Total Pageviews

Wednesday, June 17, 2020

The Sun Also Rises - Earnest Hemingway – Summary (Bangla)

The Sun Also Rises - E. Hemingway – Summary (Bangla)
The Sun Also Rises - E. HemingwaySummary (Bangla)

উপন্যাসের শুরুতে এর প্রধান চরিত্র এবং বর্ণনাকারী জেইক বার্নেস (Jack Barnes) তার বন্ধু রবার্ট কনের (Robert Cohn) জীবন সম্পর্কে একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনা তুলে ধরে  কন এবং জেইক দুজনেই আমেরিকান প্রবাসী যারা ফ্রান্সের প্যারিসে থাকেন জেইক প্রথম বিশ্বযুদ্ধে যুদ্ধ করেছেন এবং বর্তমানে প্যারিসে একজন সাংবাদিক হিসেবে কাজ করছেন রবার্ট কন প্রথম বিশ্বযুদ্ধে যুদ্ধ করেননি, তিনি একজন ধনী ইহুদি লেখক যিনি প্যারিসে তার সুবিধাবাদী স্বভাবের বান্ধবী  ফ্রান্সিস ক্লেইনের (Frances Clyne) সাথে থাকেন যিনি কনকে বিভিন্নভাবে use করেন একদিন বিকেলে কন জেইকের অফিসে যান এবং তাকে নিজের সাথে দক্ষিন আমেরিকাতে বেড়াতে যাওয়ার জন্য রাজি করানোর চেষ্টা করেন। জেইক রাজি হন না এবং অনেক কষ্টে তার থেকে মুক্ত হন। ঐদিন রাতে একটা ড্যান্স ক্লাবে লেডি ব্রেট এসলির (Lady Brett Ashley) সাথে জেইকের দেখা হয়। ব্রেট একজন তালাকপ্রাপ্ত মহিলা তাকে জেইক অনেক ভালবাসেন ব্রেট স্বাধীন এবং ভোলা মনের একজন মহিলা কিন্তু কিছু সময় তিনি খুব স্বার্থপরের মতো আচরণ করেন। তার এবং জেইকের পরিচয় হয় ইংল্যান্ডে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় যুদ্ধে আহত হওয়া জেইকের সেবা করেছিলেন তখন ব্রেট রেট এবং জেইকের কথায় বোঝা যায়,
সময় পাওয়া চোটের কারণেই পরে জেইক impotent [যৌনক্ষমতা না থাকা] হয়ে যায়। যদিও ব্রেট জেইককে ভালোবাসেন কিন্তু নপুংসক হওয়ার কারণে তাকে বিয়ে করা বা তার সাথে কোনো স্থায়ী সম্পর্কে জড়াতে চান না।
পরের দিন জেইক এবং কন একসাথে দুপুরের খাবার গ্রহন করে কনও ব্রেটকে পছন্দ করেন এবং তিনি একটু রেগে আন যখন জেইক বলেন ব্রেট মাইক ক্যাম্পবেল (Mike Campbell) নামের একজন স্কটিশ (Scottish) war veteraran-কে [এখানে war veteranযুদ্ধ সম্পর্কে অভিজ্ঞ] বিয়ে করার চিন্তা করছেন।
সেইদিন বিকেলে ব্রেট এবং জেইক একসাথে কিছুটা সময় কাটান এবং রাতে তার বন্ধু একজন গ্রীক প্রবাসী, কাউন্ট মিপপিপোলোলাসের (Count Mippipopolous) সাথে অপ্রত্যাশিতভাবে জেইকের ঘরে যান। কাউন্টকে শ্যাম্পেইন (champagne) আনতে পাঠানোর পর জেইক ব্রেটকে একসাথে থাকার প্রস্তাব করে কিন্তু ব্রেট রাজি হন না কারণ জেইক নপুংসক (impotent) আর তাই ব্রেট তার প্রতি বিশ্বস্থ থাকতে পারবেন না ব্রেট তার যৌন স্বাধীনতা ছাড়তে রাজি ছিলেন না, তিনি জেইককে জানান পরেরদিন তিনি স্পেন এর স্যান সেবাস্তিয়ান (San Sebastian) যাচ্ছেন।
