Tuesday, July 9, 2019

The Duchess of Malfi - John Webster - Bangla Translation - Act - 4 -Scene - 2

The Duchess of Malfi - John Webster - Bangla Translation - Act - 4 -Scene - 2

First Part - Duchess of Malfi Bangla Translation


Previous Part

The Duchess of Malfi - John Webster - Bangla Translation - Act - 4 -Scene - 2
দি ডাচেস অভ মালফি

চতুর্থ অঙ্ক - দ্বিতীয় দৃশ্য - স্থান ডাচেসের প্রাসাদের অন্য একটি কক্ষ।
[ডাচেস ও ক্যারিওলার প্রবেশ]
ডাচেসঃ ঐ বীভৎস শব্দটা কিসের?
ক্যারিওলাঃ ভদ্রমহোদয়া, ওটা উন্মাদ ব্যক্তিদের এক বিশৃঙ্খল সমাবেশ। আপনার জালিম ভ্রাতা ওদেরকে এনে আপনার বাসস্থানের নিকটে জায়গা দিয়েছে। আমি মনে করি ইতঃপূর্বে ক্ষমতার এহেন অপব্যবহার কেউ করেনি।
ডাচেসঃ আমি তাকে সত্যিই ধন্যবাদ দিচ্ছি। কেবল পাগলদের কলরব আর নির্বুদ্ধিতাই আমার মাথা ঠিক রাখতে পারবে। অপরপক্ষে নীরবতা ও যৌক্তিক আচরণ আমাকে বদ্ধ উন্মাদ বানাবে। বসো, আমাকে কোন নিরানন্দ, বিয়োগান্তক কাহিনী শোনাও।
ক্যারিওলাঃ কিন্তু তাতে আপনার বিষন্নতা তো আরো বৃদ্ধি পাবে।
ডাচেসঃ তুমি ভুল বুঝেছ। আপন দুঃখের তুলনায় গভীরতর দুঃখের কাহিনী শুনলে আমার হৃদয়ের ভার কমে যাবে। আচ্ছা, এটা কি একটা কয়েদখানা?
ক্যারিওলাঃ হা, কিন্তু এই বন্দীদশা থেকে মুক্তি লাভ করা না পর্যন্ত আপনাকে বাঁচতেই হবে।
ডাচেসঃ তুমি একটা নির্বোধ। রবিন, রেডব্রেস্ট ও নাইটিংগেইল জাতীয় পাখীরা খাঁচাবন্দী অবস্থায় বেশী দিন বাঁচে না।
ক্যারিওলাঃ ম্যাডাম, আপনি এসব কি ভাবছেন? দয়া করে চোখ মুছুন।
ডাচেসঃ আমি কিছুই ভাবছি না। যখনই আমি এসব কথা তন্ময় হয়ে ভাবি, আমি ঘুমাতে থাকি।
ক্যারিওলাঃ আপনি কি পাগলের মতো চোখ খোলা রেখে ঘুমান?
ডাচেসঃ তুমি কি মনে কর পরলোকেও আমরা পরস্পরকে চিনতে পারব?
ক্যারিওলাঃ হ্যা, এ নিয়ে কোন প্রশ্নই উঠতে পারে না।
ডাচেসঃ আহা, যদি সম্ভব হতো তাহলে আমরা হয়তো দুদিন মৃত ব্যক্তিদের সাথে কথোপকথন করতাম। আমি নিশ্চিত তাদের নিকট থেকে আমি এমন কিছু শিখতাম যা আমি এই দুনিয়ায় কোনদিনই জানতে পারব না। তোমাকে একটা অলৌকিক ঘটনার কথা বলব। দুঃখ-কষ্টে আমি এখনও পাগল হয়ে যাই নি। আমার মনে হয়, আমার মাথার উপরের আকাশটি গলিত পিতলের তৈরী আর মাটিটা জ্বলন্ত গন্ধকের তৈরী তথাপি আমি পাগল হইনি। গ্যালিতে কর্মরত তামাটে গাত্রবর্ণের ক্রীতদাসের কাছে দাঁড় যেমন পরিচিত বস্তু তেমনই দুঃখ-দুর্দশা আমার পরিচিত। প্রাকৃতিক নিয়মই আমায় ক্রমাগত কষ্ট করাচ্ছে এবং এটা রীতিতে পরিণত হওয়ায় ঐ বেদনা সহনীয় হয়ে উঠেছে। আচ্ছা, আমাকে এখন কার মত দেখাচ্ছে?
ক্যারিওলাঃ গ্যালারীতে আপনার যে ছবি ঝুলানো রয়েছে, আপনাকে ঠিক সেরকমই দেখাচ্ছে। বাইরে থেকে মনে হচ্ছে আপনি প্রাণোচ্ছলতায় ভরপুর কিন্তু প্রকৃতপক্ষে আপনার মাঝে সজীবতা নেই। আপনাকে তুলনা করা চলে এমন কোন পবিত্র স্মৃতিসৌধের সাথে যার ধ্বংসাবশেষ পর্যন্ত মনে করুণার উদ্রেক করে।
ডাচেসঃ তুমি খুবই যুক্তিসঙ্গত কথা বলেছ। ভাগ্য যেন কেবল আমার করুণ পরিণতি দেখবার জন্যই দৃষ্টিশক্তি লাভ করেছেন। এখন আবার কি ঘটল? ও কিসের শব্দ?
