Search This Blog

Total Pageviews

Sunday, January 6, 2019

King Oedipus - Bangla translation - Part - 15 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ পর্ব ১৫

King Oedipus - Bangla translation
King Oedipus - Bangla translation - Part - 15 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ পর্ব ১৫



King Oedipus - Bangla translation - Part - 15 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ পর্ব ১৫
পর্ব ১৫ শুরুঃ
ঈডিপাস : আমি যে অপরাধ করেছি তার জন্য আমাকে আর কোন পরামর্শ প্রদান কোরো না। আমার চোখ দুটো আজ থাকলে আমাকে শুধু অনুতাপ করতে হত। আমি চোখে না দেখে না জেনে পিতাকে হত্যা করেছি। কোন চোখে আমার মাতাকে না দেখে তাকে সম্ভোগ করেছি। কেন আমি তাদেরকে চিনতে পারিনি? এ ছাড়া চোখ থাকলে আমি আমার প্রিয় সন্তানদের হয়ত দেখতে পেতাম। কিছুটা সান্তনা হয়ত পেতাম এতে। আমি থীবসের উচ্চমর্যাদাসম্পন্ন পরিবারের সন্তান হলেও আমারই নির্দেশে আমাকে আজ রাজ্য থেকে তাড়িয়ে দেয়া উচিত । প্রাচীর ঘেরা এই সুন্দর শহর ও দেবতাদের অপরূপ প্রতিমা আমি আর কখনো দেখতে পাব না। আমি এক হতভাগা দুরাত্মা। এই অপকর্ম করার পরেও কি আমি আমার দু'চোখ তুলে আমার রাজ্যের লোকদের মুখের পানে তাকাতে পারতাম, না, চোখ দুটোর মতো আমি যদি আমার শোনার কান দুটোও বিনষ্ট করে দিতে পারতাম। তাহলে একসাথে আমি দেখা ও শোনা দুটো থেকেই বঞ্চিত থাকতাম। তাহলে আমার শরীরটা আলো বাতাস হীন একটা অন্ধকার কারাগার হত। আমি চাই আমার সকল ভাবনাচিন্তা, সমস্ত বেদনা যেন পরিতাপের উর্ধ্বে উঠে যায়। সিথেরন! ধাত্রী মাতা আমার, তুমি কেন আমাকে লালন করেছিলে, কেন তখনি আমাকে হত্যা করনি? তাহলে আমি আর এ সমাজে ফিরতে পারতাম না। পলিবাস আর করিন্থ, তোমরা আমাকে অসহায় এক শিশু হিসেবে লালন করেছ, বুঝতে পারনি এই অবুঝ শিশুর মাঝে ক্রমে বেড়ে উঠেছে এক পাপাচারী আত্মা। আজ সবার সামনে উন্মুক্ত হল সেই পাপাচারীর আসল চেহারা। অরণ্যের সেই তিনটি পথের নির্জন মিলনস্থল--- আমি যেদিন আমার পিতার রক্ত ঝরিয়েছি সেদিন তুমিই তা শুষে নিয়েছিলে। আজ ভাবো দেখি, আমার করা কত ভয়াল কর্ম তুমি দর্শন করেছ আর তোমার নিকট হতে ফিরে আসার পর কত বড় জঘন্য কর্ম করেছি আমি বিয়ের অনুষ্ঠান, বিয়ের পবিত্র বন্ধন, তোমরা আমাকে এনেছ এই পৃথিবীতে। পিতা, ভাই, পুত্র, মাতা, স্ত্রী, তোমাদের মিলিত পবিত্র বন্ধন আমি কলংকিত করেছি নিজ মাতার গর্ভে সন্তজন্ম দিয়ে। আর এই জঘন্য অপকর্মের কারণে আমি লাঞ্ছিত হয়েছি মনুষ্য সমাজে। যে পাপাচার করেছি সেটা আর মুখে উচ্চারণ করতে চাই না। তোমরা অনুগ্রহ করে আমাকে এ রাজ্যের বাইরে কোথাও সরিয়ে দাও, হত্যা করো কিংবা ছুড়ে ফেলে আমাকে গভীর সমুদ্রে। (কোরাস দল ঈডিপাসের হাতের আওতা থেকে সরে যায়) দয়া করে গ্রহণ করো আমাকে, আমাকে একটু ধরো তোমরা, দূরে নিয়ে যাও, ধরো আমাকে, ভয় পেয়ো না আমার এই পাপাচার আর যেন কাউকে স্পর্শ না করে সে ব্যবস্থা গ্র করো।
কোরাস গায়ক : ক্রেয়ন আসছে এখানে, সে-ই তোমার সঠিক ব্যবস্থা নেবে। তার নিকট থেকে পরামর্শ গ্রহণ করো। তোমার অনুপস্থিতিতে ক্রেয়নই এখন রাজ্যভার বুঝে নেবে।
ইডিপাস : কী করে তাকে এসব জানাব আমি, আমার কী পরিচয় তার কাছে প্রদান করব? আমি তার কাছ থেকে কি সুবিচার পাব? পূর্বে আমি তার উপর অনেক অবিচার করেছি।
[ক্রেয়নের প্রবেশ]
