Total Pageviews

Sunday, May 10, 2020

A Doll's House - Henrik Ibsen – Summary in bengali

A Doll's House - Henrik Ibsen – Summary in bengali

A Doll's House - Henrik Johan IbsenSummary in bengali
A Doll’s House নাটকটির ঘটনা বড়দিনের প্রাক্কালে সংগঠিত। নাটকের নায়িকা নোরা হেলমার (Nora Helmer) হাতে কয়েকটি জিনিসের প্যাকেট নিয়ে, সুন্দর ভাবে সাজানো গোছানো লিভিং রুমে প্রবেশ করে। নোরার স্বামী টোরভ্যাল্ড হেলমার (Torvald Helmer) তার আগমনের কথা শুনে পড়ার ঘর থেকে বের হয়ে আসে। তারা খেলাচ্ছলে আদুরে ভঙ্গিতে সাক্ষাৎ করে কিন্তু যখন সে বড়দিন উপলক্ষে উপহার কেনার জন্যে তার একটু অতিরিক্ত খরচের ব্যাপারে জানতে পারে, তখন তাঁকে তিরস্কার করে। তাদের কথাবার্তা শুনে বোঝা যায়, টোরভ্যাল্ড দীর্ঘদিন ধরেই অর্থের ব্যপারে খুবই হিসেবি। টোরভ্যাল্ড অতি সম্প্রতি ব্যাঙ্কে ম্যানেজারের পদ লাভ করেছে কিন্তু এখনো দায়িত্ব পুরোপুরি বুঝে নেয়নি।
তাদের ঘরের পরিচারিকা হেলেন (Helene) তখন তাদের জানায় তাদের পারিবারিক বন্ধু ডাক্তার ্যাঙ্ক (Dr. Rank) তাদের বাসায় এসেছে। একই সময়ে আরো একজন অপরিচিত অতিথি তাদের বাসায় আসে। প্রথমে নোরা তাঁকে ভালো ভাবে চিনতে পারেনি। সে ছিল নোরার স্কুলের বান্ধবী ক্রিস্টিন লিন্ডে (Kristine Linde) দুজনের মাঝে দেখা নেই, প্রায় বছর দশেক হয়েছে। লিন্ডে জানায় তার স্বামী কয়েক বছর আগে মারা গিয়েছে। সে কোন অর্থ-কড়ি বা সন্তান কিছুই রেখে যায়নি। নোরা জানায় তার স্বামীর মৃত্যুর খবর পত্রিকায় পড়েছিল কিন্তু ব্যস্ততার কারনে তাঁকে চিঠি লিখতে পারেনি।
এবার নোরা তার বিবাহিত জীবনের শুরুর কষ্টের কথা বলে। সে সময় তার স্বামী টোরভ্যাল্ড এর তেমন টাকা পয়সা ছিল না। অর্থ জোগাতে তারা দুজনেই কাজ করত। একসময় টোরভ্যাল্ড অসুস্থ হয়ে যায় এবং সুস্থ হওয়ার জন্যে তারা দুজনেই ইটালিতে পারি জমায়।
নোরা এবার লিন্ডের জীবন সম্পর্কে জানতে চাইলে সে জানায় তার স্বামীর মৃত্যুর পর তার ছোট ছোট ভাই বৃদ্ধা মায়ের দেখাশোনা করতে হয়। তার মা এখন মারা গিয়েছে আর ভাইয়েরাও বড় হয়ে গেছে। এখন আর তাঁকে দরকার নেই। তার কাছে সব কিছুই এখন শূন্য লাগে।  তার এখন কোন চাকরিও নেই। সে আশা করেছে টোরভ্যাল্ড হয়তো তাঁকে একটি চাকরি জুগিয়ে দিতে পারবে। নোরা তাঁকে কথা দেয় সে টোরভ্যাল্ডকে বলে একটি চাকরির ব্যবস্থা করার সর্বাত্বক চেষ্টা করবে। এপর্যায়ে সে নোরাকে একটা গোপন কথা বলে ফেলে। আর সেটা হল, টোরভ্যাল্ড যখন অসুস্থ হয়েছিল, নোরা তাঁকে সুস্থ করার অভিপ্রায়ে ইটালিতে নিয়ে যাওয়ার জন্যে তখন অবৈধ ভাবে কিছু ক্রোনার ধার করেছিল। সে টোরভ্যাল্ডকে বলেছিল, এই টাকা তার বাবা ধার দিয়েছে।
