষোলটি লবঙ্গ, অল্প কস্তুরী, শুকনো পুদিনা, গুল্ম বাগলস আর বার্লি।
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) তিনি আবার শুরু করেছেন। আগে আমি ভান করেছিলাম যে আমি অসুখে ভুগেছিলাম, এখন আমি সত্যি সত্যিই অসুখে ভুগছি।।
লেডি উড-বীঃ এবং এগুলো প্রকৃত টকটকে লাল বস্ত্রখণ্ডের ওপর রেখে প্রয়োগ করার পর-
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) শব্দের আরেকটি বন্যা। একটি সত্যিকারের তীব্র স্রোত।
লেডি উড-বীঃ স্যার, আমি কি আপনার জন্য পুলটিস তৈরী করবো?
ভলপোনিঃ না, না, নাঃ আমি বেশ ভালো বোধ করছি। আর কোনো ঔষধের কথা বলার কোনো প্রয়োজন নেই।
লেডি উড-বীঃ ঔষধবিদ্যা সম্পর্কে আমি কিছুটা বিদ্যা অর্জন করেছি; কিন্তু এখন আমি আমার পুরো সময়টা সঙ্গীতের পেছনে ব্যয় করছি। কেবল বিকেলে যে সময়টায় আমি ছবি আঁকি সেই এক ঘণ্টা বা দুই ঘণ্টা বাদে। আমি মনে করি যে একজন মহিলার অবশ্যই সব কিছুর সঙ্গে পরিচিত হওয়া উচিত-সাহিত্য এবং শিল্প কথোপকথনে পারদর্শী হওয়া, লেখা, ছবি আঁকা। কিন্তু প্রধানতঃ যেমন প্লেটো বলতেন, আমিও মনে করি, সঙ্গীত হচ্ছে প্রকৃত আনন্দের উৎস, যখন সেখানে মুখ, কণ্ঠস্বর এবং মহিলার পোশাকের মধ্যে সুসঙ্গতি থাকে। এই সঙ্গতি নিঃসন্দেহে নারী জাতির সর্বোচ্চ আকর্ষণ।
ভলপোনিঃ কবি (সোফোক্লিস) প্লেটোর মতোই প্রাচীন এবং সমান জ্ঞানের অধিকারী, এই মত প্রকাশ করেছেন যে মহিলাদের সবচেয়ে বড়ো মাধুর্য হল নিশ্চুপতা।
লেডি উড-বীঃ আমার মনে হচ্ছেএই সব কবিদের দুতিন জনের লেখা আমার সঙ্গে আছে।
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) সূর্য এবং সমুদ্র এই দুই-ই শান্ত হয়ে আসবে কিন্তু তার জিহ্বা নয় যা কিনা চিরকালই থাকবে। কোনো বিষয়ই তার জিহ্বা থেকে নিষ্কৃতি পাবে না।
লেডি উড-বীঃ এখানে মেষপালক সম্বন্ধীয় একটি নাটক আছে, গুয়ারিনির প্যাস্টর ফিদো।
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) আমাকে এখন এক দুর্দমনীয় নৈঃশব্দ্য বজায় রাখতে হবে; সেটাই হবে এখন আমার জন্য সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ।
লেডি উড-বীঃ আমাদের সকল ইংরেজ লেখকরা, আমি বলতে চাইছি যাদের ইতালীয় ভাষায় বেশ ভাল দক্ষতা ছিল, তারা ভাবতেন যে এই লেখকের কাছ থেকে অনেক কিছুই গ্রহণ করা যায়, যেমনটা তারা মনটেইনের কাছ থেকে নিয়েছেন। তার লেখা এমন আধুনিক এবং সহজ শৈলীসম্পন্ন যে এটা সভাসদদের কানের কাছে ওজর এবং আবেদন সৃষ্টি করার পক্ষে সহায়তা করে। আপনাদের পেত্রার্ক খুবই