[এক ভৃত্যের প্রবেশ]
ভুত্য আপনাকে বলতে এলাম যে আপনার ভাই আপনাকে কিছুটা আনন্দ দিতে চান। একবার পোপ গভীর বিষন্নতায় আক্রান্ত হন। তখন এক বিখ্যাত চিকিৎসক তাঁর সম্মুখে কয়েক ধরনের উন্মাদকে হাজির করেন। তাদের বল্গাহীন অভিরুচি এতই পরিবর্তনশীল ও আনন্দময় ছিল যে পোপ হাসতে বাধ্য হন। এইভাবে তাঁর বিষন্নতা দূর হয়ে যায়। ডিউক ঐ একই প্রকার চিকিৎসা পদ্ধতি আপনার উপর প্রয়োগ করতে চাইছেন।
ডাচেসঃ ওদের ভিতরে ঢুকতে দাও।
ভুত্যঐ দলে রয়েছে জনৈক পাগলা উকিল, গ্রামাঞ্চলে কর্মরত একজন পুরোহিত, এবং ঈর্ষাকাতর হয়ে বুদ্ধি খোয়ানো এক ডাক্তাররো আছে এক জ্যোতিষী। সে নিজের বইতে উল্লেখ করেছিল যে কোন এক মাসের এক নির্দিষ্ট দিনে দুনিয়া ধ্বংস হয়ে যাবে। ভবিষ্যদ্বাণী ব্যর্থ হওয়ায় তার মাথা খারাপ হয়ে যায়এক ইংরেজ দর্জিও রয়েছে। নতুন নতুন ফ্যাশন নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে তার মাথায় গণ্ডগোল দেখা দিয়েছিল। ভদ্রলোকদের অভ্যর্থনাকারী এক ব্যক্তি ঐ দলে আছে। গৃহকত্রীর নিকট থেকে নানা ধরনের সম্বোধন ও কুশলসূচক শব্দ শিখে কিভাবে তা মনে রাখবে সেই দুশ্চিন্তায় সে অপ্রকৃতিস্থ হয়ে পড়েছে। একজন কৃষকও উন্মাদদের মাঝে আছে। সে ছিল অসাধু শস্য ব্যবসায়ী। শস্যদানা পরিবহনে বাধা দেওয়ায় সে পাগল হয়ে গিয়েছে। এদের সাথে যদি এক উন্মাদ দালালকে ছেড়ে দেওয়া যায় তাহলে আপনার মনে হবে দলটিতে শয়তানের অনুপ্রবেশ ঘটেছে।
ডাচেসঃ ক্যারিওলা, বসো তোমাদের যখন খুশী ঐ পাগলগুলোকে এনে ছেড়ে দিও। তোমাদের যাবতীয় নিপীড়ন সহ্য করার জন্যই তো আমি বন্দী অবস্থায় আছি।
[উন্মাদদের প্রবেশ]
[এক পাগল এই গানটি গাইবে-সেই সাথে বিষাদের সুর বাজবে]
এসো, তারস্বরে গাই কোন দুঃখের গান,
কোন প্রাণঘাতী, টানা, আর্তনাদ
ঠিক যেন পশু কিংবা অলক্ষুণে পাখীর
কণ্ঠনিঃসৃত ভয়াল নিদাদ
কাক, পেঁচা, ষাঁড় ও ভালুকের মতই
চেঁচিয়ে বলি আপন আপন সংলাপ,
যতক্ষণ না কানে তালা লাগায় আর
বুকে জ্বালা ধরায় এই বিরক্তিকর প্রলাপ।
অবশেষে যখন ফুরাবে আমাদের দম।
দেহগুলো পবিত্র ভাব ধারণ করায়,
রাজহাঁসের মতই গাইব মরণবরণ গান
প্রেম ও শান্তিতে পড়ব ঢলে মৃত্যুশয্যায়।
প্রথম উন্মাদঃ শেষ বিচারের দিন কি এখনও আসেনি দূরবীন দিয়ে আমি দিনটাকে কাছে টেনে আনব অথবা এমন একটা আতশ কাচ বানাব যা দিয়ে এক মুহূর্তে দুনিয়া জুড়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়া যায় আমি ঘুমাতে পারিনা; আমার বালিশটা শজারুর কাঁটায় ঠাসা
দ্বিতীয়ঃ নরক একটা কাঁচ ঘর মাত্র; সেখানে শয়তানরা অবিরত লোহার নলে রেখে রমণীদের আত্মাগুলোকে স্ফীত করছে সেখানের আগুন কখনও নেভে না
প্রথমঃ প্রাচীন পরিবারগুলো ইতিহাস সম্পর্কে আমার সম্যক জ্ঞান আছে
দ্বিতীয়ঃ সত্যি কি তাই?
প্রথমঃ তুমি তো অনেক পুরানো ভদ্রলোক সিলমোহর হিসাবে উডকক পাখীর মাথা দেওয়া উচিত যা থেকে মগজ বের করে নেওয়া হয়েছে
তৃতীয়ঃ বাইবেলের গ্রীক অনুবাদ এখন অবিশ্বাসীদের জিনিস হয়ে দাঁড়িয়েছে কেবল জেনেভা থেকে প্রকাশিত সংস্করণই আমাদের পরিত্রাণ করতে পারে
প্রথমঃ আসুন, জনাব আমি আপনার কাছে আইনের ব্যাখ্যা দিব
দ্বিতীয়ঃ আপনি বরং কোন ক্ষয়কারী তরল প্রয়োগ করুন; আইন তো অস্থি-মজ্জা পর্যন্ত গ্রাস করে ফেলবে
তৃতীয়ঃ শুধু প্রবৃত্তির চাহিদা মিটানোর জন্য যে মদ্যপান করে সে অভিশপ্ত
চতুর্থঃ আমার যাদুর আয়নাটা যদি এখানে থাকত তাহলে এমন এক দৃশ্য দেখাতাম যে এখানের সব মহিলা আমাকে পাগল ডাক্তার বলে অভিহিত করত
প্রথমঃ তার কাজ কি? সে কি দড়ি পাকায়?
