Search This Blog

Total Pageviews

Thursday, January 31, 2019

The Spectator -122 - Sir Roger at the Assizes - Bangla summary and analysis

Sir Roger at the Assizes




Sir Roger at the Assizes
আলোচনা
শুরুতে প্রাবন্ধিক তাঁর বন্ধু স্যার রজারের সাথে কোন এক গ্রাম্য বিচার বা সালিশে যাচ্ছিলেন সে অভিজ্ঞতাই বর্ণনা করেন। স্যার রজারের সাথে আর একজন লোক যাচ্ছিল এবং পথে আরো অন্য লোকের সাথে তারা মিলিত হন। স্যার রজার লেখককে তাদের স্বভাব চরিত্রের বর্ণনা দেন। থেকে আমরা সেই সময়ের সমাজের একটা চিত্র লাভ করি। উইল উইম্বল টম টাচির ব্যাপারে স্যার রজারের বর্ণনা থেকে সে সময়ের পেটি জমিদার উকিলদের সম্পর্কে ধারনা লাভ করা যায়। স্যার রজার একজন সম্মানিত বৃদ্ধ নাইট প্রাবন্ধিকের বন্ধু তিনি তাঁর প্যারিশে আসে পাশের গ্রাম্য বিচারালয়ে জুরি বোর্ডের প্রধান। গ্রামাঞ্চলের সাধারণ মানুষদের মাঝে তিনি অসম্ভব জনপ্রিয় একজন মানুষ তিনি সর্বদা বিচারপ্রার্থী তার প্রতিবেশীদের সব রকম সমস্যার সহজ সমাধান দেন। প্রাবন্ধিক ব্যাপারে কিছু উদাহরন টানেন।  লেখকের মতে তার বন্ধু রজার মানব কল্যাণে একজন নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তি লেখক তার সাথে একবার বিচারালয়ের দিকে যাচ্ছিলেন তখন দুজন গ্রাম্য লোকের সাথে তাঁদের দেখা হলো। রজার তাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে গিয়ে তাদের চরিত্রের পুরো দিক তুলে ধরলেন এদের দুজনের মাঝে সামান্য মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে মতানৈক্য সৃষ্টি হয়েছে। এরা স্যার রজারের কাছে এর সহজ একটা সমাধান চাইলেন স্যর চমৎকারভাবে দুজনের মন রক্ষা করে সহজ একটা সমাধান দিয়ে দিলেন প্রাবন্ধিক এটা নিজের মাঝে উপলব্ধি করতে সমর্থ হলেন যে আসলে স্যার রজার বিচারক হিসেবে সবারই স্বার্থ রক্ষায় তৎপর থাকেন আর কারণেই সাধারণ জন সমাজে তিনি এতটা জনপ্রিয় স্যর রজার যে একজন সাহসী সৎ এবং মনোরঞ্জনকারী একজন মানুষ হিসেবে উপস্থিত
বিচারালয় থেকে বের হয়ে লেখক এবং তার বন্ধু স্যর রজার গ্রাম্য একটি কুটিরে বিশ্রামের জন্য থামলেন এই কুটিরের মালিক আবার গির্জার একজন তত্ত্বাবধায়ক অথবা পরিচালক সে পূর্বে ছিল স্যর রজারের বাসার একজন চাকর সে তার নিজের ঘরের দরজার বাইরে তার পুরনো প্রভূ স্যর রজারের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে স্যার রজারের একটি বিশাল ছবি অংকন করে টানিয়ে রেখেছে। ছবিটা রাস্তার দিকে মুখ করে আছে। ছবিটা দেখতে ঠিক ক্রুসেডের মুসলিম বীর যোদ্ধার মতো দারি গোফে জান্তব চেহারা স্যর রজার এটা দেখে খুশি হলেন না। তিনি তার চাকরকে বুঝিয়ে বললেন, তার প্রতি সে সম্মান প্রদর্শন করেছে এতে তিনি খুশি কিন্তু ধরণের ছবি টানানোর বিষয়টি একমাত্র ডিউকের বেলাতেই খাটে আর যে ছবি অংকন করা হয়েছে তা একেবারে দেখার অযোগ্য আর ছবি দেখলে জনসমাজে তার সম্পর্কে খারাপ ধারণা তৈরি হবে শেষে তিনি ছবিটাকে ভালো একজন চিত্রকর ডেকে মুখমণ্ডলটা পাল্টানোর কথা বললেন। শুধু তাই নয়, রাতের বেলা ছবিটা তিনি তাঁর নিজের কাছে এনে রাখলেন। প্রাবন্ধিকের মতে, তাঁর বন্ধু রজার কখনোই গ্রাম্য জনগণের কাছে নিজেকে খাটো করতে চান না। গ্রাম্য বিচারালয়ে তিনি সাধারণ মানুষের পক্ষে সাহসের সাথে কথা বলেন, জনগণ তাকে একজন নেতা হিসেবেই এবং মেনে চলে সম্মান করে স্যর রজার নিজের এই অবস্থানে অটল থেকে জনসেবা করে যেতে চান প্রবন্ধে সাধারণ মানুষ গ্রামীণ জীবন যাত্রা তাদের মামলা-মোকদ্দমার দিকটি উঠে এসেছে। উঠে এসেছে সমাজের নানা বিচিত্র চরিত্র





No comments:

Post a Comment

Popular Posts