Total Pageviews

Sunday, June 7, 2020

The Importance of Being Earnest – Oscar Wilde – Summary in Bangla

The Importance of Being Earnest – Oscar Wilde – Summary in Bangla

The Importance of Being Earnest – Oscar Wilde – Summary in Bangla
কাহিনী সংক্ষেপ
জ্যাক ওয়ার্থিং (John  (Jack/Ernest) Worthing, J.P) বারবার লন্ডনে আসা যাওয়া করত এবং প্রায়শঃই তার বন্ধু এ্যালগারনন মনক্রিয়েফ (Algernon Moncrieff) এর সাথে তার (এ্যালগারনন এর) হাফ মুন স্ট্রিট এর ফ্ল্যাট দেখা করত ঠিক ধরনের একটি ঘটনা দিয়ে নাটক শুরু হয় জ্যাক এর এবারের লন্ডল ভ্রমণ কেবলমাত্র আনন্দ পাবার উদ্দেশ্যে নয়, বরং এবারের ভ্রমণের উদ্দেশ্য ছিল আরো গভীর এ্যালগারনন তার বন্ধুকে চিনে মিস্টার আর্নেস্ট ওয়ার্থিং রূপে সে জ্যাককে জানায় যে কিছুক্ষণ পরেই তার খালা লেডী ব্র্যাকনেল (Lady Bracknell) এবং তার কন্যা গোয়েনডোলেন সেখানে চা খেতে আসবে সংবাদ পেয়ে জ্যাক অত্যন্ত আনন্দিত হয় এসময় এ্যালগারনন তাকে জানায় যে তার খালা তার আবাসস্থলে সময়ে জ্যাক এর উপস্থিতি পছন্দ করবে না কারণ জ্যাক এর সাথে তার কন্যা গোয়েনডোলেন (Gwendolen Fairfax) এর সস্তা প্রণয়ের কাহিনী এখানে সেখানে শোনা যাচ্ছিল তাই জ্যাক দৃঢ়ভাবে ঘোষণা করে যে এবার তার লন্ডনে আসার কারণ হলো গোয়েডোলেন এর কাছে বিয়ের প্রস্তাব রাখা একথা শুনে এ্যালগারনন জ্যাককে ঠাট্টা করে নিরুৎসাহিত করে সে বলে যে সে তার ব্যক্তিগত সম্মতি দিতে পারবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত সেসিলির সাথে জ্যাক এর সম্পর্কের রহস্য তার কাছে উন্মোচিত না হবে এ্যালগারনন জ্যাককে জানায় যে সেসিলি’ (Cecily Cardew) নামটি সে জানতে পেরেছে জ্যাক এর সিগারেট বক্স- খোদাই করা লেখা থেকে এ্যালগারনন আরো জানতে আগ্রহী যে সিগারেট বক্স আর্নেস্ট এর নাম জ্যাকলেখা আছে কেন প্রথমে সেসিলির ব্যাপারে কথা বলতে জ্যাক মোটেই আগ্রহী ছিল না, কিন্তু এ্যালগারনন এর একটার পর একটা প্রশ্নের সম্মুখে সে জানায় যে সেসিলি মৃত মিস্টার টমাস কারডিউ- (Thomas Cardew) নাতনি জ্যাক যখন ছোটো ছিল তখন মিস্টার কারডিউ তাকে দত্তক নিয়েছিলেন এবং পরবর্তীতে তাঁর উইল জ্যাককে সেসিলির অভিভাবক হিসাবে নিযুক্ত করেছিলেন এ্যালগারনন এর কাছে জ্যাক স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছিল যে তার দুটি নাম আছে - জ্যাক এবং আর্নেস্ট সে আর্নেস্ট নামে তার একটি ছোটো ভাই-এর চরিত্র সৃষ্টি করেছিল, যার মাধ্যমে সে কোনোরকম সন্দেহের উদ্রেক না করে আনন্দ পাবার জন্য লন্ডনে আসা যাওয়া করতে