Saturday, January 5, 2019

King Oedipus - Bangla translation - Part - 10 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ - পর্ব ১০

jocasta's offerings
King Oedipus - Bangla translation - Part - 10 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ -  পর্ব ১০



পর্ব ১ এ যান 

পর্ব ৯ 

King Oedipus - Bangla translation - Part - 10 - রাজা ঈডিপাস বাংলা অনুবাদ -  পর্ব ১০ পর্ব ১০ শুরুঃ 
[অলিভ বৃক্ষের শাখা, মালা ও সুগন্ধি নিয়ে দ্রব্য হাতে প্রাসাদ হতে বেরিয়ে এলেন রানী জোকাস্তা]
জোকাস্তা : সভাসদবৃন্দ, আমি অলিভ বৃক্ষের শাখা এবং সুগন্ধিদ্রব্যসহ দেবতাদের মন্দির গুলোতে ঘুরে ঘুরে পূজা দেওয়ার বিষয় চিন্তা করেছি। কারণ ঈডিপাসের অন্তঃকরণ অপসারণের অযোগ্য এক ভয়াল আশঙ্কায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে। সে প্রায়ই ভীতিপূর্ণ স্বরে উত্তেজিত হয়ে কথাবার্তা বলছে। সহজ ও শান্তভাবে কোন কিছুই বিচার বিশ্লেষণ করতে পারছে না। আমি আমার পরামর্শ দ্বারা আমার স্বামীর কোন উপকার সাধন করতে পারিনি, যার কারণে, হে উজ্জল প্রভার দেবতা অ্যাপোলো, তোমার সমীপে হাজির হয়েছিআমার শুধু এটাই থাকুক আবেদন যে, ভয়াল এই শঙ্কার কবল থেকে আমাদের রক্ষা করো। নাবিকদের অসুস্থ ক্যাপ্টেনকে দেখে যাত্রীরা যেমন ভীত হয়, ঈডিপাসের এ অবস্থা দর্শন করে আমরা সেরূপ রীতিমতো ভীত সন্ত্রস্ত
[রানী তার পূজার নৈবেদ্য দেবতার বেদিতে রাখলেন]
[করিন্থ থেকে একজন সংবাদবাহকের প্রবেশ]
সংবাদবাহক : একজন বিদেশী আপনাদের সহায়তা কামনা করছে। আমি রাজা ঈডিপাসের প্রাসাদ খুঁজছি, আপনারা কি সন্ধান দেবেন, তিনি এখন কোথায়? সেখানে কি নিয়ে যাবেন আমাকে?
কোরাসগায়ক : মহোদয়, এটাই তার প্রাসাদ, তিনি নিজেও প্রাসাদের ভেতরেই আছেন আর এই রমণী হলেন তার স্ত্রী ও তার সন্তান-সন্ততির মাতা।
সংবাদবাহক : ওনার সমৃদ্ধি কামনা করছি, পুরো প্রাসাদেরও সমৃদ্ধি কামনা করছি, সমৃদ্ধি কামনা করি ওনার পরিবারবর্গের।
জোকাস্তা : মহোদয়, আপনারও মঙ্গল কামনা করছি, ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি আপনার বিনয়ের জন্য। আপনি কি কোন অনুরোধ কিংবা কোন সংবাদ বহন করে এনেছেন?
সংবাদবাহক : মাননীয়া, আপনার স্বামী ও আপনার পরিবারবর্গের জন্য সুসংবাদ আছে।
জোকাস্তা : কোথা থেকে এসেছে, কী সেই সংবাদ?
সংবাদবাহক : করিন্থ থেকে এসেছে, সংবাদ শুনে আনন্দিত হবেন, আবার ব্যথিতও হবেন।
জোকাস্তা : কী-সেই সংবাদ যার একই সাথে আনন্দ আর বেদনাদানের ক্ষমতা আছে?
সংবাদবাহক : আমাদের জনগণ আলোচনা করছে তারা রাজা ঈডিপাসকে সথমাসের রাজা হিসেবে বরণ করবে।
জোকাস্তা : রাজা পলিবাস কি তাহলে আর বেশি দিন বাঁচবেন না?
সংবাদবাহক : মাননীয়া, রাজা পলিবাস এখন মৃত এবং কবরে শায়িত
জোকাস্তা : সেকি? ঈডিপাসের পিতা পলিবাস মৃত?
সংবাদবাহক : হ্যা, মাননীয়া, আমি আমার জীবন বাজী রেখে বলছি।