দ্বিতীয়ঃ না, না, না সে একটা পাজী সে সশব্দে শ্বাস নেয় কবর দেখানোর সময় সে মহিলাদের স্কার্টের পকেটে হাত ঢুকায়
তৃতীয়ঃ যে গাড়ী চড়ে আমার স্ত্রী আজ ভোর তিনটায় মাস্ক থেকে ফিরেছে সেটার উপর অভিশাপ নেমে আসুক ওটায় একটা বড় পালকের বিছানা ছিল
চতুর্থঃ আমি চল্লিশ বার শয়তানের নখ ছেটেছি, সেগুলোকে দাঁড়কাকের ডিমে ভরে রোস্ট করেছি এবং তা দিয়ে রোগ সারিয়েছি
তৃতীয়ঃ আমাকে তিনশ স্ত্রী বাদুর এনে দিন যাতে আমি নিদ্রা উদ্রেককারী পানীয় তৈরী করতে পারি
চতুর্থঃ আমি সাবানের সাহায্যে একটা কোষ্ঠকাঠিন্যের ওষুধ তৈরী করেছি এটা আমার সেরা কীর্তি কলেজের সবাই হয়তো এজন্য আমার প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে যেতে পারে
[এবারে আট পাগল যথোপযুক্ত সঙ্গীতের সাথে নাচতে শুরু করবে নাচ শেষ হবার পর, বৃদ্ধ লোকের ছদ্মবেশে বসোলা প্রবেশ করবে]
ডাচেসঃ এই লোকটাও কি উন্মাদ?
ভৃত্যঃ অনুগ্রহ করে তাকেই প্রশ্নটা করুন আমি আপনার থেকে বিদায় নিচ্ছি
[ভৃত্য ও উন্মাদ ব্যক্তিদের প্রস্থান]
বসোলাঃ আমি আপনার কবর নির্মাণ করতে এসেছি
ডাচেসঃ এ তুমি কি বলছ? আমার কবর? তুমি এমন ঢঙ্গে কথা বলছ যেন আমি মৃত্যুশয্যায় শায়িতা এবং আমার নাভিশ্বাস উঠেছে তোমার কি মনে হয় আমি অসুস্থ?
বসোলাঃ হ্যা, এ অসুস্থতা অধিকতর বিপজ্জনক যেহেতু আপনি সে ব্যাপারে সচেতন নন
ডাচেসঃ আমি নিশ্চিত যে তুমি পাগল নও তুমি কি আমাকে চিন?
বসোলাঃ হ্যা
ডাচেসঃ বল, আমি কে?
বসোলাঃ আপনি একটা ওয়র্মসীডের বাক্স; বড়জোর আপনি কাঁচা মনুষ্যমাংস থেকে তৈরী ভেষজ পদার্থ মানুষের মাংস কি ধরনের জিনিস? একটু দই এ পরিণত হওয়া দুধ; এক অদ্ভুত ধরনের আঠালো মিশ্রণ শিশুরা মাছি ধরার জন্য যে কাগজের বাক্স ব্যবহার করে আমাদের দেহ তার চেয়েও ভঙ্গুর আমাদের দেহ আরো ঘৃণ্য কারণ তা কেঁচোদের বংশধারা টিকিয়ে রাখে আপনি কি কখনো খাঁচায় বন্দী ভরত পাখী দেখেছেন? আত্মাও দেহের মাঝে সেভাবেই আবদ্ধ থাকে এই পৃথিবীটা ছোট তৃণভূমির মত আর আমাদের মাথার উপরের আকাশটা আয়নার মত এগুলো দেহ পিঞ্জরের ক্ষুদ্র পরিধি সম্বন্ধে অতি সামান্য জ্ঞান দান করে
ডাচেসঃ আমি কি তোমাদের ডাচেস নই?
বসোলা নিশ্চিতভাবেই আপনি কোন প্রতাপশালী মহিলা কারণ একজন সদানন্দ গোয়ালিনীর তুলনায় বিশ বছর আগেই আপনার কপালে (যা ধূসর রঙের চুলে আবৃত) বলিরেখা পড়ছে এ হল অসংযমী জীবনযাত্রার ছাপ কোন ইদুরকে যদি কোন বিড়ালের কানে বসবাস করতে বাধ্য করা হয় তাহলে তার ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে কিন্তু আপনার ঘুমের অধিকতর ব্যাঘাত ঘটে যে শিশুর সবে দাঁত উঠছে তাকে আপনার সাথে শুতে দিলে হয়তো সে কেঁদে উঠবে কারণ তার মনে হবে আপনি যেন তার তুলনায় বেশী অশান্ত
ডাচেসঃ আমি কিন্তু এখনও মালফির ডাচেস
বসোলা এ কারণেই আপনার ঘুমের এত ব্যাঘাত ঘটে গৌরব জিনিসটা জোনাকি পোকার মত একে দূরের থেকে উজ্জ্বল দেখায় অথচ নিকট থেকে দেখলে বুঝা যায়, এতে আভা বা উত্তাপ কোনটাই নেই
ডাচেসঃ তুমি বড় স্পষ্ট কথা বল
বসোলা আমি কবর বানাই আমার কাজ মৃতদের প্রশস্তি গাওয়া, জীবিতদের স্তাবকতা করা নয়
ডাচেসঃ তুমি কি আমার কবর খুঁড়তে এসেছ?
বসোলাঃ হ্যা
ডাচেসঃ আমাকে একটু আনন্দ উপভোগ করতে দাও কি ধাতু দিয়ে তুমি আমার স্মৃতিসৌধ তৈরী করবে?
বসোলাঃ তার আগে নকশাটা কেমন হবে ঠিক করুন
ডাচেস কেন আমরা মৃত্যুশয্যায় শায়িত অবস্থায়ও আকাশ-কুসুম কল্পনা করি? আমরা কি, কবরের মাঝেও ফ্যাশনদুরস্ত থাকতে চাই?