পারত দেশের (গ্রামের বাড়ির লোকেরা আর্নেস্টকে চিনত জ্যাক এর ছোটো ভাই হিসাবে, কোনো কাজেই যার কোনোরকম পারদর্শিতা ছিল না কথা জানতে পেরে এ্যালগারনন মন্তব্য করে যে জ্যাক তারই মতো একজন বানবারী নির্মাতা এ্যালগারননও বানবারী নামক একটি কাল্পনিক চরিত্র সৃষ্টি করেছে যাকে ব্যবহার করে সে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াত কেবল বিনোদনের উদ্দেশ্যে জ্যাক এ্যালগারননকে জানায় যে অতি শীঘ্রই সে আর্নেস্ট চরিত্রটির সমাপ্তি সৃষ্টি করবে, কারণ দিন যত গড়িয়ে যাচ্ছে, সেসিলি তত গভীরভাবে তার (আর্নেস্ট এর) প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ছে, যদিও আর্নেস্ট চরিত্রটি সৃষ্টি করা হয়েছে নানারকম অবাঞ্ছনীয় চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য এবং দুর্নাম জড়িয়ে এবার লেডী ব্র্যাকনেল সগৌরবে তার কন্যা গোয়েনডোলেনকে নিয়ে দৃশ্যে আগমন করেন এসময় এ্যালগারনন সুকৌশলে জ্যাককে তার গোয়েনডোলেনের সাথে খুব সংক্ষিপ্ত সময় এর জন্যে দেখা করার সুযোগ করে দেয়। প্রাথমিক লজ্জা কাটিয়ে উঠে শীঘ্রই জ্যাক গোয়েনডোলেনকে তার গভীর ভালোবাসার কথা জানায় বিনিময়ে গোয়েনডোলেনও একই কথা জ্যাককে জানায় এবং তার এই কোমল হৃদয়ানুভূতির কথা শুনে সে অত্যন্ত আনন্দিত হয় সময় গোয়েনডোলেন তাকে জানায়, যে সময় সে আর্নেস্ট নামটি শুনেছে, সে মুহূর্তে সে তার প্রেমে পড়ে গিয়েছে এবং তাকে তার স্বামী হিসেবে পেতে মনস্থির করেছে এই নির্বাচিত প্রেমিক এখন প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী হাঁটু গেড়ে বসে এবং তার প্রেমিকার কাছে বিবাহের প্রস্তাব করে এরপর লেডী ব্র্যাকনেল ফিরে আসে এবং দুজনের মধ্যে বিয়ের চুক্তির কথা শুনে তাৎক্ষণিকভাবে তার বিরূপ মনোভাব প্রকাশ করেন তিনি গোয়েনডোলেনকে সেখান থেকে দূরে সরিয়ে দেন এবং জ্যাককে একের পর এক অসংখ্য প্রশ্ন করেন এত প্রশ্নের মাধ্যমে তিনি জ্যাক এর বংশপরিচয়, আর্থিক অবস্থা এবং ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার কথা জানার চেষ্টা করেন তিনি বিস্মিত হন যখন তিনি দেখেন যে জ্যাক তার নিজের বংশপরিচয় বিষয়ে সম্পূর্ণভাবে অজ্ঞ জ্যাক কেবল এতটুকুই জানে যে তাকে মিস্টার কারডিউ নামক একজন ভদ্রলোক একটি হ্যান্ডব্যাগের ভেতর পেয়েছিলেন ভিক্টোরিয়া স্টেশন মিস্টার কারডিউ জ্যাককে Worthing (ওয়ার্থিং) পদবী দেন কারণে যে তখন তিনি ওয়ার্থিং এর পথযাত্রী ছিলেন একথা শুনে লেডী ব্র্যাকনেল বিদ্রুপে মেশানো কণ্ঠে জ্যাককে বলেন যে কোনো অবস্থায়ই একটি রেলওয়ে পার্সেল এর সঙ্গে তিনি তার কন্যার