Friday, July 12, 2019

Shall I Compare thee to a summar's day - William Shakespeare - Bangla Summary and Analysis

Shall I Compare thee to a summar's day - William Shakespeare - Bangla Summary and Analysis

Shall I Compare thee to a summar's day - William Shakespeare - Bangla Summary and Analysis

সরলার্থ
প্রথম স্তবক: কবি গ্রীষ্মকালীন সৌন্দর্যের সাথে তাঁর বন্ধুর রূপকে তুলনা করবেন কি না, সে নাটকীয় প্রশ্ন দিয়ে কবিতাটি শুরু করে, পরে বলেন তাঁর বন্ধু গ্রীষ্মের সৌন্দর্যের চেয়েও সুন্দর। গ্রীষ্মের সৌন্দর্য অস্থায়ী হলেও তাঁর বন্ধুর রূপ চিরস্থায়ী এমনি মন্তব্যে করে বলেন, গ্রীষ্মের বাতাসে সব ফুল ঝরে যায়, সুর্যের আলো স্লান হয়ে যায়, গ্রীষ্ম হারায় তার সৌন্দর্য।
দ্বিতীয় স্তবক: দ্বিতীয় স্তবকটি, প্রথম স্তবকটির চলমান ধারা। দ্বিতীয় স্তবকে কবি বলেন, গ্রীষ্মের সৌন্দর্যের স্বল্প স্থায়িত্বের কথা, মেঘে ঢাকা পড়া সূর্যের মান আলোর কথা। প্রাকৃতিক নিয়মেই এমন হয়, কবি বলেন।
তৃতীয় স্তবক: প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সব, একদিন ফুরিয়ে যাবে, ঝরে যাবে; প্রকৃতির রীতিই এমন। কিন্তু তাঁর বন্ধুর রূপ কোনোদিন বদলে যাবে না, ফুরিয়ে যাবে না। চির অমলিন থাকবে। জীবনে মরণে একই থাকবে।
শেষ স্তবক: যত দিন মানুষ বেঁচে থাকবে, যতদিন মানুষের দৃষ্টি থাকবে, যতদিন কবিতা অমর থাকবে, ততদিন কবির বন্ধুর রূপও থাকবে অম্লান।