বসোলাঃ এ ব্যাপারে মানুষ খুবই উচ্চাকাঙখী রাজা-বাদশাদের কবরের উপর তাদের যে সব প্রতিকৃতি আঁকা থাকে সেগুলো দেখে (অতীতের মত) মনে হয় না যে তারা স্বর্গপানে চেয়ে প্রার্থনা রত এখন প্রতিকৃতিগুলোর হাত থাকে গালের উপর যা দেখে মনে হয় দাঁতের ব্যথায় ঐ ব্যক্তিদের মৃত্যু হয়েছে প্রতিকৃতিগুলোর চোখ উচ্চমুখী করে গড়া হয় নি; দুনিয়ামুখী করে খোদাই করা হয়েছে ঠিক যেমন করে জীবদ্দশায় তারা দুনিয়াদারির চিন্তায় ব্যস্ত ছিল
ডাচেস তাই ইত্যাকার দুঃখদায়ক পূর্বপ্রস্তুতির এবং এহেন কথাবার্তার অর্থ আমি পরিপূর্ণ ভাবে জানতে চাই এ সব আচরণ শবাগারের জন্যই মানান সই
বসোলাঃ এখনই আমি তা জানাব
[কফিন, দড়ি-দড়া ও ঘণ্টা হাতে ঘাতকদের প্রবেশ]
আপনার যুবরাজ ভ্রাতৃদ্বয়ের প্রেরিত একটা উপহার এখানে আছে এই উপহার আপনার জন্য হয়তো প্রীতিদায়ক হবে কারণ এটা আপনার জীবনের শেষ দুঃখ তথা শেষ সুফল বয়ে আনবে
ডাচেসঃ উপহারটা আমায় দেখতে দাও ঈশ্বরের প্রতি আনুগত্য আমার রক্তে অতিরিক্ত মাত্রায় প্রবাহমান আমার ইচ্ছা হয় ঐ রক্ত তাদের শিরায় প্রবাহিত হয়ে তাদের মঙ্গল সাধন করুক
বসোলাঃ এটাই হবে দরবার কক্ষে আপনার শেষ উপস্থিতি
ক্যারিওলাঃ হায়, সদাশয়া ডাচেস
ডাচেসঃ শান্ত হও; আমি এতে ভীত নই
বসোলাঃ আমি এক বেলম্যান যাকে সাধারণতঃ মৃত্যুর পূর্ব রাত্রে দণ্ডাজ্ঞা প্রাপ্ত আসামীদের নিকট প্রেরণ করা হয়
ডাচেসঃ এই মাত্রই না তুমি বললে যে তুমি একজন কবর নির্মাতা
বসোলাঃ সবই বলেছি ধীরে ধীরে আপনাকে মর্মান্তিক আঘাত দেওয়ার জন্য এখন যা বলি তা শুনুন এখন সবকিছু নিস্তব্ধ শুধু পেঁচা আর হুইসলার তীক্ষস্বরে ডেকে বলছে আপনি যেন কাফনের কাপড়ে নিজেকে দ্রুত আবৃত করেন আপনার যথেষ্ট জমা জমি আছে আছে ভূসম্পত্তির সামগ্রিক আয় কাদামাটির এই পৃথিবীতে আপনার জীবনপরিধি এখন সম্পূর্ণ দীর্ঘ যুদ্ধে আপনার মন এখন অশান্ত এখানে আপনার জন্য খাটি শান্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে নির্বোধরা কিসের এত গর্ব আর কি রাখার জন্য এত তদারকি করে? অথচ, পাপপথেই তাদের জন্ম; জন্মমাত্রই তাদের কাঁদতে হয় তাদের জীবনটাই ভুলে ভরা তাদের মৃত্যুটা ভয় উদ্রেককারী প্রবল ঝড়ের ন্যায় আপনার চুলে সুগন্ধী পাউডার ছড়িয়ে নিন, লিনেনের পোশাক পরুন, পা ধুয়ে নিন এবং দুষ্ট শয়তানকে দূরে রাখার জন্য গলায় একটি ক্রস ঝুলিয়ে নিন এখন মধ্যরাত, ভরা জোয়ারের সময় হা হুতাশ বন্ধ করে চলে আসুন
ক্যারিওলাঃ শয়তান, জালিম, খুনীর দল এখনি বিদায় হও ডাচেসকে নিয়ে তোমরা কি করতে চাও? ডাচেস আপনি চীকার করে সাহায্য চান
ডাচেসঃ কার কাছে সাহায্য চাইব? আমাদের নিকটতম প্রতিবেশীদের কাছে? তারা তো উন্মাদ
বসোলাঃ ঐ আপদটাকে সরিয়ে নাও
ডাচেসঃ বিদায়, ক্যারিওলা আমার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তোমাকে দেবার মত বিশেষ কিছু আমার নেই অনেক ক্ষুধার্ত পরজীবি আমার সম্পদ লুটেপুটে খেয়েছে তুমি যৎকিঞ্চিৎ অর্থ পাবে
ক্যারিওলাঃ আমি আমার কত্রীর সাথেই মরতে চাই
ডাচেসঃ তোমার কাছে একটা অনুরোধ রাখছি তুমি আমার শিশুপুত্রটির দেখাশুনা করবে ঠাণ্ডা লাগলে তাকে একটু সিরাপ খেতে দিও মেয়েটিকে ঘুমাতে যাওয়ার পূর্বে প্রার্থনা করতে শিখিও (ঘাতকরা বলপূর্বক ক্যারিওলাকে বাইরে নিয়ে গেল) (বসোলার প্রতি) এখন এসো তোমাদের যা খুশী তাই কর কি পদ্ধতিতে আমাকে মারতে চাও?