আবেগবিহ্বল, যদিও তিনি সেই সময়ে যখন সনেট লেখার প্রচলন ছিল, তার সনেটে তার ব্যক্তিগত জীবনের অনেক কিছুই এনেছেন। দান্তে বোঝা খুব কঠিন, আর খুব কম সংখ্যক পাঠকই তাকে বুঝতে পারে। কিন্তু বেপরোয়া বুদ্ধির জন্য, এয়ারটাইনের দিকেই একজনের চোখ ফেরানো উচিত, শুধুমাত্র তার চিত্রগুলোই কিছুটা অশোভন। মনে হচ্ছে আপনি আমার কথা শুনছেন না।
ভলপোনিঃ হায়, আমার মন বিক্ষিপ্ত হচ্ছে।
লেডি উড-বীঃ কেন, এরকম ক্ষেত্রে এর নিরাময় আমাদের কাছেই রয়েছে। আমাদের দর্শনের ব্যবহার করা উচিত।
ভলপোনিঃ ওহ। কী দুর্ভাগা আমি।।
লেডি উড-বীঃ আর যখন আমরা দেখি যে আমাদের আবেগ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে, আমরা যুক্তি দ্বারা অথবা বশে আনার জন্য অন্য কোনো বিপজ্জনক মানসিক অবস্থায় পরিচালিত করবো যেমনটা গণপরিষদে হয়ে থাকে, যেখানে বিচারককে কোনো কিছু ছাপিয়ে যেতে পারে না এবং বোধকে অন্ধকারাচ্ছন্ন করে বিষয়বস্তুর ওপর বেশীক্ষণ আলোচনা করার চেয়ে বরং যেন অবসাদে ভুবতে থাকে। এইসব আবেগগুলোকে শরীরের বিভিন্ন অংশ থেকে বের করে আনার জন্য, যাকে আমরা মন বলি, অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে ব্যাহত করে যেসব অসম্পূর্ণতা, সেসবকে পরিত্যাগ করে এবং যেমনটি প্লেটো বলেছেন, আমাদের জ্ঞানকে ধ্বংস করে ।
ভলপোনিঃ (জনান্তিকে) সহিষ্ণুতার শক্তি আমার ভিতরে টিকে থাকুক।
লেডি উড-বীঃ আমি অবশ্যই প্রায়ই আপনাকে দেখতে আসবো, এবং আপনার সমস্ত অসুখের নিরাময় করবো, হাসুন এবং আনন্দ করুন।
ভলাপোনিঃ (জনাস্তিকে) আমার অভিভাবক তার হাত থেকে আমাকে রক্ষা করুন।
লেডি উড-বীঃ সমস্ত পৃথিবীতে কেবলমাত্র একজন ব্যক্তিই রয়েছেন যাকে আমি সহানুভুতি দেখাতে পারি। এই ব্যক্তি এক কৌচে শুয়ে থাকতেন তিন-চার ঘন্টা কেবলমাত্র আমার কথা একনাগাড়ে শোনার জন্য, এবং কখনো কখনো তিনি এতটাই বাকরুদ্ধ হয়ে যেতেন যে আমার কথার অসঙ্গতিপূর্ণ উত্তর দিতেন ঠিক আপনার মতই। নিঃসন্দেহে আপনি তারই মতো। আমি কথা বলবো, যদি এটা আপনাকে ঘুমোত সাহায্য করে, স্যার, আমি আপনাকে শোনাবো কিভাবে সেই ব্যক্তি আর আমি একসঙ্গে সময় কাটাতাম আর কিভাবে ছয় বছর ধরে আমরা পরস্পরকে ভালোবেসেছিলাম।
ভলাপোনিঃ ও ওহ। ওহ। ওহ। কিভাবে আমি তার কথা থেকে বাঁচতে পারি।
লেডি উড-বীঃ  কারণ সেই ব্যক্তি আর আমি অসীম অস্তিত্ব একসঙ্গে উপভোগ করতাম, আর আমরা একসঙ্গে বেড়ে উঠেছিলাম।
ভলাপোনিঃ  (জনান্তিকে) কোনো শক্তি, কোনো নিয়তি, কোনো সৌভাগ্য আমাকে রক্ষা করুক তার অন্তহীন বাক্যবাণ থেকে।