জামানতের ফর্মে তার বাবার সই জাল করে এই ক্রোনার ধার করেছিল নোরা। কয়েক বছর ধরে সে এই ঋণ পরিশোধ করে যাচ্ছে। খুব শীঘ্রই তা শোধ হয়ে যাবে।
ক্রোগস্ট্যাড (Krogstad) নামে টোরভ্যাল্ড এর অফিসের একজন নিচু স্তরের কর্মচারী সে সময় তাদের বাসায় উপস্থিত হল এবং টোরভ্যাল্ড পড়ার ঘরে আছে শুনে সরাসরি সেখানে চলে গেল। ক্রোগস্ট্যাড এর উপস্থিতিতে নোরা কেমন যেন উৎকণ্ঠিত আচরণ করল এবং এই সময় সেখান থেকে ডাক্তার ্যাঙ্ক বের হয়ে এলেন তাদেরকে জানালেন ক্রোগস্ট্যাড আসলে নৈতিকভাবে অসুস্থ একজন মানুষ।
টোরভ্যাল্ড তার সাথে কথা শেষ করে পড়ার ঘর থেকে বের হয়ে এলে নোরা তাঁকে লিন্ডের অবস্থাটা জানায় তার জন্যে একটি চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে বলে। টোরভ্যাল্ড তাঁকে আশা দেয় সম্ভবত ক্রোগস্ট্যাডকে ছাটাইয়ের পর তার পদটি সে লিন্ডেকেই দিতে পারবে। নোরাকে একা রেখে ডাক্তার ্যাঙ্ক, লিন্ডে টোরভ্যাল্ড যার যার কাজে চলে যায়। নোরা তখন তার তিন সন্তান বব, অ্যামি আইভার (Bob, Emmy, and Ivar) এবং তাদের দেখাশোনাকারী মহিলা অ্যান মেরির (Anne-Marie) কাছে যায়। হঠাৎ করেই সেখানে ক্রোগস্ট্যাড উপস্থিত হয়। তাদের কথা থেকে জানা যায় নোরা আসলে গোপনে ক্রোগস্ট্যাড এর কাছ থেকেই ঋণ নিয়েছিল।
ক্রোগস্ট্যাড জানায় জনাব টোরভ্যাল্ড তাঁকে তার কোন একটি অপরাধের জন্যে চাকরি থেকে ছাটাই করবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সে নোরার কাছে দাবি জানায় যেভাবেই হোক সে যেন তার স্বামীকে বলে তা ঠেকায়। নোরা অস্বীকৃতি জানালে ক্রোগস্ট্যাড প্রমানসহ একটি বিষয় উল্লেখ করে। আর তা হল নোরা জামানতের ফর্মে তার বাবার সই জাল করে এবং সই এর নিচে যে তারিখ দেয়া ছিল তা ছিল তার বাবার মৃত্যুর তিন দিন পরের। ক্রোগস্ট্যাড তাঁকে জানায় যদি সে তার স্বামী সম্মান নিয়ে বাচতে চায় তবে যেভাবেই হোক সে যেন তার চাকরি বাচায় আর তা না হলে সে আইনের আশ্রয় নিবে। ক্রোগস্ট্যাড আরো জানায় সে আসলে ভালো হয়ে যেতে চায়। সর্বশেষ দেড় বছরে সে কোন অনৈতিক কাজ করেনি। তাঁকে যদি এইবার সুযোগ দেয়া হয় তবে সে চিরতবে ভালো হয়ে যাবে। তাঁকে যদি সুযোগ দেয়া হয় তাহলে সে টোরভ্যাল্ড এর ডানহাত হয়ে কাজ করবে এবং টোরভ্যাল্ড এর অফিস পরিচালনায় কোন বেগ পেতে হবে না।