ক্রেয়ন : ঈডিপাস, আমি পুরনো কোন দোষের কথা বলতে কিংবা তোমাকে উপহাস করতে এখানে আসিনি। বন্ধুরা আমার, তোমরা তোমাদের প্রাণদাতা সূর্য দেবতার প্রতি সম্মান দেখাও, যদি তার প্রতি কিছুটা শ্রদ্ধাবোধ থেকে থাকে তাহলে তোমরা এই নোংরা মানব দেহটাকে আর দিনের আলোতে প্রকাশ কোরো না। কারণ পৃথিবী তার এ দেহটাকে গ্রহণ করবে না, আকাশ হতে নেমে আসা বৃষ্টিধারা কিংবা সূর্যালোকও তার শরীরে ঝরে পড়বে না। তোমরা যত দ্রুত সম্ভব ওকে প্রাসাদের ভেতরে নিয়ে যাও। নিকটজনের মর্মবিদারক কাহিনী শুধু নিকটজনেরাই শুনতে পারে।
ঈডিপাস : আমি তোমাকে শুধু একটি কথাই জিজ্ঞেস করব, মহান বন্ধু আমার, আমার প্রতি করুণা করে তুমি শুধু আমার একটি আশা পূরণ করো। মহান ঈশ্বরের করুণার জন্য তোমার ভালোর জন্যই বলছি, আমার জন্য নয়।
ক্রেয়ন : বিষয়টা কী, এত যে নম্রসুরে প্রার্থনা করছ?
ঈডিপাস : যত দ্রুত সম্ভব আমাকে এই রাজ্য থেকে তাড়া। এমন একটি জায়গায় পাঠাও যেখানে কোন মানুষ আমাকে দেখতে পাবে না।
ক্রেয়ন : অবশ্যই আমি এটা পারতাম কিন্তু আমি দেবতাদের নির্দেশের অপেক্ষা করছি এ ব্যাপারে।
ঈডিপাস : না, আমার মতো পাপাচারী আর পিতৃহন্তাকারীকে শেষ করে দেয়ার জন্য দেবতারা নির্দেশ দিয়েছেন।
ক্রেয়ন : হতে পারে এটা। কিন্তু আমাদের অবস্থানটা এখন কোথায় আর আমাদের এখন কাজটা কী সেটা ভালোভাবে জানা প্রয়োজন।
ঈডিপাস : আমার মতো পতিতজনের জন্য এখনো তুমি দেবতাদের প্রত্যাদেশ আশা করছ?
ক্রেয়ন : এরপর তুমিও কি দেবতাদের করুণা আশা করবে না?
ঈডিপাস : হ্যা, তবে তোমার কাছে আমার একটাই সবিনয় নিবেদন, কিছুক্ষণ পূর্বে যিনি প্রাসাদের ভেতরে মৃত্যুবরণ করেছেন তার উপযুক্ত অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পাদন কোরো। আর আমার জন্য এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করো যাতে আমি যতকাল বেঁচে থাকব ততকাল আমার পিতার রাজ্যে আমার যেন ঠাই না হয়। আমাকে সেই সিথেরনের অরণ্যে নির্বাসন দাও, যেখানে একদা আমার পিতামাতা আমাকে ফেলে দিয়েছিল। তারা আমাকে সে জায়গায় যে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করে পাঠিয়েছিল, আমি তাদের সেই মৃত্যুদণ্ড মেনে নিয়ে সেখানেই মরতে চাই। আমি জানি সাধারণ কোন রোগব্যাধিতে আমার মরণ হবে না। অনেক দুঃখ আছে আমার কপালে, আর তা আছে বলেই মৃত্যুর মুখ হতে আমাকে তুলে আনা হয়েছিল। আমার ভাগ্য আমাকে যেখানে চালনা করে করুক, আমি আর এ ব্যাপারে কোন কথা বলতে চাই না, আমি আমার সন্তানদের সম্পর্কে কিছু বলতে চাই। ক্রেয়ন, আমার পুত্র দুটির তুমি যদি কোনো দায়িত্ব গ্রহণ না করো তাতেও দুঃখ পাব না আমি। তারা তাদের ইচ্ছেমতো যেখানে বাস করতে চায় করবে, তুমি শুধু এটুকু খেয়াল করবে তাদের ভরণ পোষণের যেন কোন ক্রটি না হয়। কিন্তু আমার কন্যা সন্তান দুটির তুমি খেয়াল রেখো। ওরা আমাকে ছাড়া একদণ্ডও কোথাও থাকেনি। সর্বদা ওরা আমার সাথে উঠাবসা করেছে। ক্রেয়ন, যদি সম্ভব হয় ওদেরকে আমার সামনে এনে একটু স্পর্শ করার সুযোগ দাও, শুধু আমার এই আকাঙক্ষাটি পূর্ণ করো। শুধু একটিবার যদি আমি তাদের ছুতে পারতাম, তাহলে ভাবতাম ওরা এখন আমার পাশেই অবস্থান করছে।
[ঈডিপাসের দুকন্যা অ্যান্টিগোনে আর ইসমেনি পাশেই ছিল। তাদের ঈডিপাসের সামনে আনা হল] সেকি! আমি যেন আমার প্রিয় সন্তানদের কান্নার আওয়াজ পাচ্ছি। আমার সোনা মানিকরা-ওরা কি এখানে এসেছে?

ক্রেয়ন : ওরা এখানে এসেছে। আমি জানি ওদের দেখে তুমি কত খুশি হতে, আজও খুশি হবে।

No comments:

Post a Comment

Popular Posts