বসোলাঃ শ্বাসরুদ্ধ করে আপনার ঘাতকরা এখানেই রয়েছে
ডাচেসঃ আমি তাদের ক্ষমা করে দিচ্ছি কারণ তারা আমার যে পরিণতি ঘটাবে, সন্ন্যাস রোগ, সর্দি অথবা ফুসফুসে কফ জমেও ঐ একই পরিণতি ঘটতে পারত



বসোলাঃ মৃত্যুভয়ে আপনি কি ভীত নন?
ডাচেসঃ যখন কেউ জেনে যায় যে পরলোকে গিয়ে সে চমৎকার ব্যক্তিদের সান্নিধ্যে দিন কাটাবে তখন কি আর তার মরণের ভয় থাকে?
বসোলাঃ তবু আমার মনে হয়, যে প্রক্রিয়ায় আপনাকে আমরা হত্যা করতে যাচ্ছি তা আপনাকে যথেষ্ট পীড়া দিবে এই রজ্জুটি দেখে তো আপনার ভয় পাওয়া উচিত
ডাচেসঃ আমি মোটেও ভয় পাচ্ছি না হীরা দিয়ে যদি আমার গলা কাটা হতো অথবা ক্যাসিয়া দ্বারা শ্বাসরোধ করা হতো কিংবা মুক্তা ছুঁড়ে আমায় হত্যা করা হতো তাতে কি আমি আনন্দ পেতাম? দুনিয়া থেকে মানুষ যাতে বিদায় নিতে পারে সেজন্য মৃত্যু দশ সহস্র দুয়ার উন্মুক্ত রেখেছে একথা আমি জানি দেখা যায় এই দরজাগুলোয় এমন অদ্ভুত ধরনের কব্জা লাগানো যে সেগুলো উভয় দিকে খোলা যায় যেমন করে হোক আমি যেন তোমাদের চাপা কণ্ঠস্বরের আওতা থেকে দূরে সরে যেতে পারি আমার ভাইদের বলে দিও আমি এখন পুরোপুরি জাগ্রত অবস্থায়ই অনুধাবন করতে পারছি যে মৃত্যুই হল সর্বোৎকৃষ্ট উপহার যা তারা আমাকে প্রদান করতে পারে কিংবা যা আমি গ্রহণ করতে পারি আমার সর্বশেষ নারীসুলভ ত্রুটিটি আমি সানন্দে বর্জন করব এবং তোমাদের বিরক্তির উদ্রেক আর করব না
প্রথম ঘাতকঃ আমরা প্রস্তুত
ডাচেসঃ তোমাদের যেভাবে খুশী আমার প্রাণবায়ু বের করে দাও; কিন্তু আমার লাশটা আমার সহচরীর নিকট হস্তান্তর করো, করবে তো?
প্রথম ঘাতকঃ হ্যা
ডাচেসঃ টান, আরো শক্ত করে দড়িটা টান কারণ তোমাদের শক্তি ও সামর্থ্য অবশ্যই আমার উপর স্বর্গীয় আর্শীবাদ টেনে আনবে তবু একটু থাম রাজ-রাজড়াদের প্রাসাদ-ফটকগুলো যেমন সুউচ্চ খিলান সম্বলিত, স্বর্গের তোরণগুলো তেমন ধরনের নয় যারা স্বর্গে প্রবেশ করতে চায় তাদের অবশ্যই নতজানু হয়ে অগ্রসর হতে হয় (তিনি নতজানু হলেন) এসো, প্রবল মৃত্যু, ম্যানড্রাগোরার ভূমিকা পালন করে আমায় ঘুম পাড়িয়ে দাও (ঘাতকদের প্রতি) যাও, আমার ভাইদের বল যে যখন আমার প্রাণহীন দেহ এখানে শায়িত থাকবে তখন তারা যেন শান্তিতে আহার করতে পারে (ঘাতকরা ডাচেসের গলায় ফাঁস লাগাল)
বসোলাঃ পরিচারিকাটা কোথায়? তাকে খুঁজে আন অন্য একজন বাচ্চাগুলোর গলা টিপে ধর (ঘাতকরা ক্যারিওলা বাচ্চা দুটিকে নিয়ে এল; ঐ মুহূর্তে তারা শিশুদের গলায় ফাঁস লাগাল) (ক্যারিওলার প্রতি) ওহে, দেখ এখানে তোমার কর্ত্রী ঘুমিয়ে আছেন
ক্যারিওলাঃ উঃ এই হত্যাকাণ্ডের জন্য তোমাকে অনন্ত নরকবাস করতে হবে এরপর তো আমার পালা; নিশ্চয়ই তেমন নির্দেশ পেয়েছ, তাই না?
বসোলাঃ হ্যা, মরার জন্য তুমি এত ভাল প্রস্তুতি নিয়েছ দেখে আমি খুশী হয়েছি
কারিলাঃ ওহে জনাব, তুমি বুঝতে ভুল করেছ আমি মরার জন্য প্রস্তুত নই এবং আমি মরব না আগে আমি আমার প্রশ্নের উত্তর চাই আমি জানতে চাই আমার অপরাধটা কি?
বসোলাঃ এসো, একে হত্যা কর (ক্যারিওলার প্রতি) অতীতে তুমি ডাচেসের কথা মান্য করেছ; এখন তুমি আমাদের কথামত চলবে
ক্যারিওলা আমি মরব না আমি অবশ্যই মরতে চাই না; আমি এক যুবকের বাগদত্তা
প্রথম ঘাতকঃ এই নাও তোমার বিয়ের আংটি
ক্যারিওলাঃ আমাকে কেবল ডিউক মহোদয়ের সাথে কথা বলতে দাও আমি এই বিশ্বাসঘাতকতার কথা তাঁকে জানাব
বসোলাঃ আঃ , দেরী হয়ে যাচ্ছে; ওর টুটি চেপে ধর
প্রথম ঘাতকঃ সে তো আঁচড়াচ্ছে ও কামড়াচ্ছে
ক্যারিওলা যদি তোমরা এখন আমাকে হত্যা কর তাহলে আমার নরকে ঠাই হবে গত দুবছর যাবত আমি কোন ধর্মগুরুর কাছে কৃত পাপের স্বীকারোক্তি প্রদান করিনি
বসোলাঃ (ঘাতকদের প্রতি) কখন কাজটা শেষ করবে?
