Sunday, September 9, 2018

Death of a Salesman by Arther Millar - Bangla summary and characters - ডেথ অফ আ সেলসম্যান - বাংলা সারাংশ ও চরিত্রসমূহ - ১ম অঙ্ক



death of a salesman by arthur millar - bangla summary and  characters




Death of a Salesman by Arther Millar - Bangla summary and  characters - ডেথ অফ আ সেলসম্যান -  বাংলা সারাংশ ও চরিত্রসমূহ - ১ম অঙ্ক 
এক নজরে চরিত্রসমূহঃ
১। উইলি লোম্যান- একজন মধ্যবয়স্ক বিক্রয় প্রতিনিধি।
২। বিফ লোম্যান উইলির বড় ছেলে।
৩। হ্যাপি লোম্যান -  উইলির ছোট ছেলে।
৪। লিন্ডা লোম্যান উইলির স্ত্রী
৫। চার্লি উইলির প্রতিবেশী
৬। বার্নার্ড চার্লির ছেলে ও একজন উকিল।
৭। বেন উইলির ধনী ভাই এবং আলাস্কায় বসবাসরত।  
৮। অজানা মহিলা বিফ ও হ্যাপি হাইস্কুলে পড়া অবস্থায় উইলির গোপন প্রেয়সী।
৯। হাওয়ার্ড ওয়াগনার উইলির মালিক।
১০। স্ট্যানলি ফ্রাঙ্কস চপ হাউজে খাবার পরিবেশনকারী।
১১। মিস ফরসিথ এবং লেটা -  এরা দুই জনেই পতীতা।
১২। জেনি চার্লির সেক্রেটারি ।   



১ম অঙ্ক
কোন একটি ব্যবসায়ীক ভ্রমন থেকে উইলি লোম্যান ক্লান্ত ও অবসন্ন অবস্থায় তার ব্রুকলিনের বাড়িতে ফিরে আসেন। তার স্ত্রী লিন্ডা তাকে বললেন সে যেন তার বস হাওয়ার্ড ওয়াগনারকে তার কর্মস্থল নিউইয়র্ক এ দিতে বলে যাতে করে তাকে কষ্টকর দূরের ভ্রমনগুলো না করতে হয়। সে তাকে জানালো হাওয়ার্ডের সাথে পরের দিন এব্যাপারে কথা বলবে। উইলি তাকে তার বড় ছেলের ব্যাপারে অভিযোগ দিল যে সে এখনো কোন কিছু বা কাজ শুরু করতে পারেনি। লিন্ডা তাকে তার এতটা কাঠিন্যের জন্যে ভসনা করল।  তারপর উইলি জলখাবার এর জন্যে রান্নাঘর এ গেল। উইলি রান্নাঘরে গিয়ে নিজে নিজেই কথা বলছিল। বিফ এবং তার ছোট ভাই হ্যাপি তারাও আসছে। উইলি নিজের পুড়নো স্মৃতি গুলো মনে করতে ছিল।

বিফ আর হ্যাপি তাদের জীবনের ব্যাপারে  সম্পূর্ণ অখুশি ছিল। তারা  পশ্চিমে একটা খামার কিনতে চায়। উইলি এক সময় দিবা স্বপ্নে ডুবে গেল। সে দেখল কিশোর বিফ তার গাড়ি পরিষ্কার করছে। সে একজন হাইস্কুল ফুটবল তারকা। সে সময় ছোট্ট হ্যাপি হাজির হল। তারা তাদের বাবার সাথে খুব ভাল আচড়ন করছিল। সে তখন একটা ব্যবসায়ীক ভ্রমন থেকে ফিরে এসেছিল মাত্র। উইলি বিফের উপর একটা ব্যপারে বিশ্বাস রাখত যে সে একদিন বিশাল এক ব্যবসার মালিক হবে যেটা চার্লির চেয়েও বড়। চার্লির ছেলে বার্নার্ড আসে বিফের খোজে। কারন আগামি গণিত পরীক্ষায় তাকে পাশ করতে হলে তাকে তার সাথে পড়তে হবে। উইলি তখন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেবে যদিও বার্নার্ড দেখতে সুন্দর কিন্তু সে পসন্দনীয় নয় আর এটা তাকে কষ্ট দিবে।
তারপর সেখানে কমবয়েসি লিন্ডা প্রবেশ করে। এ সময় বিফ আর হ্যাপি ঘরের অন্য কাজে চলে যায়। উইলি সেখানে একটি সফল ব্যবসায়ীক ট্রিপ নিয়ে তার সাথে গর্ব করে। লিন্ডা তাকে বলে তার ব্যবসা আসলে সফল নয়। তারপর উইলি তার কাছে অভিযোগ করে যে সে তাদের গাড়ি ও অন্যান্য যন্ত্রপাতির মূল্য এখনো পরিশোধ করতে পারে নি। সে আরো অভিযোগ করে যে মানুষগুলো এখন আর তাকে ভালোবাসে না আর এর কারনে সে তার কাজে ভাল করতে পারছে না। লিন্ডা যখন তাকে শান্তনা দিচ্ছিল সে সময় সে তার গোপন প্রেমিকার হাসি শুনতে পেল। হাসতে থাকা অবস্থায় সে তখনো তার দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল। সে অন্য আরেকটা নতুন দিবা স্বপ্নে ডুবে গেল। তারা দুজনে কিছুক্ষন আনন্দ ফুর্তিতে ডুবে থাকল। তারপর তার প্রেয়সীকে এক জোড়া মোজা দেয়ার জন্যে সে তাকে ধন্যবাদ জানালো।