বিবাহে সম্মত হবেন না বিবাহ বন্ধনে তিনি তখনই সম্মত হবেন যখন তিনি জ্যাক এর বাবা অথবা মা অথবা অন্তত একজন এর পরিচয় উপযুক্ত প্রমাণসহ জানতে পারবেন যখন তিনি উদ্ধতভাবে ঘর থেকে বের হয়ে যান, ঠিক তখন গোয়েনডোলেন প্রবেশ করে সে এ্যালগারননকে বলে যে কেবলমাত্র জ্যাক এর জন্য তার কিছু মন্তব্য আছে এবং এ্যালগারনন যেন সেদিকে কর্ণপাত না করে সে জ্যাককে জানায় যে তার মা ভবিষ্যৎ জামাতা হিসাবে জ্যাককে বিবেচনা করতে পারবে না কিন্তু জ্যাক এর জন্মের সাথে সম্পৃক্ত যে ভালোবাসার কাহিনি তা তার অন্তর্নিহিত সহজাত চিন্তা চেতনাকে ভীষণভাবে নাড়া দিয়েছে তার আর্নেস্ট নামটি গোয়েনডোলেনকে বিমুগ্ধ করেছে এসময় গোয়েনডোলেন জ্যাক এর দেশের বাড়ির ঠিকানা জানতে চায় যখন জ্যাক তাকে ঠিকানাটি বলে, তখন এ্যালগারনন গোপনে এবং ইচ্ছাকৃতভাবে ঠিকানাটি তার শার্ট এর হাতার কব্জিসংলগ্ন (Cuff) অংশে লিখে নেয় সে একটি গোপন পরিকল্পনা করেছে যে সে জ্যাক এর ছোটো ভাই এ্যালগারনন সেজে মেনর হাউজ, উল্টন, হার্টফোর্ডশায়ার যাবে এবং সেসিলির সঙ্গে দেখা করবে ইতিমধ্যে সেসিলি তার মনে অনেকটুকু কৌতূহল এবং উৎসাহ সৃষ্টি করেছে 
দৃশ্য এবার স্থানান্তরিত হয় ম্যানর হাউজ এর বাগানে, জ্যাক ওয়ার্থিং এর দেশের বাড়িতে মিস প্রিজম (Miss Prism) এর তত্ত্বাবধানে সেসিলির জার্মান ভাষা শেখার কাজ চলছে, কিন্তু দৃশ্যে দেখা যাচ্ছে যে তারা দুজন উফুল্লভাবে জ্যাক এর তৈরি অকর্মণ্য ছোটো ভাই আর্নেস্টকে নিয়ে আলোচনায় ব্যস্ত সময় মিস প্রজম সেসিলির কাছে বলেন যে তার জীবনের শুরুর দিকে তিনি উপন্যাস লেখার কাজে অনেকটুকু সময় ব্যয় করেছিলেন, যদিও তার কোনো একটি উপন্যাস কখনো প্রকাশিত হয়নি 
ঠিক সে সময় স্থানীয় গির্জার পাদরি রেভারেন্ড (সম্মান্সূচক পদবি) চ্যাসুবল (Rev. Canon Chasuble, D.D.) সেখানে এসে উপস্থিত হন এবং তাদের সাথে কথোপকথনে যুক্ত হন তাদের কথাবার্তার মাধ্যমে স্পষ্টভাবে বোঝা যায় যে মিস প্রিজম এই পাদরির একজন অনুরাগী মিস প্রিজম সাথে সাথে রেভারেন্ড চ্যাসুবেল এর সাথে হাঁটতে চলে যান তিনি সেসিলিকে একা রেখে যান যেন সে তার কল্পনা স্বপ্নের জগতে বিচরণ করতে পারে এমন সময় খানসামা মেরিম্যান (Merriman) সেখানে উপস্থিত হয় এবং সেসিলিকে আলবানি থেকে আগত আর্নেস্ট ওয়ার্থিং এর একটি কার্ড দেয় 