কয়েক সপ্তাহ পরে, যখন ব্রেট এবং রবার্ট কন দুজনেই প্যারিসের বাইরে আছেন, বিল গর্টন (Bill Gorton) নামের জেইকের এক বন্ধু প্যারিসে আসেন বিল গর্টন একজন আমেরিকান যুদ্ধাভিজ্ঞ বিল এবং জেইক স্পেনে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেন যেখানে তারা মাছ ধরবেন এবং প্যাম্পলোনা (Pamploa) শহরের fiesta বা festival- অংশগ্রহণ করবেন রবার্ট কন যিনি প্যারিসের বাইরে আছেন তিনিও বিল এবং জেইকের সাথে Pamplona-তে যেতে চান এবং ঠিক করেন Pamplona যাওয়ার পথে রাস্তায় তাদের সাথে যোগ দেবেন। ব্রেট স্যান সেবাস্তিয়ান থেকে ফিরে এসেছেন এবং জেইকের সাথে তার দেখা হয় যখন তার সাথে তার বাগদত্ত (Fiance - ফিয়াসে) মাইকও ছিলেন। তারাও [ব্রেট এবং মাইক] জেইকদের সাথে স্পেনে যেতে চান এবং জেইকও তাদের সাথে নিতে রাজি হন। যখন মাইক কিছুক্ষণের জন্য তাদের থেকে একটু দূরে যান তখন ব্রেট জেইককে বলে যে সে আর রবার্ট কন স্যান সেবাস্তিয়ান- একসাথে ছিলেন
বিল এবং জেইক প্যারিস থেকে ট্রেনে ফ্রান্সের দক্ষিণে বেয়নিতে (Bayonne) যান যেখানে রবার্ট কন তাদের সাথে যোগ দেন এবার জন একসাথে স্পেনের প্যাম্পলোনাতে যান। সেদিন রাতে মাইক এবং ব্রেটের প্যাম্পলোনা আসার কথা ছিলো কিন্তু তারা আসেন না। পরেরদিন বিল এবং জেইক প্যাম্পলোনার পাশের  একটা ছোট শহর বারগুয়েট (Burquete) মাছ ধরার জন্য যান কিন্তু কন তাদের সাথে যায় না। সে প্যাম্পলোনাতেই থেকে যায় এবং ব্রেটদের আসার অপেক্ষা করতে থাকে। বিল এবং জেইক স্পেনের গ্রামীণ এলাকাগুলোতে ঘুরে বেড়ায় এবং গ্রামের একটা সরাইখানাতে থাকার জন্য ওঠেন। তারা ওখানে দিন মাছ শিকার, মদ্যপান করে এবং কার্ড খেলে ফুর্তি করে কাটায় অবশেষে জেইক মাইকের একটা চিঠি পায় যেটাতে লেখা ছিলো মাইক এবং ব্রেট শীঘ্রই প্যাম্পলোনাতে পৌছবেন চিঠি পাওয়ার দিন বিকেলে বিল এবং জেইক প্যাম্পলোনায় ফিরে আসার উদ্দেশ্যে বাসে রওনা হন। প্যাম্পলোনায় আসার পরে বিল এবং জেইক একটা হোটেলে ওঠে যেটার মালিকের নাম মন্টোইয়া (Montoya) মন্টোইয়া একজন স্পেনিশ অভিজ্ঞ বুল ফাইটার এবং জেইকের এই খেলার প্রতি অনেক আগ্রহ থাকায় সে তাকে পছন্দ করেন। জেইক, বিল, কন, মাইক এবং ব্রেট এবার একমত হন এবং তারা একসাথে উৎসবের (fiesta) প্রস্তুতি দেখতে বের হয় তারা ষাড়ের আনা-নেয়া এবং লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত করা দেখে ব্রেট কনের সাথে সম্পর্কে জড়াতে চান না তারপরেও কন ব্রেটের পিছুপিছু থাকেন এটা নিয়ে মাইক কনকে কটাক্ষ করে।