এক সময় এই মহিলা অদৃশ্য হয়ে গেল, এবার উইলি তার আগের দিবা স্বপ্নে ফিরে গেল। এ সময় সে লিন্ডাকে দেখতে পেল সে একটা মোজা সেলাই করছে। এ জন্যে তাকে সে মৃদু ভাবে কিছুটা ধমকালো আর মোজাটি ফেলে দেয়ার আদেশ করলো। বার্নার্ড বিফকে দেখে আবার চিৎকার করে উঠল। লিন্ডা উইলিকে মনে করিয়ে দিল বিফের চুরি করা ফুটবলটি ফিরিয়ে দিতে হবে। সে তাকে আরো বলল ইদানিং বিফ তাদের প্রতিবেশীদের মেয়েদের সাথে খুব বাজে আচড়ন করছে। সেই মহিলাটি বার্নার্ড এবং লিন্ডাকে নিয়ে হাসছে শুনতে পেল। তারা দুইজন অদৃশ্য হয়ে গেল আর এর মাঝেই তার দিবাস্বপ্ন ভেঙ্গে গেল। তারপর সে বিড়বিড় করে কিছু বলছিল। বর্তমানের বয়স্ক হ্যাপি সিড়িতে এসে দাড়ালো আর উইলিকে বিড়বিড় করা থেকে নিবৃত্ত করার চেষ্ঠা করলো। সে তার ভাই বেন এর সাথে আলাস্কায় না যাওয়ায় এ সময় রাগে দুঃখে ও ক্ষোভে সে চিৎকার করে উঠলো। তার ভাই আফ্রিকায় একটি হীরার খনী পেয়ে ধনী হয়ে গিয়েছে। তার এই চিৎকার শুনে তার প্রতিবেশী চার্লির আগমন ঘটল। হ্যাপি বিছানায় চলে গেল আর উইলি ও চার্লি তাস খেলায় মননিবেশ করল। চার্লি তাকে একটি কাজের প্রস্তাব করল কিন্তু উইলি এতে অপমান বোধ করে এবং প্রত্যাখ্যান করে। যখন তারা এই বিষয়টা নিয়ে আলোচনা করছিল তখন উইলির কল্পনায় সেই কক্ষে বেন প্রবেশ করল। দুর্ঘটনাক্রমে উইলি চার্লিকেই বেন বলে ডাকা শুরু করে। বেন তার পুরো ঘরটিই জরিপ করে তারপর বলে আলাস্কায় তার সম্পদ গুলো দেখা শুনার জন্যে তাকে এখুনি আলাস্কার ট্রেন ধরতে হবে।  উইলি বেনের সাথে আলাস্কায় যাওয়া নিয়ে আলোচনা করতে গেলে চার্লি দেখে ঘরে তারা দুইজন ছাড়া কেউ নেই। হতভম্ব অবস্থায় উইলি কার সাথে কথা বলছিল সে তা উইলির কাছে জানতে চাইলে উইলি চার্লির দিকে চেয়ে চিৎকার করে ওঠে। চার্লি তখন কক্ষ ত্যাগ করে। সে আবার কল্পনা শক্তি দিয়ে দেখল অল্প বয়েসি লিন্ডা ঘরে প্রবেশ করল আর বেন তার সাথে দেখা করল। সে খুব অধৈর্যভাবে বেনকে তার জীবন সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করল। বেন তার ভ্রমন এর কথা স্মরন করল এবং তার বাবার ব্যপারে কথা বলল। বেন যখন চলে যাচ্ছিল, সে সময় উইলি তার দিবা স্বপ্নের ভেতরেই দেখতে পেল চার্লি আর তার ছেলে বার্নার্ড দৌড়ে আসছে তাকে এটা বলতে যে বিফ আর চার্লি চুরি করছে। যদিও বেন সে সময়ই চলে যাচ্ছিল কিন্তু উইলি তার সাথে কথা চালিয়ে গেল।

বর্তমানের বয়স্ক লিন্ডা উইলিকে ঘরের বাহিরে খুজে পেল। বিফ আর হ্যাপি নিচের সিড়িতে নেমে এলো। তারা তাদের মায়ের সাথে উইলির ব্যপারে আলোচনা করল। উইলিকে নিয়ে কর্কষ ভাবে কথা বলার জন্যে লিন্ডা বিফকে তিরষ্কার করল। বিফ তাকে বলল উইলি হল একটা প্রতারক তবে সে কেনো এটা বলেছে এ ব্যাপারে কোন ব্যাখ্যায় গেল না। লিন্ডা তাকে জানালো যে উইলি আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছিল। হ্যাপি রেগে গেল আর বিফকে তার ব্যবসার ব্যর্থতার জন্যে গালমন্দ করল। এ সময় উইলি প্রবেশ করে ও বিফকে উদ্দেশ্য করে চেঁচামেচি করা শুরু করে। হ্যাপি সেখানে হস্থক্ষেপ করে তাকে থামিয়ে দেয় এবং সে আর বিফ এক সাথে একটি ক্রীড়া সামগ্রীর ব্যবসা শুরু করার প্রস্তাব রাখে। এতে উইলির মুখ উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। সে বিফকে তার আগের চাকরিদাতা বিল অলিভার এর থেকে কিছু অর্থ ধার নেয়ার পরামর্শ দেয় । এই বিষয়ে অনেক আলোচনা-পর্যালোচনা শেষে তারা বিছানায় ঘুমাতে যায়।

১ম অঙ্ক শেষ 


Reactions:

0 comments:

Post a Comment

Popular Posts