ক্যারিওলাঃ আমি সন্তান সম্ভবা।।
বসোলাঃ তাহলে, আর দেরী করে লাভ নেই তোমার ইজ্জত তো বেঁচেই গেল [ঘাতকরা ক্যারিওলা গলায় ফাঁসির দড়ি পরাল]
এই মহিলার দেহটা পাশের ঘরে নিয়ে যাও বাকী দেহগুলো এখানেই শায়িত থাকুক .
[ক্যারিওলার মৃতদেহ সহ ঘাতকদের প্রস্থান]
[ফার্ডিনান্ডের প্রবেশ]
ফার্ডিনান্ড সে কি মারা গিয়েছে?
বসোলাঃ আপনি যেমন চেয়েছিলেন, তার তেমনই গতি হয়েছে কিন্তু এখন থেকে আপনার মনে করুণার উদ্রেক হতে শুরু করুক হায়, এরা কি অপরাধ করেছিল?
[ সে মৃতদের দেখাল]
ফার্ডিনান্ডঃ নেকড়ের বাচ্চাদের মৃত্যুতে কখনো দুঃখ করতে নেই
বসোলাঃ আপনার দৃষ্টি এদিকে নিবদ্ধ করুন
ফার্ডিনান্ডঃ তা আমি অবিরতই করব
বসোলাঃ আপনার কি কান্না পাচ্ছে না? অন্যান্য পাপকর্ম কেবল সরব হয় কিন্তু খুন তীব্র চিৎকা করে উঠে জল পৃথিবীকে আর্দ্র রাখে কিন্তু রক্ত উপরদিকে উড়ে গিয়ে স্বর্গলোককে শিশিরসিক্ত করে তোলে
ফার্ডিনান্ডঃ ওর মুখটা ঢেকে দাও; আমার চোখ ধাঁধিয়ে যাচ্ছে অল্প বয়সে ওর মৃত্যু হল
বসোলাঃ আমি তেমনটা মনে করি না মনে হয় তাকে অনেক অনেক দীর্ঘ সময় কষ্ট ভোগ করতে হয়েছিল
ফার্ডিনান্ডঃ সে আর আমি যমজ ভাই বোন এবং এই মুহূর্তে যদি আমার মৃত্যু হয় তাহলে আমার জীবনের পরিধি ঠিক তারই সমান হবে
বসোলাঃ মনে হয় ডাচেসই আগে জন্মেছিলেন রক্তপাত ঘটিয়ে আপনি সেই পুরানো সত্যই প্রমাণ করলেন যে অপরিচিত ব্যক্তিদের চাইতে আত্মীয়দের মাঝেই অধিকতর শত্রুতা বিরাজ করে
ফার্ডিনান্ডঃ তার মুখখানা পুনরায় আমায় দেখতে দাও তুমি কেন তাকে করুণা করনি? যদি তুমি তাকে কোন পবিত্র স্থানে রেখে আসতে অথবা যদি ন্যায়সঙ্গত কোন এক কারণে তুমি আপন রীতির বিরোধিতা করে মাথার উপর তরবারী উঁচিয়ে তার নির্দোষিতাকে আমার প্রতিশোধস্পৃহার আওতায় বাইরে রাখতে তাহলে কত সৎ ও চমৎকার লোক বলেই তুমি বিবেচিত হতে! যখন আমার বিচার-বুদ্ধি লোপ পেয়েছিল, আমি তোমায় আদেশ করেছিলাম, যাও, আমার প্রিয়তম বন্ধুকে হত্যা কর আর তুমি সে কাজটাই করেছ। সে জন্য যে কারণগুলো দায়ী তা এখন আমাকে ভাল করে পরখ করতে দাও। সে নীচবংশে বিয়ে করেছিল, তাতে আমার কি যেত আসত? আমার অবশ্যই এটুকু স্বীকার করা উচিত যে আমি আশা করেছিলাম যদি সে বিধবা হিসাবেই রয়ে যায় তবে তার মৃত্যু ঘটলে আমি এক সীমাহীন বৈভবের অধিকারী হব। কিন্তু প্রধান কারণ কোনটি? তার বিয়ের ব্যাপারটা আমার অন্তর বিষিয়ে তুলেছিল। তোমার প্রসঙ্গে আসি। আমরা ট্র্যাজেডিগুলোয় দেখি ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করার কারণে কোন কোন মহান অভিনেতা বারংবার দর্শকদের অভিশাপ কুড়াচ্ছে। তেমনি তুমিও আমার ঘৃণার পাত্র। কারণ স্বরূপ বলা যায়, তুমি আমার জন্য অনেক খারাপ কাজ সুসম্পন্ন করেছ।
বসোলাঃ আপনার স্মৃতিশক্তিটা একটু চাঙ্গা করে দিই। কারণ আমি বুঝতে পারছি আপনি অকৃতজ্ঞের ন্যায় আচরণ করতে চলেছেন। আমি আমার কাজের জন্য যথোপযুক্ত পুরস্কার দাবী করছি।
ফার্ডিনান্ডঃ তোমাকে কি দিব তা আমি তোমাকে বলব।
বসোলাঃ বলুন।
ফার্ডিনান্ডঃ এই খুনটি করার জন্য আমি তোমাকে ক্ষমা করে দিব।
বসোলাঃ হায়, এ কি বলছেন!