বাধ্য হয়ে নোরা তার স্বামীকে ক্রোগস্ট্যাড এর চাকরি বহাল রাখার ব্যপারে পিড়াপিড়ি করলেও কোন কাজ হয় না। শেষে নোরা উল্লেখ করে যে ক্রোগস্ট্যাড একজন অত্যন্ত নীচ শ্রেণির মানুষ, সে টোরভ্যাল্ড এর নামে যে কোন অপপ্রচার চালিয়ে ক্ষতি করতে পারে। কিন্তু টোরভ্যাল্ড তার সিদ্ধান্তের উপরেই অটল থাকে।
২য় অঙ্ক শুরু হয়, সেদিন ছিল বড় দিন। নোরা তার উৎকণ্ঠিত ভাবে লিভিং রুমের দিকে যাচ্ছিল। তার বান্ধবী লিন্ডে নোরার বড়দিনের উৎসবের পোষাকটি সেলাই করার জন্যে তার বাসায় এলো। কারন সন্ধ্যায় প্রতিবেশির বাসায় অনুষ্ঠান আছে। নোরা জানালো ডাক্তার ্যাঙ্কের একটা অসুখ আছে, যা তার বাবার থেকে উত্তরাধিকারসূত্রে লাভ করেছে। লিন্ডে ধারণা করল নোরাকে সম্ভবত ডাক্তার ্যাঙ্কই ধার দিয়েছে। সময় সেখানে টোরভ্যাল্ড উপস্থিত হলে নোরা আবার তাঁকে ক্রোগস্ট্যাড এর চাকরির ব্যপারে পিড়াপিড়ি করল। টোরভ্যাল্ড জানালো যে ক্রোগস্ট্যাড আসলে একজন নীচ শ্রেণির লোক এবং সে তার ছোটবেলার বন্ধু। তাই অফিসে সে তার সাথে বন্ধুসুলভ আচার ব্যবহার করবে। এতে করে অন্য কর্মচারীদের কাছে তার সম্মানটা বজায় থাকবে না, যা খুবই লজ্জাজনক। দুজনের কথার এক পর্যায়ে টোরভ্যাল্ড তার চাকরি বাতিলের চিঠিটি পাঠিয়ে দেয়।
টোরভ্যাল্ড চলে গেলে ডাক্তার ্যাঙ্ক সেখানে উপস্থিত হয়। সে তাঁকে জানায় সে মৃত্যুর খুব কাছাকাছি চলে এসেছে। ডাক্তার ্যাঙ্ক নোরাকে তার ভালোবাসার কথা জানায়। সে আরো জানায় সে তার কাছে যা চাইবে তাই সে দেয়ার চেষ্টা করবে। নোরা তার কাছে কিছু চাইতে অস্বীকৃতি জানায়।
ডাক্তার ্যাঙ্ক চলে গেলে সেখানে ক্রোগস্ট্যাড উপস্থিত হয়। নোরা তাঁকে জানায় তার চাকরি বাচানোর জন্যে সে তার সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছিল। ক্রোগস্ট্যাড বিশ্বাস করে না। ক্রোগস্ট্যাড এবার নতুন করে হুমকি দেয়। তাঁকে আরো বড় পদে দিতে হবে নাহলে সে এবার আইনের আশ্রয় নিবে। সকল ঘটনা জানিয়ে সে বাসার চিঠির বক্সে একটি চিঠি ফেলে যায়। ভয়ে নোরা সকল ঘটনা লিন্ডের কাছে স্বীকার করে। লিন্ডে তাঁকে জানায় সে ক্রোগস্ট্যাড এর সাথে কথা বলতে যাবে। এই সময় যেন নোরা টোরভ্যাল্ড কে চিঠি পড়া থেকে বিরত রাখে। টোরভ্যাল্ডকে নিয়ে সে ট্যারানটেলা নাচের অনুশীলনের চেষ্টা করে এবং টোরভ্যাল্ডের কাছে একেবারেই বিরক্তিকর মনে হয় কারন প্রচন্ড মানসিক অশান্তির কারণে নোরা অসংলগ্নভাবে নাচতেছিল। লিন্ডে ফিরে আসে তাঁকে জানায় সে বাসায় ছিল না এবং পড়ের দিন সন্ধ্যায় তারা দেখা করবে।