জোকাস্তা : (সহচরীদের উদ্দেশে) সহচরীরা আমার, দ্রুত তোমাদের প্রভুর কাছে যাও, গিয়ে তাকে জানাও। (সহচরীরা চলে যায়) কোথায় দেবতাদের দৈববাণীর সত্যতা! ইনিই সেই পলিবাস যাকে ঈডিপাস হত্যা করতে পারে ভেবে ভীতির মাঝে অবস্থান করেছে সর্বদা। এখন তো তিনি স্বাভাবিকভাবেই মৃত্যুমুখে পতিত হয়েছেন। ঈডিপাসের হাতে তিনি নিহত হননি।
[ঈডিপাসের প্রবেশ]
ঈডিপাস : প্রিয়তমা জোকাস্তা আমার। তুমি আমায় আবার কেন ডেকে পাঠিয়েছ?
জোকাস্তা : এই লোকটির কাছে সংবাদ শোনো এবং সংবাদ শোনার পর বলবে দেবতাদের দৈববাণীর কথা।
ঈডিপাস : এই লোকটি কে? কী সংবাদ সে নিয়ে এসেছে এ আমার জন্য?
জোকাস্তা : উনি করিন্থ থেকে এসেছেন, তোমার পিতা পলিবাস মৃত মৃত!
ঈডিপাস : সেকি, মহোদয়? আপনি নিজ মুখে বলুন
সংবাদবাহক : আমি নিশ্চয়তা দিচ্ছি, মহাত্মন-অন্যান্য মরণশীল মানবের মতোই তিনি ইহলোক ত্যাগ করেছেন।
ঈডিপাস : তিনি কি খুন হয়েছেন নাকি কোন রোগব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন?
সংবাদবাহক : বেশি বয়স হলে সামান্য ব্যাধিতেই মানুষের মৃত্যু ঘটে যায়।
ঈডিপাস : তাহলে তোমার মতে, অসহায় বৃদ্ধ মানুষটার ব্যাধিতেই মৃত্যু ঘটেছে।
সংবাদবাহক : সেটাই, আর তার জীবনকালও তো শেষ হয়ে এসেছিল।
ঈডিপাস : ঠিক আছে, ঠিক আছে। প্রিয়তমা পত্নী আমার, আর কোন মানুষ যেন পিথিয়ার সেই দৈব জ্যোতিষীর কাছে গমন না করে কিংবা কোন দৈববাণীতে যেন বিশ্বাস স্থাপন না করে। এই দৈববাণী একদা প্রচার করেছিল আমি নাকি আমার পিতাকে হত্যা করব, আর এটাই আমার নিয়তি কিন্তু আজ তিনি স্বাভাবিকভাবেই মৃত্যুমুখে পতিত হয়ে কবরে শায়িত আছেন। আমি তার শরীরে কোন আঘাত করিনি। তিনি যদি আমার বিচ্ছেদ ব্যথায় ব্যথিত হয়ে মৃত্যুবরণ করে থাকেন সেটা অন্য ব্যাপার, সেক্ষেত্রে পরোক্ষভাবে আমি তার মৃত্যুর কারণ হতে পারি, যা হোক, দৈববাণী যেটাই প্রচার করুক, মোট কথা রাজা পলিবাস এখন মৃত, অতএব দৈববাণীকে ভয়ের কিছু নেই।
জোকাস্তা : আমি কি তোমাকে এটা পূর্বেই বলিনি?
ঈডিপাস : তা বলেছিলে বটে, কিন্তু ভীতির কারণে সেটা গ্রহণ করতে পারিনি।
জোকাস্তা : এটা নিয়ে আর কোনো চিন্তা কোরো না।
ঈডিপাস : আরো একটি ভীতি এখন আছে, আমার মাতা
জোকাস্তা : ভীতি? যে ভাগ্যের বিধান সত্যি বলে পরিগণিত হয় না তাকে কেন মানুষ ভয় করবে? এর চেয়ে ভালো মানুষের উচ্ছৃংখল জীবন যাপন করা। মাতার সাথে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার বিষয় নিয়ে এতটা ভেবো না। এ বিষয়টি অনেকে স্বপ্নের মাঝে অবলোকন করে। কিন্তু যারা এসব বিষয় মনের মাঝে ঠাই দেয় না তারাই সুখে কালাতিপাত করে।
ঈডিপাস : তোমার যুক্তিপূর্ণ কথায় বল পাচ্ছি, কিন্তু আমার মাতা তো মারা যাননি, তিনি এখনো জীবিত, পুরোপুরিই জীবিত। অতএব, তুমি যা-ই বলো না কেন, আমার ভেতর থেকে ভয় দূর হচ্ছে না।
জোকাস্তা : মোট কথা, তোমার পিতার মৃত্যুতে আমাদের উৎফুল্ল হওয়ার কারণ আছে।
ঈডিপাস : মানলাম; কিন্তু আমার মাতা তো জীবিত, আমি এখনো নিরাপদ নই।

পরের পর্বে যান 


No comments:

Post a Comment

Trending