Monday, June 24, 2019

Beowulf - Summary in Bangla -

Beowulf - Bangla translation and summary

Beowulf - Summary in Bangla (Short Translation)


শিলডিংসদের বা স্কিল্ডিংস (Scyldings - Dane) রাজা শেইফসন এর সন্তান রাজা রথগার (Hrothgar) দীর্ঘদিন ডেনমার্কে বেশ স্বাচ্ছন্দের সাথেই রাজত্ব করে আসছিল। একবার তিনি তার প্রজাদের জন্যে একটি বিশাল বড় প্রমোদকক্ষ নির্মান করলেন। যাতে করে তারা সেখানে এসে আনন্দ ফুর্তি করতে বা যে কোন প্রয়োজনে সবাই একসাথে মিলিত হতে পারে। এর নাম দেয়া হল হিওরট। এটা সাধারণত যুদ্ধ শেষে সৈনিকদের বিজয় উদযাপন করা, রাজা রথগারের থেকে পুরষ্কার গ্রহন করা, ভাড় চারন কবিদের মাধ্যমে বিভিন্ন গান, গল্প, কবিতা শোনা অভিনয় দেখা ইত্যাদি কাজে ব্যবহার করত। কিন্তু তাদের এই আনন্দের ধ্বনি একজনের মাঝে সৃষ্টি করছিল কঠিন অন্তর্জালা। সে ছিল এক ভয়ঙ্কর দানব, তার নাম গ্রেনডেল (Grendel) সে এই হিওরট(Heorot) এর অদূরে জলাভুমিতে তার গুহায় বাস করত। একদিন রাতে সে হিওরট আক্রমন করল, হত্যা করল বহু লোককে, কয়েকজনকে হাতে করে নিয়ে গেল তার গুহায়। সেখানে নিয়ে তাদের মৃতদেহগুলো ছিরে খুরে খেয়ে ফেলল। সেদিন রাত সেখানে ছিলেন রাজা রথগার(Hrothgar), তার সাথে ছিল তার স্ত্রী উয়েলথিউ (Wealhtheow), তার দুই উপদেষ্টা বা মন্ত্রী উনফার্থ (Unferth) ()ইস্কিয়ার (Aeschere) উনফার্থ গ্রেনডেল এর হাতে পড়লেও সে অল্পের জন্যে বেচে যায়। গ্রেনডেল এভাবে মাস ছয়েক এর মাঝে প্রায় ১০ বার আক্রমন করে ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ চালায় তার গুহায় মানুষ ধরে নিয়ে গিয়ে ছিরে-খুড়ে খায় আর তার পোষা ঈল মাছকে খাওয়ায়। রাজা রথগার একজন বীর বা নায়কের আগমনের আশা করতে থাকেন যে গ্রেনডেলকে হত্যা করে তার প্রজাদের বাচাবে।
এসময় তাদের সাহায্যার্থে সমুদ্রের অন্য পার থেকে এগিয়ে আসে গিট (Geats) বীর বিওউলফ(Beowulf) সে তার ১৪ জন সহচর নিয়ে ডেনমার্কে আসে।উইগলাফ(Wiglaf) ছিল তার প্রধান সহচর। 
রাজা রথগার বিওউলফ এর পিতা একথিউকে (Ecgtheow) একবার সাহায্য আশ্রয় দিয়েছিলেন। রথগার বিওউলফকে চিনতে পারে এবং তাকে দেখে খুব খুশি হয়। বলতে থাকে বিওউলফ অবশ্যই গ্রেনডেলকে হত্যা করে তার প্রজাদেরকে তার অনিষ্ট থেকে উদ্ধার করবে। রথগার তখন বিওউলফ এর সম্মানে একটি ভোজের আয়োজন করে। এসময় দেখা যায় রাজা রথগারের স্ত্রী বিওউলফকে ভালোই মেহমানদারি করে কারন সে বিওউলফের প্রতি কিছুটা আকর্ষন অনুভব করে। রথগার তার স্ত্রীর সাথে কথপকথনের সময় বিওউলফের