Monday, August 20, 2018

Lord of the Flies - William Golding - Bangla summary - লর্ড অফ দ্যা ফ্লাইজ - বাংলা সামারি - ২পর্বের ১ম পর্ব


lord of the flies - william golding - bangla summary

মাস্টার্স ফাইনালের সিলেবাসের অন্যান্য লেখা ও অনুবাদ

Full story in Bangla in pdf file

Lord of the Flies - William Golding - Bangla summary - লর্ড অফ দ্যা ফ্লাইজ - বাংলা সামারি - ২পর্বের ১ম পর্ব
লর্ড অফ দ্যা ফ্লাই
প্রধান চরিত্র সমূহঃ
রাল
পিগি
জ্যাক
রজার
সিমন
এরিক
৭। স্যাম

ঘটনাপ্রবাহঃ 
যুদ্ধের সময় কিছু স্কুল ছাত্রকে একটি বিমানের মাধ্যমে লন্ডন থেকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছিল। পথে একটি বিরান দ্বীপের উপর তাদের বিমানকে গুলি করে ভূপাতিত করা হয়। তাদের মাঝে দুইজন বালক রাল্ফ এবং পিগি সৈকতে একটি শিঙা খুজে পায়।  পিগি চিন্তা করল এটা অন্যদেরকে ডাকার কাজে ব্যবহার করবে। তারা একসাথে হয়ে রালফকে তাদের নেতা নির্বাচন করল। কিভাবে এই বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যায় সে ব্যপারেও আলোচনা করল। নির্বাচিত হওয়ার পরে রাল্ফ জ্যাককে শিকারের দায়িত্ব দিল আর তার কাজ হবে সে খাদ্য সংগ্রাহক বালকদের দায়িত্বে থাকবে। রাল্ফজ্যাক ও সিমন বের হল দ্বীপে কি কি আছে ঘুরে দেখার জন্যে।
যখন তারা ফিরে এলো রাল্ফ ঘোষনা দিল যে তাদের এইখানে অবস্থানের সংকেত হিসেবে আগুন জালানো দরকার, যাতে করে কাছে দিয়ে যাওয়া আসা করা জাহাজের দৃষ্টি আকর্ষন করা যায়। বালকেরা তখন পিগির চশমার লেন্স দিয়ে সূর্যের আলোর সাহায্যে এক বিশেষ পদ্ধতিতে কিছু মরা কাঠে আগুন ধরালো।  আগুন ধরিয়ে এর পর্যবেক্ষন ও নিয়ন্ত্রনের চেষ্ঠা না করে এটি নিয়ে খেলা করায় তারা মেতে রইল। জংগলে অনেক শুকনো মরা কাঠ ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। তাদের অসাবধানতার কারনে জংগলে আগন লেগে বিরাট এক অংশ পুড়ে গেল। তাদের একজন বালককে খুজে পাওয়া যাচ্ছিল না। সম্ভবত আগুনে পুড়ে কয়লা হয়ে গিয়েছিল সে।
প্রথম প্রথম তারা বড়দের ছাড়াই তাদের জীবনযাপন করছিল। তাদের বেশিরভাগ সময় তারা তীরে পানি ছিটিয়ে আর খেলাধুলা করেই কাটিয়ে দিচ্ছিল।  এক পর্যায়ে রালফ তাদেরকে বলল তাদের উচিত  সংকেত হিসেবে আগুন নতুন করে জালানো ও রক্ষনা বেক্ষন করা আর থাকার জন্যে বাড়ি করা দরকার। আর শিকারীরা তাদের প্রথম শুকর শিকারের কাজে ব্যার্থ হল। জ্যাক শিকারের কাজে নিজেকে আরো জড়িয়ে নিল।