এর সাথে সাথেই দেখা যায় প্রফুল্ল এবং হাসিখুশি এ্যালগারননকে, যে সেসিলির কাছে নিজেকে আর্নেস্ট হিসাবে উপস্থাপন করেছে সে তার স্বাভাবিক চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী সরাসরিভাবে এবং নির্দ্বিধায় সেসিলিকে তার ছোট কাজিন বোন (cousin sister) হিসাবে সম্বোধন করে এই ব্যক্তিকে সেসিলি তার অভিভাবক জ্যাক এর বিপথগামী ভাই হিসাবে ধরে নেয় এবং সে হিসাবে তার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ওঠে সেসিলি এ্যালগারননকে জানায় যে তার ভাই জ্যাক তাকে স্থায়ীভাবে অস্ট্রেলিয়া পাঠাবার পরিকল্পনা করছে মনে মনে জ্যাক আশা করছে যে তার ছোটো ভাই আর্নেস্ট অস্ট্রেলিয়া গিয়ে একটি নতুন জীবন গড়ে তুলবে একথা শুনে এ্যালগারননন তাকে জানায় যে সে ইংল্যান্ডেই থাকতে আগ্রহী এবং সেসিলিই তাকে সঠিক পথে পরিচালিত করতে পারবে বলে তার দৃঢ় বিশ্বাস ইতিমধ্যে ডঃ চ্যাসুবেল এবং মিস প্রিজম বাগানে হেঁটে ফিরে এসেছে যখন তারা একা ছিল তখন মিস প্রিজম ডঃ চ্যাসুবেলকে বলেছেন যে তার (ডঃ চ্যাসুবেল) আর অধিক সময়ের জন্য অবিবাহিত থাকা উচিত নয় সময় জ্যাক এর আগমন হয় এবং তাকে দেখে মনে হয় সে যেন গভীর শোকে ভেঙে পড়েছে তার বেশভূষা এবং মনের অবস্থা দেখে মিস প্রিজম এবং ডঃ চ্যাসুবেল উদ্বিগ্নভাবে তাকে প্রশ্ন করেন উত্তরে জ্যাক তাদেরকে জানায় যে সে জানতে পেরেছে যে তার ভাই আর্নেস্ট প্যারিস অত্যধিক ঠান্ডা সহ্য করতে না পেরে মৃত্যুবরণ করেছে উপস্থিত গির্জার প্রধান তখন জ্যাককে প্রতিজ্ঞা করে যে আসন্ন রবিবারে গির্জায় দুঃসংবাদটি প্রচার করা হবে সময় জ্যাক ডঃ চ্যাসুবেল এর কাছে জানতে চায় তিনি সেদিন বিকালে .৩০ টায় তাকে ধর্মে দীক্ষাদান করতে পারবেন কি না এধরনের অস্বাভাবিক অনুরোধ শুনে ডঃ চ্যাসুবেল খানিকটা অবাক হলেন, কিন্তু সম্মত হলেন এমন সময় সেসিলি তাদের সামনে উপস্থিত হলো এবং অত্যন্ত আনন্দের সাথে ঘোষণা করল যে জ্যাক এর ভাই তাদের বাড়িতে এসেছে এবং ডাইনিং রুম অপেক্ষা করছে স্বভাবিকভাবেই সংবাদ শুনে জ্যাক হতভম্ব হয়ে যায় এবং সবার কাছে সরাসরি ব্যাপারটি অস্বীকার করে সে দৃঢ়ভাবে বলে যে তার আদৌ কোনো ভাই নেই একথা শুনে সেসিলি এ্যালগারননকে তার মুখোমুখি উপস্থাপন করে এবং যেমন আশা করা যায়, তাদের এই মুখোমুখি অবস্থা এবং কথোপকথন মোটেই সুখকর ছিল না একসময় জ্যাক এবং অ্যালগারনন নির্জনে কথা বলার সুযোগ পেল এবং জ্যাক তাৎক্ষণিকভাবে এ্যালগারননকে তাদের বাড়ি ছেড়ে চলে যাবার নির্দেশ দিল এ্যালগারনন প্রতিবাদ করে বলে যে তার ভাই এর মনের এই করুণ অবস্থার মাঝে তাকে ছেড়ে সে চলে যেতে অপারগ কিন্তু জ্যাক এ্যালগারনন এর সকল প্রকার প্রতিবাদ এবং যুক্তি উপেক্ষা করে তাকে কঠোরভাবে বাড়ি পরিত্যাগ করার নির্দেশ দেয় চলে যাবার সময় বাগানে সেসিলির সঙ্গে এ্যালগারনন এর দেখা হয় এবং সেখানে সে উচ্ছসিত অবস্থায় আবেগপ্রবণ হয়ে সেসিলির প্রতি