ফার্ডিনান্ডঃ হ্যা, তোমাকে সর্বোচ্চ এটুকু উদারতা দেখানোর কথাই আমি চিন্তা করতে পারি কার প্রদত্ত অধিকার বলে তুমি এই অশিষ্ট দণ্ডাদেশ কার্যকর করেছ?
বসোলাঃ সে অধিকার তো আপনি দিয়েছেন।
ফার্ডিনান্ডঃ আমার আদেশে এ কাজ করেছ ! কেন, আমি কি তার কৃতকর্মের বিচারক? কোন আনুষ্ঠানিক বিচারসভায় কি তাকে দুনিয়া থেকে বিলীন করে দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছিল? জুরীমন্ডলীর সকলেই কি আদালতে তাকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল? নরক ছাড়া অন্য কোথাও কি তুমি এই বিচারের রায় লিপিবদ্ধ অবস্থায় পাবে? দেখ, তুমি বোকার মত কাজ করে বেঁচে থাকার অধিকার হারিয়েছ। এ জন্য তোমাকে মরতে হবে।
বসোলাঃ যখন এক চোর আরেক চোরকে ফাঁসি দেয় তখন বিচার ব্যবস্থাটাই সম্পূর্ণ ভুল পথে চালিত হয়। সাহস করে, এই ঘটনা কে উদঘাটন করবে?
ফার্ডিনান্ডঃ শোন, সে কথা আমি তোমাকে বলছি। একদিন কোন নেকড়ে তার কবর খুঁজে পাবে এবং মৃতদেহ গোগ্রাসে ভক্ষণের জন্য নয়, বরং এই ভয়াবহ খুনের ঘটনা প্রকাশ করার জন্য লাশটা টেনে হিঁচড়ে বার করবে।
বসোলাঃ সেজন্য আমি নয়, আপনিই ভয়ে কাঁপবেন।
ফার্ডিনান্ডঃ আমাকে একা থাকতে দাও।
বসোলাঃ তার আগে আমি আমার প্রাপ্য ভাতা গ্রহণ করতে চাই।
ফার্ডিনান্ডঃ তুমি একটা বদমাশ।
বসোলাঃ বিচারক যদি আপনার মতো অকৃতজ্ঞ হয়ে থাকে তাহলে তো আমি বদমাশ বলেই পরিগণিত হব।
ফার্ডিনান্ডঃ উঃ! কি ভয়াবহ ব্যাপার। ঈশ্বরের ভয়ে শয়তানরা পর্যন্ত নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে অথচ তিনিও মানুষকে বাধ্য করেন না। আমার মুখের দিকে আর কোনদিন তাকিও না ।
বসোলাঃ ঠিক আছে, আমি বিদায় নিচ্ছি। আপনি ও আপনার ভ্রাতা সুযোগ্য ব্যক্তি। আপনাদের হৃদয়জোড়া যেন শূন্য কবর। তাতে পচন ধরেছে এবং ঐ পচন অন্যদের মাঝেও সংক্রমিত হচ্ছে। আপনাদের প্রতিশোধ স্পৃহাকে তুলনা করা যায় একই চেইনে বাধা দুটো বুলেটের সাথে যারা একত্রেই ধাবিত হয়। আপনারা ভাই হতে পারেন কারণ বিশ্বাসঘাতকতা প্লেগের মতই রক্তসম্পর্কিত সকলেই আত্মীয়ের মাঝেই ছড়িয়ে পড়ে। দীর্ঘদিন ধরে সোনালী ও সুমধুর স্বপ্ন দেখা মানুষের মতই আমি অবস্থান করছিলাম কিন্তু এখন আমি সম্বিত ফিরে পেয়েছি এবং নিজের উপরই আমার রাগ হচ্ছে।
ফার্ডিনান্ডঃ তুমি পৃথিবীর কোন অজানা অংশে চলে যাও যাতে কোনদিন আমাকে তোমার মুখদর্শন করতে না হয়।
[প্রস্থান]
বসোলাঃ জনাব, কেন আমাকে এভাবে অবহেলা করা হচ্ছে তা জানতে চাই। আপনার জুলুমবাজিতে আমি সহায়তা করেছি। পৃথিবীর আর সবার চেয়ে আপনাকে সন্তুষ্ট করার জন্য আমি প্রাণপণে চেষ্টা করেছি। যদিও আমি মন্দ কাজকে ঘৃণা করি তবুও যার পরামর্শে সেই কাজ করেছি তাঁকে (অর্থাৎ আপনাকে) আমি ভালবাসি। সৎ মানুষ হিসাবে প্রতীয়মান হবার চেয়ে আমি আপনার বিশ্বস্ত ভৃত্যই হতে চেয়েছি।
ফার্ডিনান্ডঃ আমি চাঁদের আলোয় ব্যাজার শিকার করতে করতে যাব । ওটা অন্ধকারে করার কাজ।
[প্রস্থান]
বসোলাঃ উনি মানসিকভাবে বেশ বিপর্যস্ত হয়ে আছেন। সম্মান লাভের রঙ্গিন আশা দূর হোক। বৃথা আশায় বুক বেঁধে আমরা আরাম হারাম করি। বরফের মাঝেও আমরা ঘামি আবার আগুনের মাঝেও জমে যাই। যে কাজ করেছি তা যদি পুনরায় করতে হয় তবে আমি কিই বা করতে পারি? (ইউরোপের যাবতীয় ধন-সম্পদের বিনিময়েও আমি আমার বিতর্কের শান্তি বিসর্জন দিব না -ঐ ডাচেস নড়ছেন; তাঁর দেহে জীবনের পন্দন রয়েছে। হে সুন্দর আত্মা, অন্ধকার জগত থেকে ফিরে আসুন এবং আমার আত্মকে এই নরকযন্ত্রণা থেকে মুক্ত করুন। তাঁর শরীর উষ্ণ, তিনি শ্বাস নিচ্ছেন-(ডাচেসের প্রতি) আপনার ঐ ফ্যাকাশে ঠোট দুটো সজীব করে তোলার জন্য আমার হৃদয় নিংড়ে দিব। কে ওখানে? প্রাণশক্তিদায়ক কোন পানীয় নিয়ে এসো। হায়, আমি কাউকে ডাকতে সাহস পাচ্ছি না। করুণা দেখাতে গিয়ে আমার করুণার পাত্র ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। উনি চোখ খুলেছেন-ক্ষণপূর্বে বন্ধ থাকা স্বর্গের দ্বারা যেন উন্মোচিত হচ্ছে যার মাধ্যমে আমি ক্ষমালাভের পথে এগোতে পারব।
ডাচেস অ্যান্টনিও!