সারাংশ ও আলোচনা
উইলিয়াম শেক্সপিয়রের ১৫৪ টি সনেটের মধ্যে এটি ১৮তম সনেটজনৈক তরুণের সৌন্দর্য বর্ণনা (apostrophe) সনেটটির প্রধান প্রতিপাদ্য বিষয়। গ্রীষ্ম দিনের উজ্জ্বল রৌদ্রকরের সঙ্গে উপমা দিয়েই অজ্ঞাত যুবকটির সৌন্দর্য বর্ণনা শুরু করেন কবি (metaphor), সহসাই তা শুধরে নিয়ে, অজ্ঞাত যুবকটির রূপ বর্ণনা করে অনেক চিত্র-কল্প (image) ব্যবহার করে যুবকটির সৌন্দর্যের স্থায়িত্ব বর্ণনা করেন। দ্বিতীয় স্তবকে তারই প্রলম্বন করে কবি দেখান, তাঁর বন্ধুর সৌন্দর্য অক্ষয়, গ্রীষ্ম দিনের ক্ষণস্থায়িত্বের তুলনায়, যুক্তিতে আবেগে সমৃদ্ধ উপমাগুলো কবিতাটিকে আনন্দপূর্ণ, সুখ- পাঠ্য করে তোলে। গ্রীষ্ম দিনের সূর্যের পরিবর্তনশীলতাক্ষণে উজ্জ্বল, ক্ষণে নিষ্প্রভতার উল্লেখ করে, কবি পৃথিবীর সব সৌন্দর্যের ক্ষণস্থায়িত্বের কথা বলেন এবং তাঁর বন্ধুর সৌন্দর্য চিরস্থায়ী, এমনই বুঝান।
Shakespeare-এর ১৮নং সনেটটি তাঁর এক বন্ধুর সৌন্দর্যকে নিয়ে লেখা। এখানে কবি তাঁর বন্ধুর সৌন্দর্য গ্রীষ্মকালীন সৌন্দর্যের সাথে তুলনা করতে গিয়ে বলেছেন যে, তাঁর বন্ধুর সৌন্দর্যকে গ্রীষ্মকালীন সৌন্দর্যের চেয়ে অধিক টেকসই ও কোমল। কারণ গ্রীষ্মের ঝড়ো হাওয়া ফুলের সুন্দর কুঁড়িগুলোকে বিনাশ করে। তাছাড়া গ্রীষ্মের আয়ুষ্কালও কম, সূর্যের তাপও দগ্ধ। মাঝে মাঝে আকাশ কালো মেঘে ঢাকা থাকে। কবি বলেছেন কোনো বস্তুর সৌন্দর্যই দীর্ঘ দিন টিকে থাকে না, হয় প্রাকৃতিক নিয়মে, না হয় দুর্ঘটনায় তা নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু তাঁর বন্ধুর সৌন্দর্য কখনোই ম্লান হবে না। মৃত্যু এসেও কেড়ে নিতে পারবে না তার সৌন্দর্যকে। কারণ কবি এই সনেটের মাধ্যমে তাঁর সৌন্দর্যকে ফুটিয়ে তুলেছেন। যতদিন মানুষ পৃথিবীতে অবস্থান করবে, যতদিন থাকবে দেখার চোখ, ততদিন সে উপভোগ করবে এই সনেটের সৌন্দর্য গাথা। অকৃত্রিম আবেগের শব্দচয়ন দ্বারা কবি তাঁর বন্ধুর ক্ষণস্থায়ী সৌন্দর্যকে চিরস্থায়ী রূপ দান করেছেন এই সনেটে।
তৃতীয় স্তবকে কবি উচ্ছসিত (hyperbole) উচ্চারণে তাঁর বন্ধুর সৌন্দর্যকে মরণজয়ী ঘোষণা করেন। শেষ জোড়া পঙক্তিতে (couplet) কবি দৃঢ়চিত্তে বলেন, যত দিন পৃথিবীতে মানব জীবনের স্থায়িত্ব তত দিন স্থায়ী হবে তার বন্ধুর সৌন্দর্য। গীতিময়তা সনেটটির সব পঙক্তিতে এবং সম্পূর্ণ কবিতাটিব্যাপী অক্ষুন্ন থাকে, সনেটের গীতিময়তার বৈশিষ্ট্যে উজ্জ্বল থাকে। প্রতি পঙক্তির প্রতি পদে (foot) শ্বাসাঘাত (accented) ও শ্বাসাঘাতহীনতা (unaccented) ব্যাকরণ সিদ্ধভাবেই ব্যবহৃত হয়, অন্ত ছন্দগুলোও থাকে একইভাবে গীতিময়, সুরেলা। abab cdcd efef gg ছন্দ বিন্যাসে সনেটটি গীতিময়তা সমৃদ্ধ হয়। প্রচলিত প্রথানুসারে, সনেট চতুর্দশপদীই হয়, প্রতিপদে এক একটি iamb (শ্বাসাঘাতপ্রাপ্ত) syllable এর পর শ্বাসাঘাতহীন syllable হয়। সনেটের জনক পেত্রার্কের সনেটও ছিল চতুর্দশপদী, এলিযাবেথান যুগের ইংরেজ কবিরা এ ধারায়ই সনেট রচনা করেন, শেক্সপিয়রও তার ব্যতিক্রম ছিলেন না, কিন্তু ছন্দ প্রকরণে তিনি কিছুটা ব্যতিক্রম ছিলেন। পেত্রার্কান ছন্দ বিন্যাস ছিল : abba abba cde cde আর শেক্সপিয়রের ছন্দ বিন্যাসে ছিল: abab cdcd efef ggতা ছাড়া, পোর্কের সনেটের প্রতি পঙক্তি ছিল hendcasyllabic (এগারো syllable বিশিষ্ট) আর শেক্সপিয়রের প্রতি পঙক্তি ছিল decasyllablic (দশ syllable বিশিষ্ট)।

No comments:

Post a Comment

Trending

Ads