প্রেম নিবেদন করে সময় এ্যালগারনন এর উচ্চারিত প্রতিটি বাক্য যত্ন সহকারে সেসিলি তার ডায়েরিতে লিপিবদ্ধ করে নেয় এ্যালগারনন সেসিলির ডায়েরির ব্যাপারে কৌতূহল প্রকাশ করলে উত্তরে সে বলে যে তার ডায়েরি একটি অল্পবয়স্ক মেয়ের অতি গোপনীয় চিন্তাভাবনা এবং অনুভূতির একটি লিখিত বিবরণ সেসিলি তার কাছে স্বীকার করে যে যেদিন থেকে সে তার অভিভাবকের একটি দুষ্টুমিভরা ছোটো ভাই এর কথা জানতে পেরেছে, সেদিন থেকেই সে (আর্নেস্ট) বারবার আলোচনায় এসেছে যখন সে মিস প্রিজম এর সাথে কথোপকথনে লিপ্ত হয়েছে, তখন আর্নেস্ট প্রসঙ্গটি মূল বিষয় হিসেবে বারবার এসেছে একসময় সেসিলি আর্নেস্ট এর প্রেমে পড়ে গিয়েছে এবং পরবর্তীতে তাকে না দেখা সত্ত্বেও সে তার সাথে শপথের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে গিয়েছে সেসিলির এই প্রেমভালোবাসা এবং বিবাহ বন্ধন সবটুকুই কাল্পনিক তার কাছে লেখা আর্নেস্ট এর সব চিঠি সে অতি যত্ন সহকারে সংগ্রহ করে রেখেছে প্রকৃতপক্ষে চিঠিগুলো সবই তার নিজেরই হাতের লেখা, কেবলমাত্র তার কল্পনার দৃষ্টিতে তারই উদ্দেশ্যে আর্নেস্ট এর লেখা চিঠি এই কাল্পনিক প্রেম কাহিনিতে সে বিবাহের শপথও ভেঙে ফেলেছে এবং এক সপ্তাহ অতিবাহিত হওয়ার আগেই পুনরায় সে একই অবস্থায় ফিরে গেছে সময় সেসিলি আর্নেস্টকে জানায় সে তার নাম আর্নেস্ট হবার কারণেই সে তার প্রতি প্রচণ্ডভাবে আকৃষ্ট হয় এবং প্রেমে পড়ে যায় এর কারণ হলো আর্নেস্ট নামটি সেসিলির মনে এক ধরনের দৃঢ় বিশ্বাস সৃষ্টি করে, যার মাধ্যমে সে সাহস খুঁজে পায় একথা শুনে এ্যালগারনন কিছুটা উৎসাহ হারিয়ে ফেলে সময় সেসিলি আরও বলে যে তার নাম আর্নেস্ট না হয়ে যদি আরো কিছু হতো তাহলে সে কখনোই তাকে (আর্নেস্টকে) গ্রহণ করত না কথা শুনে বেচারা এ্যালগারনন এর আবারও ধর্মে দীক্ষিত হয়ে নতুন করে নাম গ্রহণ ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না সে তাড়াতাড়ি ব্যাপারে কথা বলার জন্য ডঃ চ্যাসুবেল এর কাছে ছুটে যায় এর ফলে ডঃ চ্যাসুবেল এর ওপর দুজন যুবককে সেদিন বিকেলে ধর্ম মতে একই নামে নামকরণের দায়িত্ব পড়ে 
এরপর গোয়েনডোলেন মেনর হাউজ আসে এবং মিস্টার ওয়ার্থিং এর সাথে দেখা করতে চায় তখন সে জানতে পারে যে মিস্টার ওয়ার্থিং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের দিকে গিয়েছে সময় সেসিলি তাকে ঘরের ভেতরে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানায় এই দুজন তরুণীর মধ্যে পরিচয় পর্বটি শুরুতে ছিল আন্তরিক, কিন্তু যখন গোয়েনডডালেন জানতে পারে যে মিস্টার ওয়ার্থিং সেসিলির অভিভাবক, তখন