তৃতীয় অঞ্চ পঞ্চম দৃশ্য
(মসকার প্রবেশ)
মসকাঃ ঈশ্বর আপনাকে রক্ষা করুন, মহোদয়া।
লেডি উড-বীঃ কেমন আছেন আপনি, প্রিয় ভদ্রে।
ভলপোনিঃ ওহ। এই মহিলার সাহচর্য থেকে আমাকে রক্ষা করো যে আমার জন্য একটি যন্ত্রণাস্বরূপ। তাড়াতাড়ি করো। এই মহিলার একটি চিরস্থায়ী জিহ্বা রয়েছে। মহামারীর সময়ের মৃত্যুঘন্টাও এতো শব্দ করে না, তারা বিরতি ছাড়া বাজে না, তার বক্তৃতায় কোনো বিরাম নেই। তিনি যেমন আওয়াজ করতে পারেন, মোরগ লড়াইয়েও লোকজন এতো আওয়াজ করে না। স্নানঘর যেমন গরম পানিতে বাষ্পে পূর্ণ হয়ে ওঠে তেমনি তার অন্তহীন কথার বাষ্পে আমার পুরো বাড়িটাই একটু আগে পূর্ণ হয়ে উঠেছিলো । এমনকি তার কণ্ঠ ছাপিয়ে একজন আইনজীবীর কণ্ঠও শোনা যেত না, তার জিহ্বা থেকে শব্দের এমনই তীব্র স্রোত প্রবাহিত হয় যে অন্য কোনো মহিলাও তার কথার সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকতে পারবে নরকের দোহাই, তাকে এখান থেকে বের করে নিয়ে যাও।
মসকাঃ তিনি আপনাকে তার উপহার দিয়েছেন?
ভলপোনিঃ ওহ। আমি উপহার নিয়ে চিন্তিত নই। যে কোনো মূল্যে আমি তার অনুপস্থিতি কিনতে চাই। তার হাত থেকে মুক্তি পাবার জন্য আমি যে কোনো ক্ষতি স্বীকার করতে রাজী আছি।
মসকাঃ ভদ্রমহোদয়া-
লেডি উড-বীঃ আমি আপনার পৃষ্ঠপোষকের জন্য সামান্য উপহার এনেছি। এখানে একটি টুপি আছে যা আমি নিজের হাতে তৈরী করেছি।
মসকাঃ তা বেশ। আপনাকে বলতে গিয়েছিলাম যে আপনার স্বামীকে আমি এমন এক জায়গায় দেখেছি যে আপনি চিন্তাও করতে পারছেন না।
লেডি উড-বীঃ তাকে কোথায় দেখেছেন?
মসকাঃ তাকে আমি যে জায়গায় দেখেছি, আপনি যদি দেরী না করে সেখানে যান তাহলে তাকে এখনো আপনি ধরতে পারেন। ভেনিসের সবচেয়ে কুশলী বারবণিতার সাথে তাকে আমি গণ্ডোলায় ভেসে যেতে দেখেছি।
লেডি উড-বীঃ সত্যিই কি তাই?
মসকাঃ তার পিছু ধাওয়া করুন আর তাহলে আপনি আপনার নিজের চোখে দেখে, তা বিশ্বাস করবেন। আমার পৃষ্ঠপোষককে আপনার উপহার পৌছে দেবার জন্য এখন আপনি এ স্থান ত্যাগ করুন। (লেডি পলিটিক উড-বীর প্রস্থান)
মসকাঃ আমি জানতাম এই চালাকিটা সফল হবে, কারণ যারা নিজেদেরকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেয় তারা সব সময়েই সবচেয়ে বেশী ঈর্ষাকাতর হয়।
ভলপোনিঃ মসকা। অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে তোমাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি দ্রুত বুদ্ধি বের করার জন্য আর আমাকে বাঁচাতে আসার জন্য। এখন আমার আশা সম্পর্কে তোমার কি বলার আছে? (লেডি উড-বীর প্রবেশ)
লেডি উড-বীঃ কিন্তু আপনি কি শুনতে পাচ্ছেন, স্যার?
ভলপোনিঃ আবার তিনি এখানে। আমার ভয় হচ্ছে আমি বোধহয় মূর্ছা যাবো।
লেডী উড-বীঃ কোনদিকে তারা দুজনে নৌকা বাইছিল?
মসকাঃ স্টক এক্সচেঞ্জের দিকে।
লেডি উড-বীঃ আমি অনুরোধ করছি, আপনাদের বামনকে আমার সাথে দিন।
মসকাঃ বেশ তাকে সঙ্গে নিন। (লেডি উড-বীর প্রস্থান)
মসকাঃ স্যার, আপনার আশা সুখী মুকুলের মতো। তারা সুন্দর এবং সময়ে তারা যে পূর্ণতা পাবে, তার আশা বহন করে, যদি আপনি কেবল তাদের পরিস্ফুটনের জন্য অপেক্ষা করেন। আপনার পীড়া-শয্যায় আপনি অবস্থান করুন। করবাসসিও খুব শীঘ্রই তার উইল নিয়ে আসবেন। যখন তিনি চলে যাবেন, আপনাকে আমি আরো তথ্য দেবো।।
ভলপোনিঃ আমার খিদে এবং আমার আনন্দ ফিরে আসছে। আমি আবার বেঁচে উঠেছি। আমি সেই রকম বাধাহীন জুয়াড়ির মতো যে প্রিমেরো খেলেছিল, যে তার বাজির হার বাড়াতে প্রলুব্ধ হয়েছিল আর যখন হাতগুলো দেখানো হয়েছিলো তখন জয়ের আশায় একটি কার্ড বিনিময় করেছিলো।

তৃতীয় অঙ্ক ষষ্ঠ দৃশ্য
(মসকা এবং বোনারিওর প্রবেশ)
মসকাঃ স্যার, এখানে আপনি লুকিয়ে থাকুন, তাহলে সবকিছুই আপনি শুনতে পারবেন। কিন্তু আমি আপনাকে অনুরোধ করছি, ধৈর্য ধরুন, স্যার, (দরজায় করাঘাত শোনা গেল) উনি আপনার বাবা যিনি করাঘাত করেছেন। আমি এখন আপনার কাছ থেকে চলে যাচ্ছি।
বোনারিওঃ তাই করো। এখনও আমার মন বিশ্বাস করতে পারছে না যে তুমি যা বলছো তা সত্যি হতে পারে। (সে নিজেকে লুকিয়ে ফেললো)

No comments:

Post a Comment

Trending