Search This Blog

Total Pageviews

Friday, February 1, 2019

Paradise Lost : General Critical Remarks The Spectator - 267 - Analysis in Bangla


Paradise Lost : General Critical Remarks - বাংলা অনুবাদ


The Spectator - 267
আলোচনা

প্রাবন্ধিক অ্যাডিসন তার দ্যা স্পেকটেটর এর ২৬৭ তম সংখ্যায় Paradise Lost সম্পর্কে আলোচনা করেছেন। প্রথমে তিনি তাঁর প্রবন্ধে সাধারণ মানের আলোচনার প্রতি তার বিরক্তির দিকটি তুলে ধরার চেষ্ঠা করেছেন প্রাবন্ধিক অ্যাডিসন মনে করেন, যে কোনো বিষয় ধরে সাধারণ মানের আলোচনাটা একটা দায়সারা ব্যাপার, এটা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয় বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে অ্যাডিসন মিলটন রচিত মহাকাব্য প্যারাডাইস লস্ট এর দিকে তার দৃষ্টিক্ষেপণ করেছেন তিনি একটা বিষয় উল্লেখ করেছেন মহাকাব্য নিয়ে, তা হলো দীর্ঘদিন হতে তিনি লক্ষ করছেন প্যারাডাইস লস্ট কি মহাকাব্য নাকি বীরগাথা, এটা নিয়ে বিতর্ক ও আলোচনা চলছে প্রাবন্ধিক বলেন, মিলটনের কাব্য মহাকাব্য কিংবা বীরগাথা হিসেবে যতটা সার্থক সে বিষয়টাকে তিনি আপাতত আড়ালে রেখে আলোচনায় অবতীর্ণ হতে চান তিনি এটা বলতে গিয়ে প্যারাডাইস লস্টের নায়িকা ইভ এবং হোমারের ইলিয়াড মহাকাব্যের নায়িকা হেলেনের নাম উল্লেখ করে বলেন, ইভ এবং হেলেন একই পর্যায়ভুক্ত নায়িকা নয় প্রাবন্ধিক বলেন তিনি এই কাব্যকে মহাকাব্যের মাপকাঠিতে ফেলে বিচার করবেন তিনি দেখতে চান ইলিয়াড ঈনিডের সাথে তুলনা করলে মিলটনের এই কাব্যে কোনো ঘাটতি দেখা যাবে কিনা প্রাবন্ধিক প্রথমেই এই মহাকাব্যের অন্যতম একটি দিক অ্যাকশন বা ক্রিয়ার প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন তিনি মনে করেন এতে একটি মাত্র অ্যাকশন থাকতে হবে আর তা হবে সামগ্রিক আর এই অ্যাকশনটি হবে মহতী বিষয় প্রাবন্ধিক এখানে গ্রিক পণ্ডিত হোরেসের সাথে কণ্ঠ মিলিয়ে বলেন, হোমার তার মহাকাব্যের ঘটনা শুরু করেছেন বিষয়ের মাঝখান থেকে তিনি ঘটনা শুরু করলেন রাজাদের মধ্যে মতবিরোধ নিয়ে, যার ফলে এই মতবিরোধকে কেন্দ্র করে অনেকগুলো ঘটনার জন্ম হলো কিন্তু অ্যাকশন একটাই থেকে গেল অ্যারিস্টটল মনে করতেন শুধু ইউনিটি অব অ্যাকশন বজায় রেখেছে বলেই হোমারকে বাহবা দেয়া যায় না, কারো কারো মতে, ঈনিড এর ক্ষেত্রেও এমন উক্তি করা চলে এখানে অ্যাডিসন ভার্জিলকে তুলে এনেছেন, তার মতে ভার্জিল রোমান সাম্রাজ্যের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস তুলে ধরেছেন এবং এর সাথে গৌরবের শত্রুকেও তুলে এনেছেন একইভাবে মিলটন মানুষের স্বর্গ থেকে পতনের মূল শয়তানকেও তুলে এনেছেন দেবদূতদের সহ। প্রাবন্ধিকের মতে অ্যাকশন হতে হবে সামগ্রিক। যখন এপিকের সর্বক্ষেত্রেই অ্যাকশন পূর্ণতা পায় তখনি সেটিকে সামগ্রিক বলা যেতে পারে।প্রাবন্ধিকের মতে হোমারের কাব্যে অ্যাকিলিসের ক্রোধ এবং তার শেষ পরিণতি দেখি তেমনি মিলটনের কাব্য শুরু নরকলোকে এবং তাঁর পরিণতি পৃথিবীতে এবং ভাগ্য নির্ধারিত হয় স্বর্গে। প্রাবন্ধিক এখানে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ দিকের প্রতি অঙ্গুলি নির্দেশ করেন তা হলো মহাকাব্যের মহতী দিকটি। অ্যাকিলিসের ক্রোধ গ্রীসের রাজাদের মাঝে ঝগড়ার সূচনা করেছে ট্রয়ের বীরদের ধ্বংস করেছে কিন্তু মিলটনের প্যারাডাইস লস্ট মহাকাব্যকেও অতিক্রম করে যাচ্ছে। প্যারাডাইস লস্ট কাব্যে পুরো মানব জাতির ধ্বংস নিশ্চিত করতে নরকের সব অপশক্তি এক হয়েছে, তারা কিছুটা ক্ষতি করতে সমর্থও হয়েছে। প্রাবন্ধিকের মতে, মানুষের রক্ষাকর্তা মহান ঈশ্বর, মোট কথা জগতের যা কিছু মহান সেটা প্রকৃতির বাইরে কিংবা ভেতরে যেখানেই থাক না কেন তা কাব্যে মেলে। প্রাবন্ধিকের মতে কোন প্যাগান কাব্য এর চেয়ে ভালো হওয়া সম্ভব হতো না। মোট কথা প্রাবন্ধিক অ্যাডিসন মিলটনের প্যারাডাইস লস্টকে পৃথিবীর তাবৎ খ্যাতিমান কাব্যগুলোর সাথে তুলনামূলক বিচার করতে গিয়ে মহাকাব্যকে একটি সার্থক মহাকাব্য হিসাবে সম্মান দিতে মোটেও পিছপা হননি।

No comments:

Post a Comment

Popular Posts