Search This Blog

Total Pageviews

Tuesday, January 24, 2017

তিন ছাগল ছানার গল্প



এক মায়ের তিন সন্তান ছিল।একদিন এই তিন ভাই মিলে তাদের মাকে বলল,"আমরা এখন বড় হয়েছি, তাই ঠিক করেছি আমরা নিজেরা যার যার আলাদা বাড়ি বানিয়ে সেখানে বাস করব"




মা বললেন ঠিক আছে, তবে তোমরা বাইরে ঘোরাঘুরির সময় একটু সাবধানে থেকো, যেন নেকড়ে বাঘের নজরে পড়ো না, নেকড়েবাঘের আবার ছাগলের বাচ্চা খাওয়ার খুব লোভ"
তিন ছাগল ছানা সেজেগুজে মায়ের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে আল্লাহর নাম নিয়ে রওয়ানা দিলো। যেতে যেতে পথে দেখলো, একজন লোক এক বোঝা খড় বহন করে নিয়ে যাচ্ছে। বড় ছাগলছানা ভাবলো আমি এই খড় দিয়েই ঘর তুলব। সে তাই করলো। খড় জোগার করে সেখানে ছোট্ট একটা ঘর বানিয়ে আস করতে লাগলো।
মেঝ ভাই ও ছোট ভাইও পথ চলতে লাগল। চলতে চলতে তারা একজন কৃষকের দেখা পেলো। যে একবোঝা লাঠি নিয়ে যাচ্ছিলো। মেঝো ছাগল ছানাটি স্থির করলো সে এই লাঠি দিয়েই মজবুত করেই ঘর বানাবে। সে তাই করল এবং এই লাঠির ঘরেই বাস করতে লাগল।
ছোট ছানাটি হাটতে হাটতে আরো দূরে চলে এলো। সে এখানে দেখতে পেলো একজন লোক একটি ঠেলা গাড়িতে লাল রঙের ইট নিয়ে যাচ্ছে। সে ভাবলো  এই লাল রঙের ইট দিয়ে ঘর বানালে তা অনেক মজবুত হবে।  তাই সে লাল রঙের ইট দিয়ে অনেক সুন্দর ও মজবুত  একটি বাড়ি বানিয়ে সেখানেই আস করতে লাগল।
এদিকে নেকড়ে বাঘ কিন্তু জংলের আড়াল থেকে সবই লক্ষ্য করেছে। তাই সে এক রাতে প্রথমে বড় ভাই এর ঘরে গিয়ে ডেকে  বলল, " ছাগলছানা আমাকে ভিতরে আসতে দাও"


কিন্তু ছাগলছানার তখন তার মায়ের নির্দেশ মনে পড়লো। সে বলল, " আমার ঘরের দরজা অনেক ছোট,  তাই তোমাকে ভিতরে ঢুকতে দেয়া যাবে না।"
তখন নেকড়ে  নেকড়ে রেগে গিয়ে বলল, তখন নেকড়ে রেগে গিয়ে বলল, আমি তোর ঘর ভেংগে ফেলবো। নেকরে মাথা দিয়ে গুতো দিয়ে সত্যিই ঘর ভাংতে শুরু করলো। ছাগলছানা পেছন দিয়ে  বের হয়ে দৌড়ে গিয়ে তার মেঝো ভাই এর ঘড় এ গিয়ে আশ্রয় নিলো।
পরদিন রাতে নেকড়ে আবার  এলো তাদের মেঝো ভাই এর বাসায়। দরজার সামনে দাঁড়িয়ে তাকে ডাকতে শুরু করলো। মেঝো ছাগল ছানা বললো , আমার ঘরটি খুব ছোট্ট, এখানে তোমার জায়গা হবে না, তাই তুমি ঢুকতে পারবে না

নেকরে রেগে গিয়ে এই ঘরও ভাঙ্গতে শুরু করলো। দুই ভাই পেছন দিয়ে বের হয়ে এক দৌড়ে গিয়ে ছোট্ট ভাই এর ইটের ঘরে আশ্রয় নিলো। কিন্তু নেকরেও নাছোড়বান্দা ।এতো সহজে সে ছাড়বে না ।তাই সে পরদিন রাত এ আবার এলো। দরজার বাইরে দারীয়ে হূংকার ছেড়ে বললো, এ ঘরও আমি ভেঙ্গে ফেলবো। কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও সে ইটের গাথুনি ভাংতে পারলো না। তখন বললো, ঠিক আছে, আমি চিমনির ভিতর দিয়ে আসছি

 এ কথা শুনে তিন ছাগলছানা মিলে বুদ্ধি করলো, ডেকচির মাঝে গরম পানি ঢেলে দিবে, আর চিমনির নিচে সেই পানি রেখে দিবে। এরপর নিজেরা গিয়ে ঘরের এক কোনায় লুকিয়ে রইলো।যেই ভাবা সেই কাজ।
নেকড়ে বীর দর্পে ঘরের ছাদে উঠলো , তারপর চিমনি বেয়ে নেমে এসে ঝপাৎ করে মুখ থুবড়ে ফুটন্ত পানিতে পরে গেলো,  তারপর ছট ফট করতে করতে মারা গেল।

এভাবেই উপস্থিত বুদ্ধির জোরে তিন ছাগলছানা বেচে গেল।

No comments:

Post a Comment

Popular Posts