তার মনটি অতিরিক্ত কৌতুহলী এবং অখুশি হয়ে ওঠে গোয়েনডোলেন ভেবে পায় না কেন তার প্রেমিক কোনোদিন তাকে সেসিলির কথা বলে নাই অবস্থা চূড়ান্তভাবে খারাপ হয়ে উঠে যখন দুজনই দুজনকে আর্নেস্ট ওয়ার্থিং এর সাথে তাদের বিবাহের প্রতিজ্ঞার কথা জানায় সময় খোলাখুলিভাবে দুই তরুণী পরস্পরের প্রতি ঈর্ষা এবং শত্রু ভাবাপন্ন মনোভাব প্রদর্শন করে দুজনই দুজনকে অপমানিত করার চেষ্টায় দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হয় নাটকের পর্যায়ে জ্যাক ফিরে আসে ইতিমধ্যে ঘটনা যা ঘটেছে তা কিছুই তার জানা ছিল না গোয়েনডোলেনকে দেখে জ্যাক অত্যন্ত আনন্দিত হয় সেসিলির সাথে তার প্রেমঘটিত সম্পর্ক নিয়ে গোয়েনডোলেন প্রশ্ন তুললে জ্যাক সরাসরিভাবে তা অস্বীকার করে ক্ষণিকের জন্য শান্তি ফিরে আসে এসময় সেসিলি আবার শান্তি ভঙ্গ করে দেয় যখন সে বিজয়িনীর মতো ঘোষণা করে যে গোয়েনডোলেন এর প্রেমিক নাম আর্নেস্ট নয় বরং তার নাম জ্যাক আর্নেস্ট এর বড়ো ভাই হলো প্রকৃতপক্ষে এই জ্যাক মুহূর্তে এ্যালগারনন প্রবেশ করে এবং সেসিলি একরকম নিরুৎসাহের সঙ্গে তাকে গ্রহণ করে সে দাবি করে এ্যালগারনন যেন গোয়েনডোলেন এর সাথে কোনোরকম সম্পর্ক অস্বীকার করে তাৎক্ষণিকভাবে এ্যালগারনন তার সে অনুরোধ মেনে নেয় এসময় গোয়েনডোলেন সেসিলিকে অবাক করে দিয়ে বলে যে তার প্রেমিকের নাম আর্নেস্ট নয়, বরং তার নাম এ্যালগারনন এবং সে তারই খালাতো ভাই তখন দুজন তরুণ দুই তরুণীর কাছে স্বীকার করতে বাধ্য হয় যে তারা প্রতারণতার অবলম্বন করেছিল অনুরূপভাৱে দুই নারী ঘটনা দেখে অত্যন্ত মর্মাহত হয় তারা বুঝতে পারে যে তারা দুজনেই প্রতারিত হয়েছে একই দলের সদস্য হিসাবে একে অপরের প্রতিও সহানুভূতিশীল হয় তারা জ্যাক এবং এলগারনন একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ অব্যাহত রাখে এ্যালগারনন জ্যাককে জানায় যে ডঃ চ্যাসুবেল এর সহায়তায় সেদিন বিকালেই সে ধর্মমতে নাম পরিবর্তন করবে কথা শুনে জ্যাক বিস্মিত হয়ে ওঠে কারণ একই সময়ে সেও ডঃ চ্যাসুবেল এর সাহায্যে ধর্মমতে নাম পরিবর্তনের ব্যবস্থা করেছে দুজন তরুণী একসময় তাদের আর্নেস্টদ্বয়ের (জ্যাক এলগারনন) প্রতি ক্ষমা প্রদর্শন করে
ইতিমধ্যে গোয়েনডোলেন এর পরিচারিকাকে ঘুষ দিয়ে লেডী ব্র্যাকনেল তার কন্যার গতিবিধি জানতে পেরেছিলেন এভাবে এসময়ে তিনি মেনর হাউজ এসে উপস্থিত হন তার কন্যা যেন জ্যাককে বিয়ে করতে না পারে, সে ব্যাপারে সবরকম বাধা সৃষ্টি করতে তিনি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলেন এ্যালগারনন সেসিলির সাথে তার বিয়ের প্রতিজ্ঞার কথা লেডী