পরের দিন সন্ধ্যায় যখন তাদের বাসায় বড়দিনের অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে, ক্রোগস্ট্যাড লিন্ডে সেখানে দেখা করে। তাদের কথা থেকে জানা যায় তারা এক সময় একে অপরকে পছন্দ করত। বৃদ্ধা মা ছোট ছোট দুই ভাইয়ের খরচ যোগাড়ের জন্যে বাধ্য হয়ে লিন্ডে একজন ধনী মানুষকে বিয়ে করে। এখন তার মা স্বামী মারা গিয়েছে এবং ভাইয়েরাও বড় হয়ে গেছে, তাই তার পারিবারিক বাধ্যবাধকতা আর নেই। ক্রোগস্ট্যাড চাইলে তাঁকে সে তাঁকে বিয়ে করবে এবং এতে করে সে ক্রোগস্ট্যাড এর সন্তানদের দেখাশোনা করতে পারবে। এটা শুনে ক্রোগস্ট্যাড খুবই খুশি হয় এবং তাঁকে জানায় সে তার চিঠি এখনি ফেরত নিয়ে আসবে। লিন্ডে তাঁকে বলে এটা করার দরকার নেই চিঠি যেখানে আছে সেখানেই থাক। এতে করে নোরা তার স্বামী - দুই জনের অবস্থান একে অপরের কাছে পরিষ্কার হয়ে যাবে।
হেলমারের বাড়িতে অনুষ্ঠান থেকে নোরা টোরভ্যাল্ড হেলমার আলাদা হয়ে আরেকটি কক্ষে আসে। লিন্ডে ডাক্তার ্যাঙ্ক তাদের কাছ থেকে বিদায় নেয়। টোরভ্যাল্ড তার চিঠির বাক্সটি খোলে এবং ডাক্তার ্যাঙ্কের কালো রঙের একটি কার্ড পায়, যা থেকে বুঝতে পারে সে খুব শিঘ্রই মারা যাবে। টোরভ্যাল্ড তখন ক্রোগস্ট্যাড এর চিঠি পড়ে মারাত্বকভাবে রেগে যায়। নোরাকে সে একজন ভন্ড, প্রতারক মিথ্যাবাদী আখ্যা দেয়। সে তার জীবনের সকল শান্তি নষ্ট করেছে বলে দাবী করে। তাঁকে আর তার সন্তানদের দেখাশোনা করতে দেয়া হবে না বলে জানায়। এতে করে তার সন্তানরাও তার মত ভন্ড মিথ্যাবাদী হিসেবে গড়ে উঠবে।
হেলেন সে সময় ক্রোগস্ট্যাড এর আর একটি চিঠি নিয়ে আসে। সেখানে সে নোরার পিতার জাল সইকৃত জামানতের কাগজটি পাঠিয়ে দিয়েছে। সেটা দেখে টোরভ্যাল্ড মারাত্বকভাবে খুশি হয় এবং নোরাকে জানায় সে তাঁকে ক্ষমা করে দিয়েছে। কিন্তু তার আগের কথা গুলো নোরার মনে মারাত্বকভাবে প্রভাব ফেলে। সে নতুনভাবে চিন্তা করতে শুরু করে। সে বুঝতে পারে একসময় সে তার পিতার হাতের পুতুল ছিল। এখন সে তার স্বামীর হাতের পুতুল। তারা তাঁকে নিয়ে যেভাবে খুশি খেলতে পারে। খেলতে খেলতে ভালো না লাগলে তাঁকে যে কোন সময় ছুঁড়ে ফেলে দিতে পারে। সে তাঁকে জানায় তাদের আট বছরের বিবাহিত জীবনে তারা একে অপরকে একেবারেই বুঝতে পারেনি। তার নিজেকে তার আশে পাশের সব কিছু তাঁকে বুঝতে হবে বলে সে বাড়ি থেকে কিছু পোষাক নিয়ে বের হয়ে যায়।

No comments:

Post a Comment