বীরত্ব গ্রেনডেলকে সে হত্যা করতে পারবে কিনা, এই নিয়ে যখন কথা উঠে উনফার্থ তখন বিওউলফকে উপহাস করে এই বলে যে, ব্রেকার(Breca) মত লোকের কাছে যে সাতার প্রতিযোগিতায় হেরে যায়, সে কি করে গ্রেনডেল এর মত বিশাল ভয়ঙ্কর দানবকে হত্যা করবে। বিওউলফও কম যায় না, সে কেনো হেরেছিল সে ঘটনা তাদেরকে শুনিয়ে দেয়, যা মোটামুটি এই রকমঃ ৫দিন ধরে তারা (বিওউলফ ব্রেকা) সাতার প্রতিযোগিতা করে। তারপর তার পায়ে কোন এক সাপ কামড়ে ধরে গভীর পানির তলদেশে নিয়ে যায়। একটা সাপকে তার তরবারি দিয়ে কাটার পর আরেকটা আসে, এভাবে টি সাপ কাটার পর সে সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলে। পরদিন সকালে সে সমুদ্রের তীরে বালিতে নিজেকে আবিষ্কার করে। এই ঘটনার ফলে সেই এলাকা অন্য নাবিকদের জন্যে নিরাপদ হয়ে যায়। এই ঘটনা বলার পর তখন তার সম্মান কমে না বরং আরো বাড়ে। দুইজনের(বিওউলফ ও উনফার্থ) মাঝে এই রকম আরো বিষয় নিয়ে জমজমাট কথার লড়াই চলে।  
যাই হোক সেদিন রাতে গ্রেনডেল আবার আসে। তাদের উপর হত্যাযজ্ঞ চালাতে চেষ্টা করে। বিওউলফের একজন সাথীকে হত্যাও করে ফেলে। বিওউলফ আগেই জেনেছিল কোন অস্র দিয়ে আঘাত করেও গ্রেনডেলকে আহত করা যায় না। তাই সে তাকে নিজের হাতেই হত্যা করার সিদ্ধান্ত নিল। তার হাতে ছিল প্রায় ৩০ জন বীরপুরুষের সমান শক্তি। বিওউলফ গ্রেনডেল এর একটি হাত ছিড়ে ফেলল। তার সাথে না পেরে আহত গ্রেনডেল এক হাত ছাড়াই জলাভূমির দিকে পালিয়ে গেল। সেখানেই সে মৃত্যুবরণ করে। রাজা রথগার তার বিশাল হাতটি হিওরট এর দেয়ালে গ্রেনডেল এর চিহ্ন হিসেবে ঝুলিয়ে দেয়।
আনন্দে রথগার বিওউলফকে অনেক স্বর্ণ অন্যান্য পুরষ্কার দেয়। তার সম্মানে রাতে ভোজের আয়োজন করে। কিন্তু বিপদের এখানেই শেষ ছিল না, আরো বড় এক বিপদ তার জন্যে ধেয়ে আসছিল। গ্রেনডেল এর মা আর এক পিশাচিনী যে সুন্দর নারীর রুপ ধরে থাকত, সে প্রতিশোধ নিতে আসছিল। সে রাতে এসে আর এক ধ্বংসযজ্ঞ চালায় এবং রথগারের প্রিয় উপদেষ্টা ()ইস্কিয়ারকে ধরে নিয়ে গিয়ে হত্যা করে। ()ইস্কিয়ারের হত্যার প্রতিশোধ নিতে তারা গ্রেনডেলের মায়ের পিছু নেয়। লেকের কাছে খারিতে তারা ()ইস্কিয়ার এর মাথাটি খুজে পায়। গ্রেনডেলের মা লেকের পানির ভিতরে তার গুহায় চলে যায়। বিওউলফ উনফার্থ এর কাছ থেকে রান্টিং(Hrunting) নামক তরবারি নিয়ে পানিতে তার পিছু পিছু ঝাপ দেয়।
গ্রেনডেলের মা তাকে ধরে গুহায় নিয়ে যায়। বিওউলফ তাকে রান্টিং দিয়ে আঘাত করেও কোন ক্ষতি করতে পারে না। উল্টো গ্রেনডেলের মা তার ছুরি দিয়ে তাকে আঘাত করে। তবে বিওউলফের দেহের বর্মটি উইল্যান্ড (Weland) নামক বিখ্যাত এক কামারের হাতে তৈরী, যার কারনে গ্রেনডেলের মা তার কোন ক্ষতি করতে পারে না। 