বসোলাঃ হ্যা, ম্যাডাম, উনি বেঁচে আছেন। আপনি যে মৃতদেহগুলো দেখেছিলেন ওগুলো কৃত্রিম প্রতিমূর্তি মাত্র। আপনার ভ্রাতাদের সাথে তার বিরোধ দূর হয়েছে; পাপ স্বয়ং সমঝোতা স্থাপনের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করেছেন।
ডাচেসঃ হে ঈশ্বর, ক্ষমা কর।
বসোলাঃ হায়, ডাচেস পুনরায় চেতনা হারালেন; তাঁর জীবনের তার ছিড়ে গেল। যে নিস্পাপ, পূর্ণ সে শ্যামঘুঘুর পালকে তৈরী বিছানায় সুনিদ্রা যায়। অন্যদিকে অপরাধবোধ র্জনিসটা হল কালো বাঁধানো খাতার মত যেখানে আমাদের যাবতীয় সুকৃতি ও দুষ্কর্মের বিবরণ লিপিবদ্ধ থাকে; এটা এমন এক দৃষ্টিভঙ্গী যা আমাদের নরকের পথ দেখায়। হায়, যখন আমরা ভাল কিছু করার জন্য মনস্থির করি তখন আমরা তা করে উঠতে পারি না। আমার এই কষ্ট পুরুষোচিত!
আমি খুবই নিশ্চিত যে আমার চোখ দিয়ে যে অশ্রুধারা বইছে তা কখনই মাতৃস্তন্য পানের সুবাদে উদ্ভূত হয় নি। আমার বর্তমান অবস্থা এত খারাপ যে আমার আর ভয় পাওয়ার কিছু নেই। এখন আমার চোখে অনুতাপের যে অশ্রুধারা বইছে, ডাচেসের জীবদ্দশায় তা কোথায় ছিল? হায়রে, তখন তা জমাট বেঁধেছিল। যে ঘৃণ্য ব্যক্তি আপন পিতাকে হত্যা করেছে, পরবর্তীতে তরবারীর দৃশ্য তার মনে যে বেদনাদায়ক অনুভূতি সৃষ্টি করে বর্তমান দৃশ্য আমার নিকট একই রকম হৃদয়বিদারক। আসুন, আপনার দেহটি আমি এখান থেকে বয়ে নিয়ে যাব এবং আপনার শেষ ইচ্ছা পূরণ করব। অর্থাৎ, এমন কোন সহৃদয় মহিলার কাছে এ দেহ হস্তান্তর করব যে পবিত্র ধর্মমতে এর শেষকৃত্য সম্পন্ন করবে। কোন নিষ্ঠুর স্বৈরশাসক আমাকে নিবৃত্ত করতে পারবে না। তারপর আমি বায়ুবেগে মিলানের উদ্দেশ্যে যাত্রা করব। সেখানে আমি দ্রুত এমন কিছু কাজ করব যা আমার বিমর্ষতার সাথে সঙ্গতিপূর্ণ।
[প্রস্থান]
The Duchess of Malfi - John Webster - Bangla Translation - Act - 5 - Scene - 1-2

নাটকের এই অংশের টিকাসমূহ
চতুর্থ অঙ্কঃ দ্বিতীয় দৃশ্য
১. লোকমুখে প্রচলিত আছে যে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার পূর্বে রাজহাঁসেরা গান গাইতে, থাকে।
২. উডককঃ এক প্রকার পাখি। এরা খুবই বোকা স্বভাবের ।।
৩. বেলম্যান ও এদের কাজ ছিল ঘণ্টা বাজানো এবং মৃত্যুদণ্ডাজ্ঞা প্রাপ্ত ব্যক্তিকে তার অন্তিম যাত্রার সময় মনে করিয়ে দেওয়া। ফ্রেডেরিক অ্যালেন লিখেছেন যে সেইন্ট সেপালচার গীর্জার বেলম্যান মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত আসামীদের নিকট তাদের মৃত্যুর পূর্বরাত্রে যেত এবং সুপরামর্শ দিত।
৪. এই রোগ হলে রোগীর মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হয় এবং সে আকস্মিকভাবে সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলে।

৫. এলিজাবেথীয় যুগে বহু লোকেই বিশ্বাস করত যে স্বর্গীয় বিচার পরিচালনার ক্ষেত্রে নেকড়েরা সহায়তা করে কারণ তারা যে সব লোককে গোপনে হত্যা করা হয়েছে এবং কবর দেওয়া হয়েছে তাদের দেহ মাটি খুঁড়ে বের করে এবং মাথা ও মুখের অনেকখানি অংশ অনাবৃত ও অক্ষত রেখে দেয়। ফলে লাশগুলো সহজেই সনাক্ত করা যায়।




No comments:

Post a Comment

Trending