ব্র্যাকনেলকে জানায় এবং তাৎক্ষণিকভাবে তিনি তাতে তার অসম্মতি প্রকাশ করেন যখন জ্যাক সেসিলির সম্পত্তির সম্পূর্ণ বর্ণনা দেয়, তখন তার লোভী এবং বিষয়াসক্ত মনটি মুহূর্তেই বদলে যায় এবং সংবাদটি তার কাছে চিত্তাকর্ষক বলে মনে হয় সময় তিনি সাগ্রহে তার সম্মতি প্রদান করেন কিন্তু তিনি অতিথিসেবকের উপস্থিতিটি হিসেবে ধরেননি, কারণ জ্যাক বিয়ের ব্যাপারে তার সম্মতি দিতে নারাজ এ্যালগারনন এর নৈতিক চরিত্র তার মনঃপূত নয়, কারণেই জ্যাক এর এই নেতিবাচক মনোভাব সেসিলির দাদার উইল এর শর্ত অনুযায়ী পঁয়ত্রিশ বছর বয়সে সে স্বাধীনভাবে তার সিদ্ধান্ত নিতে পারবে তার পূর্ববর্তী সময়ে জ্যাক তার অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করে চলবে সেসিলির প্ররোচনায় জ্যাক লেডী ব্র্যাকনেলকে জানায় যে সেসিলির সঙ্গে এ্যালগারনন এর বিবাহে তার কোন অসম্মতি থাকবে না যদি গোয়েনডোলেন এর সঙ্গে তার নিজের বিবাহে লেডী ব্র্যাকনেল সম্মত থাকেন লেডী ব্র্যাকনেল তার সিদ্ধান্তে অনড় এবং যখন তিনি লন্ডন ফিরে যাবার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ঠিক তখন ডঃ চ্যাসুবেল সেখানে উপস্থিত হন এবং বলেন যে সেদিন বিকালে ধর্মমতে নাম পরিবর্তনের সব আয়োজন ঠিক আছে তাদের মধ্যে আলোচনায় মিস প্রিজম এর নাম চলে আসে এবং সাথে সাথে নামটি লেডী ব্র্যাকনেল এর স্মৃতিকে নাড়া দেয় লেডী ব্র্যাকনেল তখন অনুরোধ করেন মিস প্রিজমকে যেন তার সামনে উপস্থিত করা হয় তখন মিস প্রিজমকে লেডী ব্র্যাকনেল এর মুখোমুখি করা হয়, তখন মুহূর্তেই তিনি মিস প্রিজমকে চিনতে পারেন বহু বছর পূর্বে মিস প্রিজম ছিলেন তার বোন এর ছোটো শিশুর শিক্ষয়িত্রী লেডী ব্র্যাকনেল এর শুষ্ক দৃষ্টির সামনে মিস প্রিজম যেন ভীত হন আটাশ বছর পূর্বে একদিন মিস প্রিজম শিশুকে একটি প্যারামবুলেটার (শিশুদের জন্য ঠেলা গাড়ি ) চড়িয়ে হাঁটতে বের হন, কিন্তু কোনোদিন আর ফিরে আসেননি 
কয়েক সপ্তাহ পর প্যারামবুলেটারটিকে খুঁজে পাওয়া যায় কিন্তু তাতে কোনো শিশু ছিল না তার মধ্যে পাওয়া গিয়েছিল একটি তিন অধ্যায় উপন্যাসের পাণ্ডুলিপি যাতে ছিল একধরনের আবেগপূর্ণ কাহিনি যাতে বিদ্রোহের একটা সুর খুঁজে পাওয়া যায় এত বছর পর হলেও লেডী ব্র্যাকনেল ক্রুদ্ধভাবে মিস প্রিজম এর শিশুর কাহিনি জানতে চান উত্তরে শিশুর শিক্ষয়িত্রী জানান যে তিনি নিজেও জানেন না সেসময় শেষ পর্যন্ত কী হয়েছিল মিস প্রিজম সেদিন তার সাথে বহন করেছিলেন একটি প্রশস্ত ব্যাগ এবং ক্ষণিক অসতর্কতার কারণে ভুল করে তার উপন্যাসের পাণ্ডুলিপিটি রেখেছিলেন প্যারামবুলেটর এবং শিশুটিকে রেখেছিলেন