একসময় সেখানেই একটা ভারি তরবারি পায় যেটা একজন সাধারন মানুষের পক্ষে উঁচু করা সম্ভব ছিলো না। এটি দিয়ে আঘাত করে বিওউলফ তার মেরুদন্ড কাটতে সক্ষম হয়। এসময় এক জাদুকরি আলোয় গুহাটি ভরে উঠে আর সে সেখানে গ্রেনডেলের মৃতদেহটি এবং অনেক ধনসম্পদ দেখতে পায়। সে গ্রেনডেলের মাথাটি কেটে ফেলে। এসময় জাদুকরি তরবারিটির হাতল ছাড়া সব গলে যায়। সে তার ধন সম্পদ গুলো না নিয়ে শুধু গ্রেনডেলের মাথা তরবারির হাতলটি নিয়ে ফিরে আসে।
এরপর ডেনরা অনেক খুশি হয়। রথগার তাকে অনেক অনেক পুরষ্কার দেন। তাকে তিনি নিজের ছেলের মত মর্যাদা দেন। তারপর এক বিষাদময় বিদায়ের পর তারা তাদের গিটল্যান্ড ফিরে আসেন।
গিটল্যান্ডে ফিরে রাজা হাইগিলাক(Hygelac) রানী হাইড(Hygd) এর সাথে দেখা করেন। তার কাছে তার সব ঘটনা বর্ণনা করেন যেসকল পুরষ্কার ধনসম্পদ তিনি পেয়েছেন সেগুলো রাজাকে দেন। রাজাও তাকে অন্য আরো অনেক পুরষ্কার দেন।    
এক সময় রাজা হাইজিলাক শিফলিংদের(Shylfings) সাথে যুদ্ধে নিহত হয়। তারপর তার পুত্র তার সিংহাসনে বসে। এরপর তার পুত্র মারা গেলে বিওউলফ গিটল্যান্ডের সিংহাসনে বসেন। তিনি অত্যন্ত বুদ্ধিমত্তার সাথে ৫০ বছর রাজত্ব করেন রাজ্যের অনেক উন্নতি সাধন করেন।
তার রাজ্যের কাছেই কোথাও এক ড্রাগন এক বিশাল সম্পদের স্তুপ(horde of  treasure) পাহারা দিতো। এক বুড়ো চোর সেখান থেকে একটি স্বর্ণের কাপ চুরি করে নিয়ে যায়। এর ফলে ড্রাগনটি রেগে যায় এবং প্রতি রাত তাদের রাজ্যের সিমানায় এসে ধ্বংসযজ্ঞ চালায়, বাড়ি ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। একদিন বিওউলফের ঘরেও আগুন ধরিয়ে দেয়। বিওউলফ তার সঙ্গিরা তাকে খুজতে খুজতে তার গুহার কাছে আসে। বৃদ্ধ বিওউলফ তাকে হত্যা করার চেষ্টা করে। কিন্তু তার তরবারিটি (নাম -Naegling) তাকে হত্যা করার জন্যে পর্যাপ্ত শক্তিশালী ছিল না। এই সময় তার প্রিয় বন্ধু সহচর উইগ্লাফ তার সাহায্যে এগিয়ে আসে। দুই জনে মিলে ড্রাগনটিকে হত্যা করে। নিহত হওয়ার আগে ড্রাগনটি বিওউলফকে আঘাত করে। যার ফলে কিছুক্ষণের মাঝে বিওউলফেরও মৃত্যু হয়। মারা যাওয়ার আগে সে তার বন্ধুর হাতে তার রাজ্যে ভার দিয়ে যায়। তার ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে সমুদ্রের তীরে কবরস্থ করা হয়। তার সাথে সেই ধনসম্পদ গুলোও কবরস্থ করা হয়।   

No comments:

Post a Comment

Trending

Ads