আরো কয়েকদিনের প্রস্তুতি শেষে উৎসব শুরু হয় এবং শহরের মানুষজন নাচানাচি, মদপান এবং বেপরোয়া আনন্দে মেতে ওঠ। Fiesta- প্রথম দিনের আকর্ষণ ছিলো প্রথম ষাড়ের লড়াই  [bullfight] যেখানে পেদ্রো রোমেরো (Pedro Romero) নামের ১৯ বছর বয়সি একজন অসম্ভব প্রতিভাশীল matador [যিনি ষাড়ের লড়াই কবরেন] অংশ নিয়েছিলেন। নিজ প্রতিভায় পেদ্রো রোম্যারো বাকি matador-দের পেছনে ফেলে নিজের অবস্থান ফুটিয়ে তোলেন খেলাটা অনেক ভয়ংকর হওয়া সত্তেও ব্রেট খেলা এবং পেদ্রো রোমেরোর থেকে নিজের সৃষ্টি সরাতে পালন না। কয়েকদিন পরে হোটেল রাতের খাবার খাওয়ার সময় ব্রেট তার পাশে একটা টেবিলে পেদ্রো রোম্যারোকে দেখতে পান এবং জেইককে বলেন তার সাথে রোমেরোর পরিচয় করিয়ে নিতে।
মাইক আবাৱ কনকে বিরক্ত করেন এবং দুজনের মধ্যে রাগারাগি হয় তারপর জেইক এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন। পরে সেদিন রাতে ব্রেট পেদ্রো রোম্যারোকে খুজতে জেকের সাহায্য চান এবং বলে সে পেদ্রো রোম্যারোকে ভালোবেসে ফেলেছে। জেইক সাহায্য করতে রাজী হয়।
জেইক এবার মাইক এবং বিলের সাথে দেখা করেন যারা প্রচণ্ডরকম মাতাল অবস্থায় ছিলেন। কিছুক্ষলে মধ্যে কন আসেন এবং ব্রেট কোথায় তা জানতে চায় কিছুটা তাচ্ছিল্য সহ্য করার পরে কন মাইক এবং জেইককে মারপিট করে। হোটেলে ফিরে এসে জেইক দেখে কন বিছানায় শুয়ে কাদছে। কন জেইকের কাছে ক্ষমা চায় এবং জেইক বিষয়টাকে খুব একটা গভীরভাবে না নিয়ে কনকে মাফ করে দেয়। পরেরদিন জেইক, বিল এবং মাইকের কাছে জানতে পারে আগের রাতে কন রোমেরোকেও পিটিয়েছে যখন সে ব্রেটকে রোমেরোর সাথে দেখতে পায়। পরে কন রোমেরোর সাথে করমর্দন করার জন্য তাকে অনেক অনুরোধ করে কিন্তু রোমেরো ফিরিয়ে দেয়।
সেদিন বিকেলের ষাড়ের লড়াই রোম্যারো চমৎকার খেলা দেখায়। সে রাস্তায় একজন মানুষ মারা একটা ষাড়কে হত্যা করে এবং তার কানটা কেটে ব্রেটকে উপহার দেন। এই শেষ ষাড়ের লড়াইটা শেষ হওয়ার পরে ব্রেট এবং রোম্যারো একসাথে মাদ্রিদের (Madrid) উদ্দেশ্যে রওনা হয়। কনও সকালে চলে যায়; এখন বিল, মাইক এবং জেইক উৎসব শেষ হওয়া পর্যন্ত ওখানে থাকে।
পরেরদিন এই জন একটা car ভাড়া করেন এবং স্পেনের বাইরে ফ্রান্সের বেয়নি (Bayonne) পর্যন্ত একসাথে যায় তারপরে যে যার মতো আলাদা আলাদা হয়ে নিজ নিজ গন্তব্যে চলে যায়। জেইক আবার স্পেনে ফিরে আসে এবং San Sebastian- যায়। সেখানে সে কয়েকদিন শান্তিতে আরাম করে কাটানোর পরিকল্পনা করে। কিন্তু সে ব্রেটের একটা টেলিগ্রাম পায় যেটাতে ব্রেট জেইককে মাদ্রিদে দেখা করতে বলে। ব্রেটের ইচ্ছানুযায়ী রাতের ট্রেনেই মাদ্রিদের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। পৌছনোর পরে জেইক ব্রেটকে মাদ্রিদের একটা হোটেল একা অবস্থায় খুঁজে পান তার সাথে থাকলে রোমেরোর ক্যারিয়ার এবং জীবন নষ্ট হতে পারে তাই ব্রেট রোমেরোর সাথে সম্পর্ক শেষ করে দিয়েছে। ব্রেট বলে এখন সে মাইকের কাছে ফিরে যেতে চায়। মাদ্রিদ ছাড়ার জন্য জেইক তাদের টিকেট করে এবং ট্যাক্সিতে স্পেনের রাজধানীর (মাদ্রিদের) রাস্তায় ঘুরতে ঘুরতে ব্রেট বিলাপ করে করে। বলে জেইক এবং সে একসাথে বেশ সুন্দর একটা সময় পার করতে পারতো।
জেইকের প্রতিক্রিয়া ছিল, “হ্যা, এমনটি ভাবা কি সুন্দর নয়?”
- - - - - - - - - - - - - - - - - - -
এই উপন্যাসটিতে Hemingway মানুষের ওপর প্রথম বিশ্বযুদ্ধের প্রভাবটা দেখানোর চেষ্টা করেছেন। পুরো উপন্যাসে আমরা চরিত্রগুলোকে দেখি অস্থির এবং অশান্ত। এদের মধ্যে নৈতিকতা বিষয়টা খুব কম আছে এবং একা অনেকটা নিঃসঙ্গতা বোধ করে সবসময়। Hemingway এদের "Lost Generation” বলে সম্বোধন করেন।

1 comment:

Blog Archive