প্রশস্ত ব্যাগ জ্যাক যে এতক্ষণ অত্যন্ত মনোযোগ এর সাথে তার কথাগুলো শুনছিল, মিস প্রিজম এর কাছে হ্যান্ডব্যাগ এর বর্ণনা শুনতে চায় মিস প্রিজম ব্যাগ এর বর্ণনা দিতে ব্যর্থ হন ঠিকই, কিন্তু তার মনে ছিল যে তিনি ভিক্টোরিয়া স্টেশন এর ক্লোকরুম ব্যাগটি তিনি রেখেছিলেন কথা শুনে জ্যাক দৌড়ে উপরের তলায় চলে যায় এবং অতি শীঘ্রি একটি কালো চামড়ার হ্যান্ডব্যাগ নিয়ে প্রত্যাবর্তন করে যদিও ব্যাগটি কিছুটা জীর্ণ শীর্ণ হয়ে গিয়েছে, তারপর মিস প্রিজম ব্যাগটিকে তার নিজের বলে সনাক্ত করতে পারেন এসময় জ্যাক তাকে স্নেহপরায়ণভাবে আলিঙ্গন করে এই ভেবে যে তিনি তার হারিয়ে যাওয়া মা শিক্ষয়িত্রী সক্ষোভে এর বিরোধিতা করেন এবং বলেন যে তিনি অবিবাহিতা কথা শুনে জ্যাক এর ভেতর কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায় না এসময় লেডী ব্র্যাকনেল হস্তক্ষেপ করেন এবং বলেন যে জ্যাক তার মৃত বোন এর সন্তান এবং এ্যালগারনন এর বড়ো ভাই জ্যাক এই কথা শুনে আনন্দে আত্মহারা হয়ে ওঠে, কারণ এতদিন ধরে সে তার ভাই এর ব্যাপারে যে কাহিনি প্রচার করে এসেছে, তা আজ সত্যে পরিণত হয়েছে গোয়েনডোলেন এসময় তার ক্রিশ্চিয়ান নাম (Christian name - খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষা দানকালে প্রদত্ত নামযা কারো সম্পূর্ণ নামের প্রথম অংশ) এর প্রসঙ্গটি উত্থাপন করে 
লেডী ব্র্যানেল তখন সবাইকে জানান যে শিশু থাকাকালীন অবস্থায় খ্রিষ্টধর্মমতে তার নামকরণের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছিল এবং তার বাবার নামই তাকে দেওয়া হয়েছিল কিন্তু এত দীর্ঘ সময়ের ব্যবধানে সে নামটি তিনি স্মরণ করতে পারছিলেন না নাম এর বিষয়টি এসময় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দেখা দেয়, কারণ গোয়েনডোলেন অত্যন্ত দৃঢ়তার সাথে ঘোষণা করেছিল যে সে আর্নেস্ট নামক একজন পুরুষকেই বিয়ে করবে, তাছাড়া আর কাউকে নয় তখন জ্যাক একরকম বাধ্যতামূলকভাবে তার প্রকৃত নাম আবিষ্কার করতে উদ্যত হয় তার মৃত পিতা ছিলেন একজন সেনাবাহিনী অফিসার, সে কারণে জ্যাক তাৎক্ষণিকভাবে সেনাবাহিনীর অফিসারদের ডিরেক্টরি পর্যবেক্ষণ করে এবং আবিষ্কার করে যে তার নাম এর প্রথম অংশ আর্নেস্ট জন এসময় সে তার গর্গন খালার সামনে গোয়েনডোলেনকে বলে যে, এতদিনে সে আন্তরিক হবার তাৎপর্যটি অনুধাবন করতে পেরেছে ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ দেখা যায়, সেসিলি এলগারনন এবং ডঃ চ্যাসুবেল আর মিস প্রিজম এর মধ্যে সবার জন্য আনন্দের বার্তা বহন করে নাটকটি সমাপ্ত হয় 

1 comment:

Blog Archive