এদিকে একদিন দূর দিয়ে একটি জাহাজ যাচ্ছিল। জ্যাক আর পিগি ভয়ের সাথে খেয়াল করল শিকারীদের অবহেলার কারনে সংকেত দানে ব্যবহৃত আগুনটি আর জলছে না। জ্যাক ভাবল সে এখন তাদেরকে ডাকবে, আর এ সময় শিকারী বালকেরা তাদের প্রথ শিকার নিয়ে ফেরত এলো। তাদের দেখে মনে হল তাদেরকে যেন এক অদ্ভুত উন্মত্ততা ঘিরে রেখেছে। আগুনের কারনে পিগি জ্যাকের সমালোচনা করল, প্রতি উত্তরে জ্যাক তার মুখে আঘাত করল। রালফ শিংগায় ফু দিয়ে সকল বালক কে ডাকল, আর তাদেরকে ভতসনা করল আর  শৃঙ্খলা বজায় রাখার কথা বলল। মিটিং এ তারা খেয়াল করল কিছু বালক ভয় পেতে শুরু করেছে। তাদের মাঝে সবচেয়ে ছোট যে বালকটি যার নাম লিটলান্স, সে প্রথম থেকেই ভয় পাচ্ছিল এবং সে রাতে দূঃস্বপ্ন দেখতো।
আরো অনেক বালকই বিশ্বাস করতে শুরু করেছে যে দ্বীপে একটা কোন বড় কোন ভয়ঙ্কর প্রাণী বা দানব লুকিয়ে আছে। তখন বড়রা তাদেরকে বোঝাতে চেষ্ঠা করল এই উজ্জ্বল দিনের আলোতে এমন কোন ভয়ংকর প্রাণি কোথায় লুকিয়ে থাকবে। এ সময় লিটলান তাদেরকে বলল সে সমূদ্রে লুকিয়ে আছে। এ কথা বলার পর বড়দের মাঝেও ভয় ঢুকে গেল। মিটিং শেষ হওয়ার খুব বেশী সময় হয়নি এর মাঝেই কয়েকটি সামরিক বাহিনীর বিমান তাদের দ্বীপের কাছ দিয়ে উড়ে গেল। বালকেরা গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন ছিল। মেঘের ফাকে আলোকের বিচ্ছুরণ ও বিষ্ফোরনের শব্দ তারা শুনতে পেল না। একজন মৃত প্যারাশুটিস্ট তাদের সাংকেতিক আগুনের পাহাড়ের উপর পতিত হল। স্যাম আর এরিক এই দুই জমজ এর দায়িত্ব ছিল রাতে পাহাড়ে তাদের এই আগুন পাহাড়া দেয়া, তারা দুই জনেই ঘুমে বিভোর ছিল। তারা কিছুই খেয়ল করলো না। যখন তাদের ঘুম ভাংলো তারা দুইজনে একটা কালো আবছায়া মত কি যে দেখলো আর প্যারাশুটের বাতাসে ঝাপটানোর অদ্ভুত আওয়াজ শুনতে পেল। এটাকে তারা সে অদ্ভুত বিশাল প্রাণী মনে করল। ভাবলো এটা কাছেই এসে গেছে। দুজনে তাই এক ছুটে ক্যাম্পে চলে গেল আর বলল যে সে প্রানীটি তাদের আক্রমন করেছে।
দানবীয় এই প্রাণীটিকে খোজার জন্যে তারা একটি শিকার অভিযানের প্রস্তুতি গ্রহন করলো। জ্যাক আর রালফ কথা কাটাকাটি করতে করতেই পাহাড়ে আরোহন করলো। তারা দুর থেকেই প্যারাশুটের কালো আবছায়াটি দেখতে পেল আর তাদের কাছে এটি একটি বিশাল বিকৃত উল্লুকের মত লাগলো।

দলটি এবার একটি সভা করলো আর সেখানে রালফ ও জ্যাক কি দেখেছে তা বর্ণনা করল। 

বাকি অংশ



Maruf Mahmood 

MA, Dept. of English, Dhaka College

1 comment:

Trending

Ads